বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ওমিক্রন আতঙ্কে কর্মীদের দিতে হবে টিকার দ্বিতীয় ডোজ, জোর দাবি বাস সংগঠনের
বেসরকারি বাস। প্রতীকী ছবি (সৌজন্যে ফেসবুক)।
বেসরকারি বাস। প্রতীকী ছবি (সৌজন্যে ফেসবুক)।

ওমিক্রন আতঙ্কে কর্মীদের দিতে হবে টিকার দ্বিতীয় ডোজ, জোর দাবি বাস সংগঠনের

  • জ্বালানির ক্ষেত্রে মূল্যবৃদ্ধি ছাড়াও নথিপত্রে ছাড়ের দাবিতে রাজ্য সরকার ও পরিবহণ দফতরে আবেদন জানিয়েছে বেসরকারি বাস মালিকদের সংগঠন জয়েন্ট কাউন্সিল অব বাস সিন্ডিকেট।

রাজ্যে চোখ রাঙাচ্ছে ওমিক্রন। ইতিমধ্যেই করোনা আক্রান্তের সংখ্যা হাজারের উপর। তার মধ্যে কলকাতাতেই ৫০০-র বেশি আক্রান্ত হয়ে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। আশঙ্কা করা হচ্ছে এক সপ্তাহের মধ্যেই সম্ভবত তৃতীয় ঢেউয়ের মুখোমুখি হতে চলেছে গোটা রাজ্য।

এই সম্ভাবনার কথা উড়িয়ে দেননি খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। এরই মধ্যে সামনেই রয়েছে গঙ্গাসাগর মেলা। যাতায়াতের জন্য সেখানে সমস্ত বেসরকারি বাস কাজে লাগাতে মাঠে নেমেছে পুলিশ প্রশাসন। এবার পরিবহণ কর্মীদের মধ্যে যাতে ওমিক্রন সংক্রমণ ছড়িয়ে না-পড়ে তার জন্য একগুচ্ছ দাবিদাওয়া তুলেছে বাস সংগঠনগুলো। 

তার মধ্যে উল্লেখ্যযোগ্য হল, টিকাকরণের উপর জোর। পাশাপাশি, জ্বালানির ক্ষেত্রে মূল্যবৃদ্ধি ছাড়াও নথিপত্রে ছাড়ের দাবিতে রাজ্য সরকার ও পরিবহণ দফতরে আবেদন জানিয়েছে বেসরকারি বাস মালিকদের সংগঠন জয়েন্ট কাউন্সিল অব বাস সিন্ডিকেট।

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক তপন বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, রাজ্যে ওমিক্রন বাড়ার জন্য মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়েছে।এই পরিস্থিতির মধ্যে সব বেসরকারি বাসগুলো গঙ্গাসাগর মেলায় পরিষেবা দেওয়ার জন্য যাচ্ছে। তিনি আরও জানিয়েছেন, প্রতিবছর এই মেলার পরিবহণ ব্যবস্থা সামাল দিতে পুলিশ অনেক বাস অধিগ্রহণ করে নেয়। যেহেতু বাস কর্মীরা সরাসরি মানুষের সঙ্গে সংস্পর্শে আসেন তাই কর্মীদের যাতে টিকার ডবল ডোজ দেওয়া হয় সেই দাবি জানিয়েছেন তিনি। 

পাশাপাশি যাত্রীরা যাতে তাঁদের দ্বিতীয় ডোজের শংসাপত্র সঙ্গে রাখেন। আর সেগুলো যাতে যথাযথভাবে পরীক্ষা করা হয়, তা রাজ্যকে নিশ্চিত করতে আবেদন জানিয়েছে এই বাস সংগঠন। সংগঠনের তরফে আরও দাবি জানানো হয়েছে, গঙ্গাসাগর মেলার জন্য বাসের ভাড়া পুনর্বিবেচনার করতে হবে।

বন্ধ করুন