বাড়ি > বায়োস্কোপ > সুশান্তের মৃত্যু : আর্থিক তছরুপের মামলায় ৯ ঘন্টার ম্যারাথন জিজ্ঞাসাবাদ রিয়াকে
ইডি দফতর থেকে বেরিয়ে যাচ্ছেন রিয়া  (PTI)
ইডি দফতর থেকে বেরিয়ে যাচ্ছেন রিয়া  (PTI)

সুশান্তের মৃত্যু : আর্থিক তছরুপের মামলায় ৯ ঘন্টার ম্যারাথন জিজ্ঞাসাবাদ রিয়াকে

মুম্বইয়ের খারের ৮৪ লক্ষ সম্পত্তি নাকি হোম লোন নিয়ে কিনেছেন রিয়া। অন্যের টাকায় নয়, ইডিকে জানিয়েছেন অভিনেত্রী। 

শুক্রবার সকালে টালবাহানার পর নির্ধারিত সময়ের প্রায় ১ ঘন্টা পর মুম্বইয়ে ইডির দফতরে হাজির হন সুশান্ত সিং রাজপুত মামলার মূল অভিযুক্ত রিয়া চক্রবর্তী। সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর সঙ্গে জড়িত আর্থিক তছরুপের মামলার তদন্ত করছে এই কেন্দ্রীয় সংস্থা।

সুশান্তের বান্ধবী এদিন সকাল ১১.৫০ নাগাদ বালার্ড এস্টেট এলাকাস্থিত ইডির দফতরে হাজির হন এবং তাঁকে ইডির দফতর থেকে বেরোতে দেখা যায় রাত পৌনে ন'টায়। অর্থাত্ প্রায় একটানা ৯ ঘন্টা ধরে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেটের প্রশ্নের উত্তর দিতে হয়েছে রিয়াকে। রিয়ার পাশাপাশি এদিন জেরার মুখে পড়তে হয় এই মামলার অপর দুই অভিযুক্ত রিয়ার ভাই শৌভিক চক্রবর্তী, এবং অভিনেত্রীর বিজনেস ম্যানেজার শ্রুতি মোদীকে। এছাড়াও জেরা করা হয় রিয়ার চার্টার্ড অ্যাকাউটেন্ট রীতেশ শাহকে।

আর্থিক তছরুপ প্রতিরোধ আইন (PMLA) আওতায় এদিন এই চারজনের বয়ান রেকর্ড করা হয়েছে।

ইডি সূত্রে খবর, রিয়া চক্রবর্তীর ইনকাম ট্যাক্স রিটার্নস, তাঁর বিভিন্ন বিনোয়োগ খতিয়ে দেখছে ইডি। জানা গিয়েছে ইডি কর্তাদের বেশিরভাগ প্রশ্নের উত্তর দিয়েছে রিয়া চক্রবর্তী। রিয়ার আয়, ব্যবসা সংক্রান্ত এবং পেশাদার জগতের লেনদেনের উপর জোর দিচ্ছে কেন্দ্রীয় সংস্থা।

মুম্বইয়ের খার এলাকাস্থিত রিয়ার একটি সম্পত্তিও নজরে রয়েছে ইডির।ইডি সূত্রে খবর, রিয়া জানিয়েছেন ৮৪ লক্ষ টাকার এই সম্পত্তি কিনতে ৬০ লক্ষ টাকার হোম লোন নিয়েছেন তিনি। বাকি ২৪ লক্ষ টাকা কোথা থেকে এল? সেই প্রশ্নের জবাবে রিয়া বলেন, সেটি তিনি জোগাড় করতে পেরেছিলেন এবং চেকের মাধ্যমে সেই টাকা দেওয়া হয়েছে।

সুশান্ত সিং রাজপুত প্রতিষ্ঠিত দুটি সংস্থার ডিরেক্টারের পদেও রয়েছেন রিয়া ও তাঁর ভাই শৌভিক চক্রবর্তী, এবং বাবা ইন্দ্রজিত্ চক্রবর্তী। সুশান্তের আরও দুটি কোম্পানিও রেজিস্ট্রেশন প্রক্রিয়ার মধ্যে রয়েছে। সেই চারটি কোম্পানি সম্পর্কেও তথ্য জানতে চায় ইডি।

রিয়ার আইনজীবী সতীশ মানেসিন্ধে জানিয়েছেন, ‘রিয়াকে জেরা করা হয়েছে এবং তাঁর বয়ান রেকর্ড করা হয়েছে এবং উনি ইডির সঙ্গে তদন্তে পূর্ণ সহযোগিতা করেছেন। উনি কোথাউ আত্মগোপন করে নেই। ওঁনাকে আবার ডাকা হয়েছে,উনি সঠিক সময়েই হাজির হবেন’।

শুক্রবার সকালে নিজের আইনজীবী সতীশ মানেসিন্ধের মাধ্যমে কেন্দ্রীয় সংস্থার কাছে রিয়া আবেদন করেন তাঁকে সময় দেওয়া হোক ইডির জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হওয়ার। যেহেতু এই মামলা সংক্রান্ত পাটনা পুলিশের জুরিসডিকশনের বিষয়টি সুপ্রিম কোর্টে বিচারাধীন। তবে রিয়ার আবেদন সরাসরি খারিজ করে দেয় ইডি। তারপর একপ্রকার বাধ্য হয়েই এদিন ইডির দফতরে হাজির হন রিয়া চক্রবর্তী। 

সুশান্ত সিং রাজপুতের গার্লফ্রেন্ড রিয়ার বিরুদ্ধে ১৫ কোটি টাকা তছরূপের অভিযোগ এনেছে সুশান্তের পরিবার। পাটনা পুলিশে দায়ের করা সুশান্তের বাবা কেকে সিংয়ের সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই গত ৩১ জুলাই এনফোর্টমেন্ট কেস ইনফরমেশন রিপোর্ট বা ইসিআইআর রিপোর্ট দায়ের করা হয়েছে রিয়া চক্রবর্তী ও তাঁর পরিবার এবং ম্যানেজারের বিরুদ্ধে।

এই মামলায় আগেই সুশান্তের চার্টার অ্যাকাউন্টান্ট, সন্দীপ শ্রীধরের বয়ান রেকর্ড করেছে ইডি। যদিও সূত্রের খবর সেই বয়ানে সন্তুষ্ট নন তদন্তকারীরা। শনিবার এই মামলার সঙ্গে জড়িত অপর উল্লেখযোগ্য সাক্ষী, সিদ্ধার্থ পিঠানিকে পড়তে হবে ইডির প্রশ্নের মুখে। গতকালই তাঁকে হাজিরা দেওয়ার জন্য সমন পাঠায় কেন্দ্রীয় সংস্থা। 

বন্ধ করুন