বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ভারতীয়রা বাংলায় এলে ‘বহিরাগত’! মমতা-সরকারের ‘হিপোক্রেসি’কে কটাক্ষ ব়্যাচেলের
বরাবরই মোদীর প্রশংসক ব়্যাচেল হোয়াইট
বরাবরই মোদীর প্রশংসক ব়্যাচেল হোয়াইট

ভারতীয়রা বাংলায় এলে ‘বহিরাগত’! মমতা-সরকারের ‘হিপোক্রেসি’কে কটাক্ষ ব়্যাচেলের

  • এবার  ব়্যাচেলের মুখে মোদী-বন্দনা। মমতা সরকারকে একহাত নিলেন ‘মিসম্যাচ’ নায়িকা।

একুশের বিধানসভা নির্বাচনের আগে গেরুয়া শিবিরে দলে দলে যোগ দিয়েছেন টলি তারকারা। মমতা ঘনিষ্ঠ বহু তারকাকেও শিবির বদলাতে দেখা গিয়েছে। বিজেপিতে যোগ দেওয়া মাত্রই কড়া ভাষায় মমতাকে আক্রমণ শানিয়েছেন যশ,শ্রাবন্তী, পায়েলরা। এখনও প্রকাশ্য রাজনীতিতে যোগ না দিলেও বরাবরই সোশ্যাল মিডিয়ায় পদ্ম-স্তুতি শোনা যায় টলিউডের পরিচিত মুূখ ব়্যাচেল হোয়াইটের। মুম্বইয়ে থাকলেও টলিগঞ্জে নিয়মিত কাজ করেন ব়্যাচেল। 

সম্প্রতি ব়্যাচেল টুইটারে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূলের শীর্ষ নেতাদের তোপ দাগলেন, ‘বহিরাগত’ প্রসঙ্গে। তিনি লেখেন, ‘ভারতীয়দের টুরিস্ট বলা হচ্ছে বাংলায় গেলে, সেটা কোনও সমস্যার নয়? কিছু বলুন তাহলে আপনাকে ওঁরা অভিশাপ দেবে, কারণ তুমি গড়গড়িয়ে বাংলা বলতে পার না, অথবা তোমার পদবিটা ঠিক বাঙালিদের মতো নয়। এটা কোন ধরণের ভণ্ডামি। ভারতে বা বিদেশের নানান প্রান্তে কাজের স্বার্থে যে সব বাঙালিরা থাকছেন তাঁদের অবস্থাটা কীভাবে?’

ব়্যাচেল হোয়াইট বরাবরই গেরুয়া শিবির ঘনিষ্ঠ। যশ-শ্রাবন্তী-পায়েলদের হয়েও জোরকদমে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার চালাতে ব্যস্ত। কদিন আগে তৃণমূলের খেলা হবে স্লোগান নিয়েও শাসক দলকে বেঁধেন ব়্যাচেল। বলেন, ‘খেলা নয়, সোনার বাংলা চায় মানুষ'। আর সেই সোনার বাংলা মোদীর নেতৃত্বেই গড় সম্ভব এমনটা বিশ্বাস করেন ‘মিস ম্যাস’ অভিনেত্রী। 

বন্ধ করুন