বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > পর্ন ভিডিয়ো শ্যুট করার অভিযোগে গ্রেফতার ‘গন্ধি বাত’ খ্যাত গহনা বশিষ্ঠ
গ্রেফতার গহনা বশিষ্ঠ 
গ্রেফতার গহনা বশিষ্ঠ 

পর্ন ভিডিয়ো শ্যুট করার অভিযোগে গ্রেফতার ‘গন্ধি বাত’ খ্যাত গহনা বশিষ্ঠ

  • আজ আদালতে পেশ করা হবে অভিনেত্রীকে। পর্নোগ্রাফির ব়্যাকেটের সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগ গহনার বিরুদ্ধে। 

রমরমিয়ে চলছিল পর্নোগ্রাফির ব্যবসা। পর্ন ভিডিয়ো শ্যুট করে তা নিজের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ছড়িয়ে দিচ্ছিলেন, এমনই অভিযোগ অভিনেত্রী গহনা বশিষ্ঠের বিরুদ্ধে। মুম্বই ক্রাইম ব্রাঞ্চের হাতে গ্রেফতার হয়েছেন অল্ট বালাজির ‘গন্ধি বাত’ খ্যাত অভিনেত্রী গহনা। আজই মুম্বইের আদালতে পেশ করা হবে অভিযুক্ত নায়িকাকে, জানিয়েছে সংবাদ সংস্থা এএনআই।

মুম্বই ক্রাইম ব্রাঞ্চের প্রপার্টি সেলের হাতে শনিবার  গ্রেফতার হয়েছেন গহনা। মুম্বই পুলিশ সূত্রে খবর, ৮৭-টির বেশি পর্ন ফিল্ম শ্যুটিং করে নিজের ওয়েব সাইটে আপলোড করেছেন গহনা। তদন্তে জানা গিয়েছে অনান্য মডেল, প্রোডাকশন হাউজও গহনার তৈরি এই পর্নোগ্রাফিক ব়্যাকেটের সঙ্গে যুক্ত। মুম্বই ক্রাইম ব্রাঞ্চের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, গহনার ওয়েবসাইটে অ্যাডাল্ট কনটেন্ট দেখতে ২০০০ টাকা সাবস্ক্রিপশন ফি দিতে হয়।  মিস এশিয়া বিকিনি-র তাজ জেতা গহনা বেশ কয়েক বছর ধরেই কাজ করেছেন তামিল ও মুম্বই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে। তবে একতা কাপুরের অল্ট বালাজি (ALT Balaji)-র চর্চিত ওয়েব সিরিজ ‘গন্ধি বাত’-এর সুবাদেই সংবাদ শিরোনামে উঠে এসেছেন গহনা। 

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, তিন জনের কাছ থেকে অভিযোগ পেয়ে এই পর্নোগ্রাফি চক্রের খোঁজ চালাচ্ছিল তাঁরা। জোর করে পর্ন ছবিতে অভিনয় করতে বাধ্য করা হয়েছে, পুলিশের কাছে এমন অভিযোগ জমা পড়েছিল। মালাডের গ্রিন পার্ক বাংলোতে হানা দিয়ে শনিবার পাঁচ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। ইয়াসমিন বেগ খান ওরফে রোওয়া (প্রযোজনা ও পরিচালনা), প্রতিভা নালাওয়াড়ে (গ্রাফিক ডিজাইনার), মনু গোপাল দাস জোশি (অভিনেতা), ভানুসূর্যায়াম ঠাকুর (সহকারী) এবং মহম্মদ আসিফ (ক্যামেরাম্যান)- নামের পাঁচ জনকে গ্রেফতারের পর জেরায় উঠে আসে গহনার নাম। 

ক্রাইম ব্রাঞ্চ প্রপার্টি সেলের সিনিয়র ইনসপেক্টর, কেদারি পাওয়ার জানিয়েছেন- বিজ্ঞাপনের জন্য নতুন মুখ চাই এই আছিলায় বিজ্ঞাপন দিয়ে পর্নোগ্রাফির ফাঁদ পেতেছে একটি চক্র, এমন খবর ছিল পুলিশের হাতে। ছবিতে কাজ পাইয়ে দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে পর্ন ছবিতে অভিনয়ে বাধ্য করত এই গ্যাং। টাকার প্রলোভনেও চুক্তি স্বাক্ষর করিয়ে চাপ দিয়ে অ্যাডাল্ট ছবিতে অভিনয়ে বাধ্য করা হত। এই ব়্যাকেটের হাত থেকে একজন নির্যাতিতাকে উদ্ধার করে রিহ্যাবে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ ব়্যাকেটের সঙ্গে যুক্তদের তিনটি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট সিজ করেছে। পর্ন ছবির সাবস্ক্রিপশন থেকে সংগ্রহীত ৩৬ লক্ষ টাকাও রয়েছে ওই অ্যাকাউন্টগুলিতে। এছাড়াও ছটি মোবাইল ফোন, একটা ক্যামেরা এবং প্রযোজনীয় সরঞ্জাম, ল্যাপটম এবং নগদ ৫.৬৮ টাকা হেফাজতে নিয়েছে মুম্বই পুলিশ।  

ভারতীয় দণ্ডবিধি ও আইটি আইনের উপযুক্ত ধাকায় গ্রেফতার পাঁচজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে, সকলেই ১০ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত পুলিশ কাস্টডিতে পাঠিয়েছে আদালত। 

বন্ধ করুন