বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > দিদির প্রতি আস্থা রেখে টুইট ভাই বাবুলের, সম্পর্কের মেলবন্ধনে রাখলেন টুইস্ট
বাবুল সুপ্রিয়। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
বাবুল সুপ্রিয়। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

দিদির প্রতি আস্থা রেখে টুইট ভাই বাবুলের, সম্পর্কের মেলবন্ধনে রাখলেন টুইস্ট

  • এই বাঁধ ভাঙা উচ্ছ্বাসে সামিল হলেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়ও। আর দিলেন উচ্ছ্বসিত প্রতিক্রিয়া।

ভবানীপুর উপনির্বাচনে নিজের রেকর্ড ও শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের রেকর্ড ভেঙেছেন তৃণমূল কংগ্রেসের সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৫৮৮৩২ ভোটে জয়ী হয়েছেন ভবানীপুরে। এই খবর এখন সবার কাছে পৌঁছে গিয়েছে। কিন্তু এই ফলাফলের পর একটা টুইস্ট রয়েছে বাংলার মানুষের জন্য। তবে সেই টুইস্টটি করেছেন সদ্য তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেওয়া বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়।

একুশের নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায় বিজেপি প্রার্থী রুদ্রনীল ঘোষকে হারিয়েছেন ২৮৭১৯ ভোটে। সেটা ভেঙেছেন মমতা। আর এবার ২০১১ সালের ভবানীপুরের উপনির্বাচনে নিজের রেকর্ডও ভেঙে ফেললেন মমতা। আর তাতেই রবিবাসরীয় দুপুরের ভবানীপুর আলাদা চেহারা নেয়। সেটা মানুষজন প্রত্যক্ষ করেছেন। এই বাঁধ ভাঙা উচ্ছ্বাসে সামিল হলেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়ও। আর দিলেন উচ্ছ্বসিত প্রতিক্রিয়া।

তিনি আজ একটি টুইট করেছেন। কী লিখেছেন বাবুল সুপ্রিয়?‌ তিনি ট্যুইট করে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অভাবনীয় জয়ে অভিনন্দন জানিয়েছেন। তারপর বাবুল লেখেন, ‘‌আমার হার্দিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। ভবানীপুরের উপনির্বাচনে এই ঐতিহাসিক ও বিপুল জয়ে নেত্রীকে শুভেচ্ছা জানাই। একইসঙ্গে বাবুল হ্যাসট্যাগ দিয়ে ইংরেজিতে লেখেন, ‘‌More Power to her’‌। যার বাংলা তর্জমা করলে দাঁড়ায়, ‘‌তাঁকে আরও শক্তি দাও।’‌

আর এখানেই রযেছে টুইস্টটি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরও শক্তিশালী হোক এটা চাওয়ার অর্থই হল, কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের পতন তখনই হবে যখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরও শক্তিশালী হবে। সরাসরি বিজেপিকে ক্ষমতাচ্যুত করার কথা না বললেও এভাবে তিনি বোঝালেন বলে মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা। ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের দিকে তাকিয়েই এই প্রতিক্রিয়া বলে অনেকে মনে করছেন।

তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়েছিলেন বিজেপির প্রার্থী প্রিয়াঙ্কা টিবরেওয়াল। যিনি বাবুল সুপ্রিয়র হাত ধরেই বিজেপিতে এসেছিলেন। তাই ছোট বোনের বিরুদ্ধে তিনি প্রচারে নামেননি। কিন্তু দিদির প্রতি আস্থা রেখেছিলেন। রাজনীতির অন্দরে এই সম্পর্কের মেলবন্ধন তিনি সুচারুভাবে করেছেন। আর জয়ের পর টুইটটি করেছেন দিদির পক্ষেই। এটা আরও একটা টুইস্ট।

বন্ধ করুন