বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > বাবার সাথে কথা বলে না ছেলে, 'হুনরবাজ' জাদুকরের কষ্টে চোখে জল মিঠুন-পরিণীতির
নয়া রিয়ালিটি শো 'হুনারবাজ’-এ অন্যতম বিচারক হিসেবে দর্শকদের সামনে হাজির হবেন মিঠুন চক্রবর্তী, পরিণীতি চোপড়া।
নয়া রিয়ালিটি শো 'হুনারবাজ’-এ অন্যতম বিচারক হিসেবে দর্শকদের সামনে হাজির হবেন মিঠুন চক্রবর্তী, পরিণীতি চোপড়া।

বাবার সাথে কথা বলে না ছেলে, 'হুনরবাজ' জাদুকরের কষ্টে চোখে জল মিঠুন-পরিণীতির

নয়া রিয়ালিটি শো 'হুনারবাজ’-এ অন্যতম বিচারক হিসেবে দর্শকদের সামনে হাজির হবেন পরিণীতি চোপড়া। সহ-বিচারকের আসনে বসতে দেখা যাবে করণ জোহর এবং মিঠুন চক্রবর্তীকে।

নয়া রিয়ালিটি শো 'হুনারবাজ’-এ অন্যতম বিচারক হিসেবে দর্শকদের সামনে হাজির হবেন পরিণীতি চোপড়া। সহ-বিচারকের আসনে বসতে দেখা যাবে করণ জোহর এবং মিঠুন চক্রবর্তীকে।শো’র সঞ্চালক হিসেবে দর্শকদের সামনে হাজির হবেন ভারতী সিং ও তাঁর স্বামী হর্ষ লিম্বাচিয়া। এবার শো-এর প্রতিযোগী মনোজ জৈন-র ব্যক্তিগত জীবনের হৃদয়বিদারক এক ঘটনা শুনে ঝরঝর করে কেঁদে ফেললেন পরিণীতি এবং ভারতী। আবেগপ্রবণ হয়ে পড়লেন মিঠুনও!

পেশায় জাদুকর মনোজ মঞ্চ থেকে নিজের কারিকুরি দিয়ে ততক্ষণে মুগ্ধ করে ফেলেছেন শো-এর বিচারকদের। সঞ্চালক হর্ষকে তাঁর সম্মোহন কার কায়দা দেখে ততক্ষণে চোখ কপালে উঠেছে মিঠুনের। শেষমেশ আর থাকতে না পেরে সশ্রদ্ধায় দাঁড়িয়ে উঠে মনোজের জন্য হাততালি দেন তিনি। এরপর কথায় কথায় আবেগপ্রবণ হয়ে মনোজ বলে ওঠেন নিজের ছেলেকে ভুল প্রমাণ করার তাগিদেই 'হুনারবাজ' এর মঞ্চে হাজির হয়েছেন তিনি। আরও জানান, তাঁর পেশাকে নীচু নজরে দেখেন তাঁর আত্মীয়রাই। এমনকি সেই তালিকায় রয়েছে নিজের ছেলেও। লজ্জায় সে নাকি মনোজের সঙ্গে কথা বলা বন্ধ করে দিয়েছে। একসঙ্গেও থাকেও না।

শুনে চমকে ওঠেন মিঠুন। মনোজের ছেলের সঙ্গে ফোনে কথা বলার ইচ্ছেপ্রকাশ করতে দেখা যায় তাঁকে। মনোজ ইতস্তত করছেন দেখে তিনি বলেন, 'কী করবে ও ফোন কেটে দেবে কিংবা ভুলভাল কথা বলে অপমান করবে। এই তো? জীবনে এরকম অনেক বেইজ্জত হয়েছি।' এরপর ফোন লাগানো হয় মনোজের ছেলেকে। যদিও ফোন তোলেননি তাঁর ছেলে। দৃশ্যতই আহত হন মিঠুন। আবেগ ভরা গলায় বলেই ফেলেন এইরকম ব্যবহার যদি তাঁর ছেলে তাঁর সঙ্গে করত, দুঃখে হয়তো সেদিনই মারা যেতেন তিনি।'

গোটা ঘটনা দেখে ততক্ষণে চোখে জল ভরে উঠেছে পরিণীতির। আক্ষেপের স্বরে মিঠুনকে আরও বলতে শোনা যায় একজন মা তাঁর গর্ভে র সন্তানকে ৯ মাস পালন করেন। সেখানে একজন বাবা কিন্তু তাঁর সন্তানকে সারাজীবন ধরে দেখভাল, পালন করেন। ইতিমধ্যেই নেটপাড়ায় ভাইরাল হয়েছে সেই ভিডিয়ো।

বন্ধ করুন