বাংলা নিউজ > ভোটযুদ্ধ > গ্রামের লড়াই > কেষ্টপুর মা–মেয়ের মৃত্যুতে গ্রেফতার পাঁচ, সুইসাইড নোটে রহস্যের পর্দাফাঁস

কেষ্টপুর মা–মেয়ের মৃত্যুতে গ্রেফতার পাঁচ, সুইসাইড নোটে রহস্যের পর্দাফাঁস

কেষ্টপুরের প্রফুল্ল কাননের আবাসন

সন্দেহ হওয়ায় উদ্বেগের সঙ্গে দ্রুত কেষ্টপুরের উদ্দেশ্যে রওনা দেন তিনি। গৌতমবাবু নিরাপত্তারক্ষীকে ফোন করেন। তাঁর নির্দেশ পেয়ে ওই ফ্ল্যাটে গিয়ে দেখেন দু’‌জনের মৃতদেহ। খবর দেওয়া হয় বাগুইআটি থানায়। ততক্ষণে চলে আসেন গৌতমবাবুও।পুলিশ মা-মেয়ের মৃতদেহ উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠালে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন।

কেষ্টপুরে মা–মেয়ের মৃত্যুর ঘটনায় পাঁচজনকে গ্রেফতার করল বাগুইআটি থানার পুলিশ। তারপর তদন্তে উঠে এসেছে চাঞ্চল্যকর তথ্য। গ্রেফতার হওয়া পাঁচজন ব্যক্তি বিধাননগর পুরসভায় মিউটেশন, লাইসেন্স, বিল্ডিং প্ল্যান পাস–সহ বিভিন্ন কাজে এজেন্ট হিসেবে কাজ করত। কেষ্টপুরের প্রফুল্ল কাননের আবাসনে এই জোড়া মৃতদেহ মেলায় আলোড়ন পড়ে গিয়েছিল। জোড়া মৃত্যুর কারণ নিয়ে তৈরি হয়েছে রহস্য। তবে মা গোপা রায় এবং মেয়ে সুদেষ্ণা রায়ের সুইসাইড নোট পুলিশ পেয়ে যাওয়ায় এই জোড়া মৃত্যু রহস্যের পর্দাফাঁস হয়ে যায়।

এদিকে এই জোড়া মৃত্যুর ঘটনায় পুলিশ বিধাননগর পুরসভার তিনকর্মী–সহ পাঁচজনকে প্রথমে ‘আটক’ করে। তারপর নানা কথা জিজ্ঞাসাবাদ করতেই অসংলগ্ন তথ্য দিতে শুরু করে তারা। তখন আবার ওই ফ্ল্যাটে যায় পুলিশ। আর সেখানে চিরুণি তল্লাশি শুরু করে। তখন ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ একটি সুইসাইড নোট পায়। সেখানে এই পাঁচজনের নাম লেখা ছিল। মৃত গোপা রায় (৪৬) ও মেয়ে সুদেষ্ণা রায় (২৩) যে ফ্ল্যাটে থাকতেন সেটি দু’বছর আগে ভাড়া নিয়েছিলেন গোপাদেবীর ভাই গৌতম দে। প্রায় ১৪ বছর গোপাদেবী মেয়েকে নিয়ে ভাইয়ের এখানেই থাকতেন। কারণ স্বামীর সঙ্গে তাঁর বিচ্ছেদের মামলা চলছিল।

অন্যদিকে রবিবার গৌতমবাবু তারাপীঠ গিয়েছিলেন। সেখান থেকে বারবার দিদি গোপাকে ফোন করছিলেন বিশেষ প্রয়োজনে। কিন্তু কিছুতেই ফোনে পাচ্ছিলেন না। তখন সন্দেহ হওয়ায় উদ্বেগের সঙ্গে দ্রুত কেষ্টপুরের উদ্দেশ্যে রওনা দেন তিনি। আর সকাল হতেই গৌতমবাবু নিরাপত্তারক্ষীকে ফোন করেন। তাঁর নির্দেশ পেয়ে ওই ফ্ল্যাটে গিয়ে দেখেন পড়ে রয়েছে দু’‌জনের মৃতদেহ। তখনই খবর দেওয়া হয় বাগুইআটি থানায়। ততক্ষণে চলে আসেন গৌতমবাবুও।পুলিশ এসে মা ও মেয়ের মৃতদেহ উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠালে চিকিৎসকরা মৃত বলে ঘোষণা করেন।

পুলিশ কী তথ্য পেয়েছে?‌ পুলিশ সূত্রে খবর, গৌতমবাবু বিধাননগর পুরসভার অস্থায়ী কর্মী। ফ্ল্যাটে যে সুইসাইড নোট পাওয়া গিয়েছে তাতে এক দম্পত্তি ও বিধাননগর পুরসভার তিনজন কর্মীর নাম রয়েছে। তাই ওই পাঁচজনকে প্রথমে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু হয়। পরে গ্রেফতার করা হয়। রবিবার গোপাদেবীর ফ্ল্যাটে কয়েকজন আসে। টাকার বিষয়ে তাঁকে জোর করে একটি কাগজে সই করিয়ে নেওয়া হয়। এই বিষয়ে তদন্ত শুরু হয়েছে। কীটনাশক জাতীয় কিছু খেয়ে আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিক অনুমান। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট এলে তা পরিষ্কার হবে। বিধাননগরের গোয়েন্দা প্রধান বিশ্বজিৎ ঘোষ বলেন, ‘‌আত্মহত্যা বলেই প্রাথমিক অনুমান। ওই পাঁচজনকে জেরা করা হচ্ছে।’‌

ভোটযুদ্ধ খবর
বন্ধ করুন

Latest News

মেষ-বৃষ-মিথুন-কর্কট রাশির কেমন কাটবে মঙ্গলবার? জানুন রাশিফল হাফিজকে সরানো হলে, ওয়াহাব রিয়াজকে কেন নয়? PCB-এর সিদ্ধান্ত নিয়ে বিস্ফোরক ইনজামাম ২০ বছরের দাম্পত্য, নীলাঞ্জনাকে কবে ডিভোর্স দিচ্ছেন? প্রশ্নের জবাবে যিশু যা বললেন মাউথ ফ্রেশনার খেয়েই মুখ থেকে উঠল রক্ত, শুরু বমি! রেস্তোরাঁয় অসুস্থ ৫ জন, কী ছিল? হাওড়া পুর এলাকায় বন্ধ থাকবে জল সরবরাহ, সমস্ত ওয়ার্ডের বিজ্ঞপ্তি, দিনটা জানুন স্মৃতি-পেরির যুগলবন্দির সঙ্গে, বোলারদের মরণপণ লড়াই,UPW-কে ২৩ রানে হারাল RCB পরমের প্রাক্তন ও বর্তমান পরস্পরকে জড়িয়ে! অনুপমের তৃতীয় বিয়ের মাঝে চর্চায় পিয়া ‘আরও ২জন তৈরি, আসন খুঁজছেন,’ আদালতেই বিচারপতি গাঙ্গুলি প্রসঙ্গ টেনে বললেন কল্যাণ এয়ারপোর্টে গিয়েই মোদীর সঙ্গে দেখা করলেন গডকরি, নাম নেই প্রথম প্রার্থী তালিকায় ডেল স্টেইনের বদলি ঘোষণা করল SRH, হায়দরাবাদে যোগ দিলেন ভেত্তোরির এক সময়ের সতীর্থ

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.