বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > অ্যাপের কারসাজিতে না, ছবিতে বেশি ফর্সা অথবা রোগা হতে বিলকুল নারাজ বিদ্যা!
অ্যাপের সাহায্যে ছবিতে রোগা দেখানোয় নারাজ বিদ্যা বলেন। (ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস)
অ্যাপের সাহায্যে ছবিতে রোগা দেখানোয় নারাজ বিদ্যা বলেন। (ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস)

অ্যাপের কারসাজিতে না, ছবিতে বেশি ফর্সা অথবা রোগা হতে বিলকুল নারাজ বিদ্যা!

  • তাঁর ছবিতে ফটোশপের কারিকুরি করা চলবে না। অর্থাৎ অ্যাপের সাহায্যে তাঁকে বেশি ফর্সা কিংবা বেশি স্লিম দেখানো চলবে না। ফটোগ্রাফারদের উদ্দেশে কড়া নির্দেশ বিদ্যা বালনের। 

তাঁর ছবিতে ফটোশপের কারিকুরি করা চলবে না। অর্থাৎ অ্যাপের সাহায্যে তাঁকে বেশি ফর্সা কিংবা বাস্তবের বেশি স্লিম দেখানো চলবে না। এহেন কড়া নির্দেশ ফটোগ্রাফারদের দিয়ে রেখেছেন বিদ্যা বালান। সম্প্রতি, সেলেব-ফটোগ্রাফার ডাব্বু রত্নানি এক সাক্ষাৎকারে জানালেন এ কথা।

নিজে যেমন দেখতে তা নিয়ে ক্যামেরার সামনে দাঁড়াতে কোনওরকম হীনমন্যতা নেই তাঁর। ডাব্বু জানালেন, ' বিদ্যা নিজের শরীরে রং, আকৃতি সব নিয়ে বড্ড কনফিডেন্ট। বলি-নায়িকার একটাই দাবি তাঁকে যেমন দেখতে ঠিক তেমন করেই যেন ম্যাগাজিনের পাতায় পেশ করা হয়। তাঁর ত্বকের রং আরও বেশি ফর্সা করে তুলতে কোনোরকমের 'রি টাচ'-এর প্রয়োজন নেই। এ বিষয়ে ফটোগ্রাফারদের কড়া নির্দেশ দেওয়া রয়েছে তাঁর।'

আসলে একটা দীর্ঘসময় পর্যন্ত শরীরের কাঠামো নিয়ে 'কথা' শুনে এসেছেন বিদ্যা। সে বলিপাড়ার অন্দরেই হোক কিংবা দর্শকদের তরফে। নিজেই জানিয়েছিলেন সেই সময়ে মানসিক যন্ত্রনায় ভুগতেন তিনি।নিজের শরীরকেই প্রায় ঘৃণা করতে শুরু করেছিলেন এই বলি-নায়িকা। শরীরের নানান অভ্যন্তরীণ সমস্যার জন্যই ওজন নিয়ে বারেবারে তাঁকে সমস্যায় পড়তে হয়েছে। ক্রমাগত শুনতে হয়েছে কটাক্ষ। তাই সেই পরিস্থিতি বর্তমানে কাটিয়ে উঠলেও পুরোনো দিনগুলো ভুলে যাননি তিনি। ঠিক সেই কারণেই তিনি বাস্তবে ঠিক যেমন, দর্শকদের সামনে ছবিতেও ঠিক ওই একইরকমভাবে হাজির হতে চান বিদ্যা। সামান্যতম বেশি মেকি সৌন্দর্য্য তাঁর প্রয়োজন নেই। 'একটা সময়ের পর নিজেকে আরও একটু বেশি ভালোবাসতে শুরু করলাম। আমি ঠিক যেরকম, সেরকমভাবেই নিজেকে গ্রহণ করলাম। তখন দেখলাম চারপাশের পরিস্থিতিটাও একটু একটু করে পাল্টাচ্ছে!', এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন 'শেরনি'।

বন্ধ করুন