বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌শ্রমিক ভাই–বোনেরা আমাদের সাথী’‌, শ্রমিক দিবসে টুইট করলেন মুখ্যমন্ত্রী
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়  (HT_PRINT)
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়  (HT_PRINT)

‘‌শ্রমিক ভাই–বোনেরা আমাদের সাথী’‌, শ্রমিক দিবসে টুইট করলেন মুখ্যমন্ত্রী

  • ১৮৮৬ সালের ১ মে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগো শহরের হে মার্কেটের শ্রমিকরা আট ঘণ্টা কাজের দাবিতে আন্দোলনে সামিল হয়েছিলেন। তাঁদের আত্মত্যাগের মধ্য দিয়ে শ্রমিক শ্রেণির অধিকার প্রতিষ্ঠিত হয়। শ্রমিক আন্দোলনের সেই দিনটিকেই গোটা বিশ্বে ‘মে দিবস’ হিসেবে পালন করা হয়।

আজ বিশ্বজুড়ে পালিত হচ্ছে আন্তর্জাতিক শ্রম দিবস। মে দিবসে শ্রমিকদের অধিকার সম্পর্কে সচেতন করা এই দিনটির উদ্দেশ্য। সব কাজেই রয়েছে শ্রম। শ্রমিকদের বঞ্চনা–শোষণের ইতিহাসকে স্মরণ করার দিন এটি। শ্রমের যথোপযুক্ত মর্যাদা প্রতিষ্ঠার দিনকে মে দিবস হিসাবে পালন করা হয়। আর আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবসে সকলকে শুভেচ্ছা জানালেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মে দিবস উপলক্ষ্যে রবিবার একটি টুইট করেন মুখ্যমন্ত্রী। দেশ–বিদেশ তথা বাংলার সমস্ত শ্রমিকদের ‘‌সাথী’‌ বলে টুইটে উল্লেখ করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ঠিক কী লিখলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী?‌ আজ, রবিবার টুইট করে মুখ্যমন্ত্রী লেখেন, ‘‌আন্তর্জাতিক শ্রমিক দিবসের শুভেচ্ছা। আমরা আমাদের শ্রমিক ভাই–বোনেদের জন্য গর্বিত। তাঁরা আমাদের সাথী। দেশ–বিদেশ তথা বাংলার সকল শ্রমিককে আন্তরিকভাবে শুভেচ্ছা জানাই। তাঁদের পরিবারকেও শুভেচ্ছা জানাই।’‌ নিজের ব্যস্ততার মধ্যেও এই টুইট করেছেন তিনি।

উল্লেখ্য, ১৮৮৬ সালের ১ মে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগো শহরের হে মার্কেটের শ্রমিকরা আট ঘণ্টা কাজের দাবিতে আন্দোলনে সামিল হয়েছিলেন। তাঁদের আত্মত্যাগের মধ্য দিয়ে শ্রমিক শ্রেণির অধিকার প্রতিষ্ঠিত হয়। শ্রমিক আন্দোলনের সেই দিনটিকেই গোটা বিশ্বে ‘মে দিবস’ হিসেবে পালন করা হয়। কলকাতা শহরেও রাজনৈতিক দলগুলির পক্ষ থেকে শ্রমিক দিবস পালন করা হচ্ছে।

ভারতে প্রথম শ্রমিক দিবস পালন হয়েছিল ১৯২৩ সালে। চেন্নাইতে হিন্দুস্তান লেবার কিষান পার্টি এই দিনটি প্রথম পালন করে। কমিউনিস্ট নেতা মালয়পুরম সিঙ্গারাভেলু চেত্তিয়ার শ্রমিকদের প্রচেষ্টাকে স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য ১ মে জাতীয় ছুটি হিসেবে ঘোষণা করার পক্ষে প্রথম সওয়াল করেছিলেন। বিশ্বের মানুষই শ্রমিকদের অধিকারের জন্য এবং শ্রমিকদের শোষণ থেকে মুক্তির জন্য বিষয়টিকে জোর দেন এই বিশেষ দিনে।

বন্ধ করুন