বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Mir Afsar Ali: মুসলিম হয়েও গণেশ চতুর্থীর শুভেচ্ছা! নেটপাড়ায় মীরকে মারমুখি জনতা, জোরদার কটাক্ষ
গণেশ চতুর্থীর শুভেচ্ছা জানিয়ে কটাক্ষের শিকার মীর।
গণেশ চতুর্থীর শুভেচ্ছা জানিয়ে কটাক্ষের শিকার মীর।

Mir Afsar Ali: মুসলিম হয়েও গণেশ চতুর্থীর শুভেচ্ছা! নেটপাড়ায় মীরকে মারমুখি জনতা, জোরদার কটাক্ষ

  • সমালোচনার বাণে বিদ্ধ হলেন মীর। যদিও এসবে তিনি অভ্যস্ত। 

দুর্গাপুজো হোক বা ক্রিসমাস কিংবা খুশির ইদ, সকলকে শুভেচ্ছা জানাতে কখনো ভোলেন না মীর আফসার আলি। বরাবরই নিজের পোস্টে দিয়ে থাকেন সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বার্তা। রেডিও জকি, কৌতূকাভিনেতা মানুষটাকে তাই তো এত পছন্দ করে মানুষ। তাঁর গলার আওয়াজ, লেখা দুটো লাইন নিমেষএ ভাইরাল হয়। কিন্তু তাতেও কমে না কিছু কট্টরবাদীর কটাক্ষ। যারা ধর্মের ভেদভেদকেই গুরুত্ব দিয়ে থাকেন সবচেয়ে বেশি, তাঁদের দ্বারা প্রায়শই ট্রোলড হন মীর। এদিনও তেমনটাই হল। 

গণেশের ছবি পোস্ট করে মীর লিখেছিলেন, ‘শুভ হোক। সুস্থ থাকুন। গণপতি বাপ্পা মোরিয়া…’! ব্যস! আসরে নেমে পড়লেন কিছু মানুষ। একজন মুসলিম হয়ে কীভাবে তিনি হিন্দু উৎসবে সামিল হলেন, সেটা নিয়েই প্রশ্ন উঠতে শুরু করল। এক নেটিজেন লিখলেন, ‘সবচেয়ে বড় পাপ হল শির্ক আল্লাহর সাথে অন্য কাউকে তুলনা করা!আল্লাহ সব পাপ ক্ষমা করলেও শির্কের পাপ কখনো ক্ষমা করবেন না!চিরকাল জাহান্নামে থাকতে হবে (সূরা, নিসা-৪৮)।’ আরেকজনের মত, ‘মীরভাই নিজে মুসলিম হয়ে কীভাবে মূর্তিপুজোকে সমর্থন করলে তুমি’!

অবশ্য ট্রোলিং নিয়ে সেভাবে কখনোই মাথা ঘামান না তিনি। তাই এবারেও কোনও জবাব পেল না নীতি পুলিশরা! প্রতিবারই প্রায় এমন ঘটনা ঘটে থাকে। আবার ইদের শুভেচ্চা জানালেও কেউ কেউ হিসেব কষতে লেগে যান আদৌ কি মীর ‘সাচ্চা মুসলমান’? মীরের বিশেষ বন্ধু ও FOODKA-র মালিক ইন্দ্রজিৎ লাহিড়ি আবার আসরে নেমে পড়লেন মসকরা করতে। লিখলেন, ‘কমেন্ট পড়তে এসেছিলাম, পড়া হয়ে গেছে - এবার বাড়ি যাচ্ছি।’ সেখানেও কমেন্টের বন্যা। অর্থাৎ, গণেশ পুজোর পোস্ট করে আবার ভাইরাল হলেন মীর।

বন্ধ করুন