বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > করোনায় মৃতের দেহ সৎকারে প্রত্যেক পুরসভায় নোডাল অফিসার নিয়োগ করবে সরকার
জয়পুরে সৎকার হচ্ছে করোনায় মৃতের দেহ
জয়পুরে সৎকার হচ্ছে করোনায় মৃতের দেহ

করোনায় মৃতের দেহ সৎকারে প্রত্যেক পুরসভায় নোডাল অফিসার নিয়োগ করবে সরকার

  • তাদের নাম সহ বিজ্ঞাপনও প্রকাশ করা হবে। মৃত্যুর ৩ ঘণ্টার মধ্যে মৃতের দেহ সৎকারের ব্যবস্থা করবেন নোডাল আধিকারিক।

রাজ্যে করোনায় মৃতদের দেহ সৎকারে প্রত্যেক পুরসভায় নোডাল আধিকারিক নিয়োগ করবে রাজ্য সরকার। নবান্ন সূত্রে এমনই জানানো হয়েছে, সঙ্গে মৃত্যুর ৩ ঘণ্টার মধ্যে দেহ সৎকার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এই সংক্রান্ত বিস্তারিত নির্দেশিকা জারি করেছে স্বাস্থ্য দফতর। 

করোনা সংক্রমণের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যুও। এরই মধ্যে বহু জায়গায় থেকে ঘণ্টার পর ঘণ্টা করোনায় মৃতের দেহ পড়ে থাকার অভিযোগ এসেছে। শুক্রবার কলকাতা দক্ষিণ শহরতলির হালতু, সোনারপুরে ঘণ্টার পর ঘণ্টা করোনায় মৃতের দেহ পড়ে থাকে বলে অভিযোগ। নদিয়ার কৃষ্ণনগরেও একই ঘটনা ঘটেছে। সমস্যা সমাধানে রাতারাতি পদক্ষেপ করল সরকার। পুর এলাকায় করোনায় মৃতের দেহ সৎকারে নোডাল আধিকারিক নিয়োগের সিদ্ধান্ত নিল তারা। 

নির্দেশিকায় সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, বাড়িতে কারও মৃত্যু হলে যে চিকিৎসকের অধীনে চিকিৎসা চলছিল তিনি ডেথ সার্টিফিকেট দেবেন। ডেথ সার্টিফিকেট দিতে পারবেন ব্যক্তিগত চিকিৎসকও। হাসপাতালে মৃত্যু হলেও একই নিয়ম। কোনও রোগীকে স্থানান্তরের সময় মৃত্যু হলে যে হাসপাতাল থেকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল এতদিন তাদেরই ডেথ সার্টিফিকেট দিতে হতো, এবার থেকে যে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে তারা ডেথ সার্টিফিকেট দেবে। এবার থেকে করোনা রোগীর দেহ সৎকারে পুলিশের NOC লাগবে না। 

করোনা আক্রান্ত হয়ে কারও মৃত্যু হলে জানাতে হবে নোডাল আধিকারিককে। এজন্য প্রতিটি পুরসভায় নোডাল আধিকারিক নিয়োগ করবে সরকার। তাদের নাম সহ বিজ্ঞাপনও প্রকাশ করা হবে। মৃত্যুর ৩ ঘণ্টার মধ্যে মৃতের দেহ সৎকারের ব্যবস্থা করবেন নোডাল আধিকারিক। 

করোনা রোগীর সৎকারে সর্বোচ্চ ৫ জন আত্মীয় থাকতে পারবেন। তাদের PPE ও মাস্ক দেবে সরকার। 

 

বন্ধ করুন