বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বাড়ছে করোনা, দুই ২৪ পরগনায় লালা রসের নমুনা সংগ্রহ করবে দু'টি বিশেষ দল
লালা রসের নমুনা সংগ্রহ করতে দুটি মেডিকেল টিম গঠন করল স্বাস্থ্য দফতর। প্রতীকী ছবি। (PTI)

বাড়ছে করোনা, দুই ২৪ পরগনায় লালা রসের নমুনা সংগ্রহ করবে দু'টি বিশেষ দল

  • প্রতিটি দলে থাকবেন চারজন করে মেডিকেল টেকনোলজিস্ট। উত্তর ২৪ পরগনার জন্য এই দল মোতায়েন থাকবে বিধাননগর হাসপাতালে।

করোনার ঊর্ধ্বমুখী গতি দেখে ঘুম উড়েছে রাজ্যের স্বাস্থ্য কর্তাদের। কিছুদিন আগে দৈনিক সংক্রমণ ছিল ৬ হাজারের বেশি । মাত্র কয়েকদিনের মাথায় তা এক লাফে প্রায় তিনগুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। স্বাস্থ্য দফতরের সর্বশেষ বুলেটিন অনুযায়ী, একদিনে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১৮ হাজারের বেশি মানুষ। কলকাতার পরে যে জেলাগুলোতে সংক্রমণ বেশি ছড়াচ্ছে তারমধ্যে উল্ল্যেখযোগ্য হল উত্তর এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনা। উত্তর ২৪ পরগনায় ৩ হাজারের বেশি এবং দক্ষিণ ২৪ পরগনায় সাতশোর বেশি মানুষ দৈনিক করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। 

এর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে করোনা পরীক্ষা বেড়েছে। পরিস্থিতির মোকাবেলায় দুটি মেডিকেল টিম গঠন করল স্বাস্থ্য দফতর। দফতর সূত্রের খবর, প্রতিটি দলে থাকবেন চারজন করে মেডিকেল টেকনোলজিস্ট। উত্তর ২৪ পরগনার জন্য এই দল মোতায়েন থাকবে বিধাননগর হাসপাতালে। অন্যদিকে, দক্ষিণ ২৪ পরগনার এম আর বাঙ্গুর হাসপাতাল থাকবে মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের এই দল। হাসপাতালে স্বাস্থ্য দফতরের অফিসে এই দল প্রস্তুত থাকবে থাকবে।

মূলত করোনা পরীক্ষার নমুনা সংগ্রহ করবে এই দুটি দল। স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, জরুরী ভিত্তিতে যখনই ডাকা হবে তখনই নির্দিষ্ট স্থানে এই দল গিয়ে লালা রস সংগ্রহ করে তা পরীক্ষার জন্য পাঠাবে। অন্যদিকে, প্রতিদিন একাধিক হাসপাতালের চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী, নার্স করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন । যার ফলে হাসপাতালগুলিতে স্বাস্থ্য পরিষেবা ব্যাহত হওয়ার আশঙ্কা করছে স্বাস্থ্য দফতর। এমনিতেই হাসপাতালগুলোতে করোনা রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। ফলে প্রতিদিন নতুন করে চিকিৎসক,স্বাস্থ্যকর্মীরা করোনা আক্রান্ত হলে সে ক্ষেত্রে রোগীদের চিকিৎসা পরিষেবা না পাওয়ার আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে। সে কথা মাথায় রেখেই রাজ্যের বিভিন্ন হাসপাতালের চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্য কর্মী নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছে রাজ্য সরকার। স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানা যাচ্ছে, ইতিমধ্যেই ৫৯ জন চিকিৎসক নিয়োগ করা হয়েছে। সেই সংখ্যা আরও বাড়ানো হবে বলে জানা যাচ্ছে।

বন্ধ করুন