বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > করবা চৌথ ২০২০: শিল্পাকে নিয়ে মজাদার মিম শেয়ার করেলন স্বামী রাজ কুন্দ্রা
রাজের অবাক কাণ্ড
রাজের অবাক কাণ্ড

করবা চৌথ ২০২০: শিল্পাকে নিয়ে মজাদার মিম শেয়ার করেলন স্বামী রাজ কুন্দ্রা

  • করবা চৌথ, স্বামীর মঙ্গল কামনায় আজ উপবাস ব্রত করেন স্ত্রী। এই সেলিব্রেশনে শামিল বলি তারকারাও। 

বলিউডের কল্যানে করবা চৌথ এখন বহুল প্রচলিত রীতি। দেশের লক্ষ লক্ষ নারীর মতো বলিউড তারকারাও বুধবার করবা চৌথ ব্রত পালন করছেন। প্রস্তুতির ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ফুটে উঠেছে দিনভর। আর আজকের এই বিশেষ দিনে স্ত্রীকে নিয়ে মজাদার মিম শেয়ার করলেন শিল্পা শেট্টির স্বামী রাজ কুন্দ্রা। 

 রাজ কুন্দ্রা এই দিনটিতে স্ত্রীরা আসলে কী ভাবেন তা নিয়ে একটি মজার মিম শেয়ার করেছেন। ছবিতে একদিকে দেখা যাচ্ছে, তাঁর স্ত্রী অভিনেত্রী শিল্পা শেট্টি কুন্দ্রা রাজের মুখের দিকে চালুনি দিয়ে দেখছেন,যেমনটা উপবাস ভাঙার সময় চাঁদের মুখ দেখে মেয়েরা করে থাকেন। ছবির  দ্বিতীয় অংশে দেখা যাচ্ছে, আসলে নারীরা কী দেখতে পান। ক্ষুধার্ত স্ত্রী তাঁর স্বামীর মুখের জায়গায়া আসলে বড়া পাও (Vada Pao) হিসাবেই বোধহয় কল্পনা করেন, ভাবনা রাজের। এই পোস্টে ক্যাপশনে রাজ লিখেছেন, ‘শুভ করবা চৌথ'।

এবছর বলি নায়িকাদের করবা চৌথের জৌলুসে কিন্তু কোনও ভাটা পড়েনি। এদিনও লাল শাড়িতে সেজে অনিল কাপুরের বাড়িতে এই উত্সবে যোগ দিতে পৌঁছান শিল্পা। অনিল কাপুর পত্নী সুনীতা প্রতি বছর এই বিশেষ দিনে মহিলাদের জন্য একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন। 

করবা চৌথের প্রস্তুতি নিয়ে সোশ্যালে ছবি নিজের ইনস্টাগ্রামে স্টোরি করেন, ‘মহেন্দ্র সিং ধোনি’ খ্যাত অভিনেত্রী কিয়ারা আদভানি। ছবিতে দেখা যাচ্ছে মায়ের হাতে মেহেন্দি লাগিয়ে দিচ্ছেন তিনি। সেখানে ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘মায়ের জন্য মেহেন্দি’।

মায়ের হাতে মেহেন্দি লাগাচ্ছেন কিয়ারা
মায়ের হাতে মেহেন্দি লাগাচ্ছেন কিয়ারা

আসলে কী এই ‘করবা চৌথ’?

স্বামীর মঙ্গল কামনায় বিবাহিত নারীরা ব্রত পালনের জন্য উপবাস এবং পুজোপাঠ করেন। এটি হিন্দুদের উৎসব। দিনের শেষে চালুনির মধ্যে দিয়ে স্ত্রীর চাঁদ দেখা। আর তার পরে স্বামীর মুখ দেখে জল খেয়ে ব্রত ভাঙা! স্বামীর মঙ্গল কামনায় বিশেষ উপবাস ব্রত করতেন স্ত্রী। কার্তিক মাসের প্রথম পূর্ণিমার পরে কৃষ্ণপক্ষের চতুর্থী তিথিতে। এখন তো সার্বিকভাবেই বিবাহিত মহিলারা এই ব্রত পালন করেন স্বামীর মঙ্গল কামনায়। কার্তিক মাসের পূর্ণিমার পর চতুর্থ দিন অর্থাৎ চতুর্থীতেই পালিত হয় এই ব্রত। সন্ধ্যায় চাঁদ দেখে উপোস ভঙ্গ করেন বিবাহিত নারীরা। 

বন্ধ করুন