বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > এবার ট্রামে চড়লেই মিলবে ওয়াইফাই, জেনারেশন ওয়াই–কে আকৃষ্ট করতে নয়া পদক্ষেপ
ধর্মতলায় ট্রাম। ছবি সৌজন্য : পিটিআই (PTI)
ধর্মতলায় ট্রাম। ছবি সৌজন্য : পিটিআই (PTI)

এবার ট্রামে চড়লেই মিলবে ওয়াইফাই, জেনারেশন ওয়াই–কে আকৃষ্ট করতে নয়া পদক্ষেপ

  • ট্রাম কর্তৃপক্ষ আশাবাদী, এই ওয়াই–ফাই পরিষেবা চালুর মাধ্যমে ঐতিহ্যবাহী ট্রাম তার পুরনো জৌলুস ফিরে পাবে। যাঁরা কখনও ট্রাম চড়েনি তাঁরাও এবার আগ্রহ প্রকাশ করবেন ট্রামে ওঠার।

জেনারেশন ওয়াই–এর আমলে ধুঁকছে কলকাতার ঐতিহ্যবাহী ট্রাম। ফোর–জি ছেড়ে ফাইভ–জি আসতে চলেছে। এই গতির যুগে ধীর গতির ট্রাম চড়েনি অনেকেই। আজকালকার ছেলেমেয়েরা সে কথা এক বাক্যে স্বীকারও করেন। তাঁদের ট্রামের প্রতি আকর্ষণ বাড়াতে ইতিমধ্যে একাধিক পদক্ষেপ নিয়েছে রাজ্য পরিবহণ দফতরের অধীন ডব্লুবিটিসি। রেস্তোরাঁ থেকে ট্রামে চালু হয়েছে গ্রন্থাগারও। এবার ট্রামে উঠলেই মিলবে ওয়াই–ফাই।

নতুন বছরের প্রথম দিন থেকেই ট্রামে মিলবে ওয়াই–ফাই সুবিধা। কলকাতাবাসীকে নববর্ষের উপহার হিসেবে এই পরিষেবার সূচনা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে রাজ্য পরিবহণ দফতর। জানা গিয়েছে, কলকাতায় একাধিক রুটে চলা ২১টি বাতানুকূল মিলবে ওয়াই–ফাই পরিষেবা। ১ জানুয়ারি থেকে ট্রামগুলিতে উঠে ওয়াই–ফাইয়ের সঙ্গে সংযুক্ত হতে পারবেন যাত্রীরা। আর ৩১ জানুয়ারি থেকে এই পরিষেবা পাওয়া যাবে শহরে চালু ২৫৬টি ট্রাম রেকের সবকটিতেই, এমনই জানিয়েছে ট্রাম কর্তৃপক্ষ।

ট্রামে উঠে টিকিট কাটার পরই সেখানে মিলবে একটি কিউআর কোড। স্মার্ট ফোনে সেই কিউআর কোডে স্ক্যান করে নির্দিষ্ট পাসওয়ার্ডের মাধ্যমে মিলবে ওয়াই–ফাই পরিষেবা। ট্রাম কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, পরিবেশবান্ধব দূষণমুক্ত যান হিসেবে তরুণ যুব সমাজকে ট্রামের প্রতি আকৃষ্ট করতেই এমন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। প্রযুক্তিগত এই কাজটি করবে বিএসএনএল। সরকারি এই টেলিকম সংস্থার সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধেই ওয়াই–ফাই চালু হচ্ছে ট্রামে।

ট্রাম কর্তৃপক্ষ আশাবাদী, এই ওয়াই–ফাই পরিষেবা চালুর মাধ্যমে ঐতিহ্যবাহী ট্রাম তার পুরনো জৌলুস ফিরে পাবে। যাঁরা কখনও ট্রাম চড়েনি তাঁরাও এবার আগ্রহ প্রকাশ করবেন ট্রামে ওঠার। কম ভাড়ায় অনেকটা পথ যাওয়ার পাশাপাশি ওয়াই–ফাই সংযোগ এক উপরি পাওনা হবে বলেই মনে করছেন ট্রাম কর্তৃপক্ষ।‌

বন্ধ করুন