বাড়ি > বায়োস্কোপ > 'মাইনাস থেকে শুরু করেছি,২০ বছর পর কেউ বলবে আমি প্রিভিলেজড! একটা চড়': স্বস্তিকা
প্রয়াত পিতা সন্তু মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
প্রয়াত পিতা সন্তু মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায় (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

'মাইনাস থেকে শুরু করেছি,২০ বছর পর কেউ বলবে আমি প্রিভিলেজড! একটা চড়': স্বস্তিকা

স্টারকিডদের ছবি হলে গিয়ে কারা হিট করাচ্ছে? ওয়ার হিট আর সুশান্ত সিংয়ের রাবতা ফ্লপ কেন? আম জনতাকে প্রশ্ন স্বস্তিকার।

সুশান্ত সিং রাজপুতের আত্মহত্যার পর থেকেই নতুন করে স্বজনপোষণ বিতর্ক মাথাচাড়া দিয়েছে। রোষের মুখে পড়ছেন তারকা সন্তানরা। ইনসাইডার-আউটসাইড, এই বিতর্ক নিয়ে এবার মুখ খুললেন স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়।হিন্দুস্তান টাইমস বাংলাকে দেওয়া এক্সক্লুসিভ সাক্ষাত্কারে এই নোপোটিজম ইস্যু নিয়ে স্বভাবসিদ্ধ সাহসী ভঙ্গিতে জবাব দিলেন স্বস্তিকা। 

স্টারকিডদের নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় যে আক্রোশ সেই নিয়েও বিস্ফোরক স্বস্তিকা। আম জনতাকেও কাঠগড়ায় দাঁড় করালেন অভিনেত্রী। তাঁর প্রশ্ন ‘স্টারকিডদের খারাপ ছবি হলে গিয়ে দেখে সেই ছবিগুলো আপনারা হিট করাচ্ছেন কেন’? চাঁচাছোলা ভাষায় স্বস্তিকা বলেন, ‘ওয়ার কি করে হিট হল আর সুশান্ত সিং রাজপুতের রাবতা ফ্লপ করল! ব্যোমকেশ বক্সীতে তো আমি সুশান্তের সঙ্গে কাজ করেছি-এটা আমাদের দুজনেরই ছবি, দিবাকরের ছবি যশ রাজের ছবি।  তাহলে বলুন কী করে ব্যোমকেশ বক্সী ফ্লপ হল কিন্তু ধোনি হিট হল? অথচ সমালোচকরা ব্যোমকেশের প্রশংসা করেছিল। এখন বলছেন ছোট শহরের একটা ছেলে এসে চেষ্টা করছিল… দর্শক হিসাবে আপনাদের কোনও দায়িত্ব নেই। আপনারা মনে রাখেননি কেন ছোট শহরের একটা ছেলে টিভি থেকে উঠে বলিউডে জায়গা তৈরির চেষ্টা করছে-তাহলে কেন টিকিট কেটে হলে যাননি সুশান্তের ছবি দেখতে? আমরা যাব না ছবি দেখতে-তারপর ইন্ডাস্ট্রির লোকজন কাজ দেবে না তখন আপনারা আঙুল তুলবেন ইন্ডাস্ট্রির দিকে। এটা তো পুরোটাই একটা চক্র…স্টারকিডদের নিয়ে আপত্তি থাকলে যাবেন না তাঁদের ছবি দেখতে। স্টুডেন্ট অফ দ্য ইয়ার, ওয়ার কী করে হিট হল? ধর্মা আর যশরাজ কি এই ছবিগুলোর সব টিকিট নিজেরা কেটে লক্ষ লক্ষ মানুষকে হলে টেনে এনেছিল? নিজের ঘাড় থেকে দায় অন্যের ঘাড়ে চাপাতে পারলে আর কিছু চাই না! কিন্তু মানুষ এখন এতটাই রেগে আছে যে এই কথা গুলো তাঁরা শুনতে চাইবেন না, উল্টে আমাকে বলবে আপনি তো অমুকের মেয়ে'।

দেখতে দেখতে টলিগঞ্জে দু দশক পার করে ফেলেছেন অভিনেত্রী। সন্তু মুখোপাধ্যায়ের কন্যা স্বস্তিকা, সেই অর্থে তিনি ইন্ডাস্ট্রির ভিতরের লোক তিনি। তবে প্রত্যেক মানুষের একটা নিজস্ব স্ট্রাগল ও জার্নি থাকে বিশ্বাস স্বস্তিকার।

সন্তু মুখোপাধ্যায়ের মেয়ে হওয়ার সুবাদে কী সত্যি টলিগঞ্জে কোনও সুবিধা পেয়েছিলেন স্বস্তিকা?  অভিনেত্রীর সাফ জবাব, 'আমার বাবার মেয়ে হয়েও আমি যে স্ট্রাগলটা করেছি সেটা একমাত্র আমিই জানি। আমিও টেলিভিশনে চার বছর কাজ করেছি।আমি চারটে মেগা সিরিয়াল করেছি, চল্লিশটা টেলিফিল্ম করেছি-সেটা দেখে আমাকে কেউ ছবি অফার করেছে। আমার কেরিয়ারের প্রথম চারটে কমার্শিয়্যাল ছবিতে আমি সেকেন্ড লিড হিসাবে কাজ করেছি। আমিও সেইভাবেই শুরু করে আজ নিজের চেষ্টায় এই জায়গাটা পেয়েছি। তাহলে আমি প্রিভিলেজড কোথায়? তাহলে তো ক্লাস টুয়েলভের পরেই বাবা আমাকে একটা সিনেমাতে সুযোগ করে দিত। আমি মাইনাস থেকে শুরু করলাম আর কুড়ি বছর পর আমাকে কেউ বলবে আমি প্রিভিলেজড-একটা চড়'।  

এরপর চটজলদি নায়িকা বলে উঠলেন-'আমি কিন্তু হিংসাত্মক নই-এটা নিয়ে আবার নতুন বিতর্ক না শুরু হয়ে যায়!'

বন্ধ করুন