বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > আর্মি ট্রেনিং নয়, আর্মস ট্রেনিং, অগ্নিপথ নিয়ে বিধানসভায় বিতর্কিত মন্তব্য মমতার
বিধানসভায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল ছবি

আর্মি ট্রেনিং নয়, আর্মস ট্রেনিং, অগ্নিপথ নিয়ে বিধানসভায় বিতর্কিত মন্তব্য মমতার

  • এখানে তো নিয়োগ হচ্ছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের অধীনে। আর্মি ট্রেনিং নয়, আর্মস ট্রেনিং দেওয়ার ব্যবস্থা হচ্ছে। আমি সবাইকে অনুরোধ করব বিজেপির প্ররোচনায় পা দেবেন না। হিংসা ছড়াবেন না, বললেন মমতা।

অগ্নিপথ প্রকল্পের নামে নিজেদের ক্যাডার তৈরি করতে চাইছে বিজেপি। সোমবার বিধানসভার চলতি অধিবেশনে প্রথমবার যোগ দিয়ে এমনটাই দাবি করলেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। একই সঙ্গে তাঁর হুঁশিয়ারি আগুন নিয়ে খেলছে বিজেপি।

এদিন মমতা বলেন, ‘অগ্নিপথের প্রকল্পের নামে নিজেদের ক্যাডার তৈরি করতে চাইছে বিজেপি। চার বছরের জন্য চাকরি! এ আবার হয় না কি? বিজেপি আগুন নিয়ে খেলছে। সেনাবাহিনীতে নিয়ো প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের অধীনে হয়। এখানে তো নিয়োগ হচ্ছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের অধীনে। আর্মি ট্রেনিং নয়, আর্মস ট্রেনিং দেওয়ার ব্যবস্থা হচ্ছে। আমি সবাইকে অনুরোধ করব বিজেপির প্ররোচনায় পা দেবেন না। হিংসা ছড়াবেন না’।

মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যের বিরোধিতা করে এদিন বিধানসভা থেকে ওয়াক আউট করে বিজেপি। এর পর সাংবাদিকদের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রী বোধ হয় নন্দীগ্রামে হারের জ্বালা ভুলতে পারেননি। তাই বিরোধী দলনেতাসহ বিজেপি বিধায়কদের ব্যক্তিগত আক্রমণ করেছেন। বিধানসভার অন্দরে সেনাবাহিনীর অপমান করেছেন উনি। আমরা তার প্রতিবাদ করে ওয়াক আউট করেছি।’

মুখ্যমন্ত্রীর মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা বলেন, যিনি রাজ্যটাকে বোমা - বন্দুকের তীর্থক্ষেত্রে পরিণত করেছেন, যাঁর রাজনীতিটাই গুন্ডা আর ক্যাডার তৈরির ওপরে দাঁড়িয়ে রয়েছে তিনি আর কী ভাববেন? দেশের মানুষ বিজেপির ওপর দেশের ভার দিয়েছেন। ওনাকে এসব নিয়ে এত না ভাবলেও চলবে। উনি নতুন আর কোথা থেকে টাকা তোলা যায় তার চিন্তা করুন।

সেনায় নিয়োগে অগ্নিপথ প্রকল্পের বিরোধিতায় দেশের বিভিন্ন রাজ্য যুবাদের বিক্ষোভে প্রায় স্তব্ধ হয়ে পড়ে। আগুন লাগানো হয় একের পর এক ট্রেনে। ভাঙচুর করা হয় রেলের সম্পত্ত। রবিবার বিকেলে সাংবাদিক বৈঠক করে এই প্রকল্পের খুঁটিনাটি স্পষ্ট করেন তিন বাহিনীর প্রধান।

 

বন্ধ করুন