বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বাংলায় সংকটে NCC, বকেয়া ৩ কোটি, মন্ত্রী বললেন, ২০ লক্ষ দিয়েছি, চাপানউতোর তুঙ্গে

বাংলায় সংকটে NCC, বকেয়া ৩ কোটি, মন্ত্রী বললেন, ২০ লক্ষ দিয়েছি, চাপানউতোর তুঙ্গে

এনসিসি ক্যাডেট।(Ravi Kumar/HT) (HT_PRINT)

সূত্রের খবর, এর জেরে এনসিসি ক্যাডেটরা তাঁদের সার্টিফিকেট পাবেন না। কারণ সার্টিফিকেট পাওয়ার ক্ষেত্রে ক্য়াম্পে যোগ দেওয়াটা জরুরী। এদিকে এনসিসির সার্টিফিকেট পাওয়ার পরে অনেকেই দেশের সশস্ত্র বাহিনীতে যোগ দিতে চান। কিন্তু সেক্ষেত্রেও সমস্যা হতে পারে বলে মনে করছেন অনেকেই।

এনসিসির বকেয়া পাওনা মেটাচ্ছে না রাজ্য সরকার। এই অভিযোগকে ঘিরে বড় বিতর্ক সামনে এসেছে এবার। এদিকে অর্থের অভাবে এনসিসির একাধিক কর্মকাণ্ড মুখ থুবড়ে পড়ছে বলে দাবি করা হচ্ছে। শিবিরের কাজেও ধাক্কা খেয়েছে। এনিয়ে বিতর্ক শুরু হতেই রাজ্যের অর্থ দফতরের স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য কার্যত জানিয়ে দিলেন, অনুদান না দেওয়ার অভিযোগ ঠিক নয়। অক্টোবর মাসেই ২০ লক্ষ টাকা দেওয়া হয়েছে।

তবে এই টাকা নিয়ে রাজ্য-কেন্দ্র দড়ি টানাটানি শুরু হতে পারে বলেও মনে করছেন অনেকেই। মন্ত্রীর দাবি, রাজ্য সরকার টাকা বন্ধ করেনি। কেন্দ্র কোন কোন ক্ষেত্রে টাকা দিচ্ছে না সেটা নজর দেওয়া জরুরী। অভিযোগের সারবত্তা নেই বলেও দাবি করেছেন মন্ত্রী।

তবে এনসিসির দায়িত্বে থাকা কম্য়ান্ডিং অফিসার এই টাকা না পাওয়ার বিষয়টি নিয়ে এনসিসির ডিজিকে চিঠি দিয়েছেন। এদিকে এনসিসির দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিকের দাবি, আপাতত ৩ কোটি টাকার প্রয়োজন। আগে যে টাকা বকেয়া রয়েছে সেটা ধরলে প্রায় ১০ কোটি হয়ে যাবে। পাশাপাশি অর্থের অভাবে ক্যাম্প পরিচালনা করা যাচ্ছে না বলেও দাবি করা হয়েছে এনসিসির তরফে। এর জেরে কী কী হতে পারে?

সূত্রের খবর, এর জেরে এনসিসি ক্যাডেটরা তাঁদের সার্টিফিকেট পাবেন না। কারণ সার্টিফিকেট পাওয়ার ক্ষেত্রে ক্য়াম্পে যোগ দেওয়াটা জরুরী। এদিকে এনসিসির সার্টিফিকেট পাওয়ার পরে অনেকেই দেশের সশস্ত্র বাহিনীতে যোগ দিতে চান। কিন্তু সেক্ষেত্রেও সমস্যা হতে পারে বলে মনে করছেন অনেকেই। 

তবে মন্ত্রীর দাবি, পরবর্তীতেও ফাণ্ড দেওয়া হবে। তবে যাদের টাকা দেওয়া হয় তাদের হিসাব দিতে হয়। হিসেব দিলে সেই মতো টাকা দিয়ে দেওয়া হবে।

বন্ধ করুন