বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > সিএএ নিয়ে বিস্ফোরক তথ্য সামনে আনল তৃণমূল, এক্স হ্যান্ডেলে তুললেন সাকেত গোখলে

সিএএ নিয়ে বিস্ফোরক তথ্য সামনে আনল তৃণমূল, এক্স হ্যান্ডেলে তুললেন সাকেত গোখলে

সাকেত গোখলে-অমিত শাহ

এই আবহে দেশের মধ্যে সিএএ কার্যকর করেও লাভের ফসল ঘরে এখনও তুলতে পারেনি বিজেপি। লোকসভা নির্বাচনে এটার প্রভাব পড় কিনা সেটাই এখন দেখার বিষয়। কংগ্রেসের দাবি, মূল্যবৃদ্ধি, বেকারত্বর মতো প্রকৃত সমস্যাগুলি থেকে নজর ঘোরাতেই নির্বাচনের প্রাক্কালে সিএএ সামনে এনেছে মোদী–শাহের দল।

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল এখন আইনে পরিণত হয়েছে। এখন তা সারা দেশে কার্যকর করে দেওয়া হয়েছে। যা নিয়ে গোটা দেশে এখন শোরগোল পড়ে গিয়েছে। লোকসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে এটাই গোটা দেশের কাছে বড় ইস্যু হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে এই আইন যখন বিল আকারে ছিল তখন সংসদে পাশ হওয়ার আগে পাঠানো হয়েছিল যৌথ সংসদীয় কমিটিতে। যাতে এই কমিটি গোটা বিষয়টি দেখে মতামত দেয়। তবে যৌথ সংসদীয় কমিটির পক্ষ থেকে মতামত নেওয়া হয় আইবি’‌র। আইবি তাদের রিপোর্টে জানায়, এই আইনের ফলে গোটা দেশে উপকৃত হবেন মাত্র ৩১,৩১৩ জন ব্যক্তি। যা আজ আবার সামনে নিয়ে আসা হয়েছে।

তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে এই তথ্য আজ তুলে ধরেছেন রাজ্যসভার সাংসদ সাকেত গোখলে। সোশ্যাল মিডিয়ায় তা পোস্ট করেছেন তিনি। সেখানে সাকেত গোখলের বক্তব্য, ‘‌প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এই আইনকে শরণার্থীদের দরদি এক দারুণ আইন হিসাবে তুলে ধরার চেষ্টা করছেন। কিন্তু এটি বাস্তবে একটি ‘জুমলা’। কারণ ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বর তারিখের আগে পর্যন্ত যাঁরা এসেছেন, তাঁদের মধ্যে এই আইনে নাগরিকত্ব পেতে পারেন মাত্র ৩১,৩১৩ জন ব্যক্তি। তাই এনআরসি জারি করে সংখ্যালঘুদের নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়াই কি আসল লক্ষ্য? আমরা এটার উত্তর চাই।’‌

আরও পড়ুন:‌ উপাচার্য নিয়োগ নিয়ে রাজ্যপালকে দায়ী করল রাজ্য, শুনলেন অ্যাটর্নি জেনারেল

পশ্চিমবঙ্গে মতুয়া ভোট ঝুলিতে ভরতেই এই সিএএ কার্যকর করা হয়েছে বলে মত দেশের বিরোধীদের। সুতরাং বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এতদিন যা দাবি করে আসছিলেন সেটাই দেশের তামাম বিরোধীরাও বলছেন। এই আইনের ফলে বহু মানুষের নাগরিকত্ব চলে যাবে বলে প্রচার করছে তৃণমূল কংগ্রেস। আর কংগ্রেসের প্রধান মুখপাত্র জয়রাম রমেশ আগে বলেছেন, সিএএ বিজ্ঞপ্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত লোকসভা নির্বাচনে মেরুকরণের জন্য। বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এই আইনকে ‘নির্বাচনের আগে শো–অফ’ বলে সম্বোধন করেছেন। কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন বলেছেন, রাজ্যের সিপিএম সরকার সিএএ বাস্তবায়িত করবে না।

সুতরাং এই আবহে দেশের মধ্যে সিএএ কার্যকর করেও লাভের ফসল ঘরে এখনও তুলতে পারেনি বিজেপি। লোকসভা নির্বাচনে এটার প্রভাব পড় কিনা সেটাই এখন দেখার বিষয়। কংগ্রেসের দাবি, মূল্যবৃদ্ধি, বেকারত্বর মতো প্রকৃত সমস্যাগুলি থেকে নজর ঘোরাতেই নির্বাচনের প্রাক্কালে সিএএ সামনে এনেছে মোদী–শাহের দল। ধর্মের ভিত্তিতে নাগরিকত্ব দেওয়া যায় না বলে এখন সবাই সোচ্চার হয়েছেন। এই নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে একাধিক মামলাও করা হয়েছে। সেগুলির শুনানি এখনও সব হয়নি। সেগুলি হলেই এই আইন ব্যুমেরাং হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

বাংলার মুখ খবর

Latest News

‘আমরা কি গোরু-ছাগল?’ সিরিয়ালে আর অভিনয় করবেন না রত্না ঘোষাল! কার উপর অভিমান? এয়ারপোর্টে চেক-ইনে সমস্যা, ধাক্কা ব্যাঙ্কের কাজে, মাইক্রোসফটের সমস্যায় বন্ধ টিভি নিজের জামা ছিঁড়ে ট্রাম্পের প্রতি সমর্থন দেখালেন WWE তারকা! ভাইরাল ভিডিয়ো বল মাথায় লাগতেই মাটিতে লুটিয়ে পড়লেন, রক্তাক্ত হল পিচ! প্রাণে বাঁচলেন বোলার কলকাতা থেকে বিমানে চেপে ভয়াবহ অভিজ্ঞতা মহিলার,যৌন হেনস্থার অভিযোগ শিল্পপতির নামে রাজভবনে শ্লীলতাহানির অভিযোগ রাজ্যকে নোটিশ পাঠাতে নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের United Arab Emirates Women বনাম Nepal Women ম্যাচ শুরু হতে চলেছে, পাল্লা ভারি কোন দিকে? যিশুর জীবনে অন্য নারী! নীলাঞ্জনার সঙ্গে এক ছাদের তলায় থাকছেন না নায়ক, চর্চা জারি Special Tea: বর্ষায় অবশ্যই ট্রাই করুন এই দেশি চা, জেনে নিন রেসিপি খড়দহের পর রাজগ্রাম, ফের লেভেল ক্রসিংয়ে গাড়িকে ধাক্কা মারল চলন্ত ট্রেন

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.