ব্রেকিং নিউজ

১৫ এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ পশ্চিমবঙ্গের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, যেতে হবে না শিক্ষকদেরও

নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (PTI)
নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (PTI)

  • মুখ্যমন্ত্রী বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি চলাকালীন শিক্ষকরা বাড়ি বসে প্রশাসনিক কাজ করবেন।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গের সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পঠনপাঠন বন্ধ থাকবে বলে জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার নবান্নে এক উচ্চপর্যায়ের বৈঠকের পর সাংবাদিক বৈঠকে একথা জানানো তিনি। একই সঙ্গে মমতা বলেন, করোনাভাইরাস মোকাবিলায় যে স্বাস্থ্যকর্মীরা কাজ করবেন, তাঁদের ৫ লক্ষ টাকা অতিরিক্ত বিমা দেবে সরকার।

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি চলাকালীন শিক্ষকরা বাড়ি বসে প্রশাসনিক কাজ করবেন। স্কুল, কলেজ বা বিশ্ববিদ্যালয়ে যেতে হবে না তাঁদের।

এদিন মমতা বলেন, ভিড়ে যাবেন না। বারবার হাত ধুন। বেশি করে জল খান। করোনা নিয়ে সতর্ক থাকতে বললেও আতঙ্কিত না হতে বলেছেন তিনি।

এদিনের বৈঠকে রাজ্যে ব্রিটিশ আমলের মহামারি আইন প্রয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়ে সরকার। সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, 'রাজ্যে কোথাও ১৪৪ ধারা জারির কথা ভাবেনি সরকার।' মমতার কথায়, রাজ্যের ১০ লক্ষ চিকিৎসক ও চিকিৎসা কর্মীর জন্য ৫ লক্ষ টাকা অতিরিক্ত বিমা করানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তাঁরা। করোনা মোকাবিলায় মোট ২০০ কোটি টাকার তহবিল তৈরি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

তবে রাজ্যের প্রবেশপথগুলি নিয়ে তিনি যে চিন্তিত তা গোপন করেননি মমতা। পশ্চিমবঙ্গ সীমান্তবর্তী রাজ্য হওয়ায় সংক্রমণের সম্ভাবনা বেশি বলে জানিয়েছেন তিনি। সঙ্গে রাজ্যের প্রতিটি প্রবেশ পথে ১৮ জন চিকিৎসকের এক একটি দল পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, ৩১ মার্চ পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গে বন্ধ থাকবে সমস্ত সিনেমা হল, অডিটোরিয়াম, সুইমিং পুল ও জিমন্যাসিয়াম। মমতা বলেন, 'এসব কয়েকদিন বন্ধ থাকলে সমস্যা হবে না। মানুষের প্রাণ আগে।'

বেসরকারি হাসপাতালগুলিকেও এদিন সহায়তার আহ্বান জানান মুখ্যমন্ত্রী। বলেন, কাউকে বিনা চিকিৎসায় ফেরানো যাবে। দরকারে সাহায্যে প্রস্তুত রয়েছে সরকার।


বন্ধ করুন