বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > SSC scam- জেলার প্রাথমিক শিক্ষা সংসদগুলিকে ১০ দফা তথ্য সিবিআইয়ের কাছে জমা দেওয়ার নির্দেশ
প্রাথমিকের তদন্তে সিবিআই। প্রতীকি ছবি

SSC scam- জেলার প্রাথমিক শিক্ষা সংসদগুলিকে ১০ দফা তথ্য সিবিআইয়ের কাছে জমা দেওয়ার নির্দেশ

  • এ নিয়ে রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে নিশানা করেছিলেন শুভেন্দু। এরপরেই সোমবার বিধানসভায় পার্থর পাশে দাঁড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, ‘এক লক্ষ চাকরির ক্ষেত্রে যদি ১০০ টি ভুল হয় তা হলে তা আমরা শুধরে নেব।’

কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশ পাওয়ার পরেই প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতি নিয়ে জোরদার তদন্ত করছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সিবিআই। কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে সিবিআইকে নিয়োগ সংক্রান্ত সমস্ত তথ্য তুলে দেওয়ার জন্য জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সংসদগুলিকে নির্দেশ দিয়েছে স্কুল শিক্ষা দফতর। ২০১৪ সালে টেট পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে যারা চাকরি পেয়েছেন তাদের যাবতীয় তথ্য সিবিআইয়ের হাতে তুলে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

নিয়োগপত্রের প্রতিলিপি থেকে শুরু করে যোগদানের রিপোর্ট, অ্যাডমিট কার্ড, টেট পরীক্ষায় যোগ্যতা অর্জনে তথ্য, প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের প্রশিক্ষণের শংসাপত্র, পার্শ্ব শিক্ষক নিয়োগ সংক্রান্ত প্যারাটিচার এপোয়েন্টমেন্ট লেটার, যদি কোনও অভিজ্ঞতা থাকে তার তথ্য, সব মিলিয়ে মোট দশটি করে তথ্য সিবিআইয়ের কাছে জমা দিতে বলা হয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা সংসদগুলিকে। প্রসঙ্গত, বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী ইঙ্গিত দিয়েছিলেন আরও ১০ হাজার জনের চাকরি যাবে। এ নিয়ে রাজ্যের প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে নিশানা করেছিলেন শুভেন্দু। এরপরেই সোমবার বিধানসভায় পার্থর পাশে দাঁড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, ‘এক লক্ষ চাকরির ক্ষেত্রে যদি ১০০ টি ভুল হয় তা হলে তা আমরা শুধরে নেব।’

মুখ্যমন্ত্রীর এই বক্তব্য প্রসঙ্গে সমালোচনা করেন বঙ্গীয় শিক্ষক শিক্ষাকর্মী সমিতির সাধারণ সম্পাদক স্বপন মন্ডল। তিনি বলেন, ‘শিক্ষায় নিয়োগের ক্ষেত্রে যে দুর্নীতি হয়েছে মুখ্যমন্ত্রী তা একপ্রকার স্বীকার করে নিয়েছেন। অর্থের বিনিময়ে চাকরি দেওয়া গুরুতর অপরাধ। আমরা চাই এর সঠিক তদন্ত হোক এবং অপরাধীদের শাস্তি হোক।’

বন্ধ করুন