বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > মাস্ক থাকলেও তাতে আসছে না অক্সিজেন, ভিডিয়ো শেয়ার করে বিচার চাইলেন রাহুলের স্ত্রী
রাহুলের মৃত্যুর বিচার চাইলেন জ্যোতি। 
রাহুলের মৃত্যুর বিচার চাইলেন জ্যোতি। 

মাস্ক থাকলেও তাতে আসছে না অক্সিজেন, ভিডিয়ো শেয়ার করে বিচার চাইলেন রাহুলের স্ত্রী

  • হাসপাতালের গাফিলতিতেই মৃত্যু হয়েছে স্বামী রাহুল বোহরার। সোশ্যাল মিডিয়ায় রাহুলের শেষ সময়ের ভিডিয়ো পেস্ট করে বিচার চাইলেন জ্যোতি তিওয়ারি। 

রবিবারই প্রয়াত হয়েছেন ডিজিট্যাল প্ল্যাটফর্মের অতি পরিচিত মুখ ও অভিনেতা রাহুল বোহরা। মৃত্যুর কিছু ঘণ্টা আগেও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে রাহুল জানিয়েছিলেন, ‘ভালো চিকিৎসা হলে আমি বেঁচে যেতাম’। রবিবার রাহুলের মৃত্যুর খবরটি নিশ্চিত করেন নাট্য পরিচালক অরবিন্দ গৌর। রাহুলের মৃত্যুতে ফের প্রশ্নের মুখে পড়ল সমগ্র দেশের স্বাস্থ্য পরিকাঠামো।

সোমবার স্বাস্থ্য ব্যবস্থা ও দিল্লির একটি হাসপাতালকে কাঠগড়ায় তুলে স্বামীর মৃত্যুর বিচার চেয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিয়ো শেয়ার করেছেন প্রয়াত রাহুল বোহরার স্ত্রী জ্যোতি তিওয়ারি। ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে মুখ থেকে একটি অক্সিজেন মাস্ক খুলে রাহুল বলছেন, ‘এই সময় সবথেকে জরুরি এটি। এটা ছাড়া রোগী ছটফট করতে থাকে। কিন্তু আমার এটাটে কিচ্ছু আসছে না।’ ভিডিয়োতে রাহুল জানিয়েছেন, তাঁর মুখে লাগানো অক্সিজেন মাস্কটি দিয়ে অক্সিজেন আসছে না। অ্যাটেনডেন্টকে তা জানালে সে বারবার দেখছি বলে চলে যাচ্ছে, আর আসছে না।

মর্মকাতর সেই ভিডিয়োটি শেয়ার করে জ্যোতি লিখেছেন, ‘Justice for every Rahu… সবাই জানে আমার রাহুল চলে গিয়েছে। কিন্তু কেউ জানে না, সে কীভাবে চলে গিয়েছে। এটা রাজীব গান্ধী সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল, তাহিরপুর দিল্লি।সেখানে এইভাবে চিকিৎসা করা হয়। আশা করি আমার স্বামী ন্যায় বিচার পাবে। আরও একজন রাহুলকে যেন পৃথিবী ছেড়ে না চলে যেতে হয়!’ 

নিজের ইনস্টা স্টোরিতে রাহুল বোহরার সঙ্গে ছবি শেয়ার করে জ্যোতি তিওয়ারি লিখেছেন, আমাকে এভাবে একা করে দিয়ে চলে গেলে। তোমাকে শেষ বিদায়টাও ঠিকভাবে জানাতে পারলাম না।

জ্যোতির ইনস্টা স্টোরি। 
জ্যোতির ইনস্টা স্টোরি। 

অক্সিজেনের অভাবে যে তাঁর সময় শেষ হয়ে আসছেন, বুঝতে পেরেছিলেন রাহুল। যেখানে ভর্তি ছিলেন, সেখানে পর্যাপ্ত চিকিৎসা হচ্ছিল না। তাই শনিবার সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁকে ভালো কোনও হাসপাতালে চিকিৎসার ব্যবস্থা করে দেওয়ার আর্তি জানান সকলেকে। রাহুল তাঁর শেষ ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, ‘আমি যদি ভালো চিকিৎসা পেতাম তাহলে আমিও বেঁচে যেতাম, তোমাদের রাহুল বোহরা। শীঘ্রই আবার জন্ম নেব এবং ভালো কাজ করব। তবে এবার আমি আমার সমস্ত ক্ষমতা হারিয়ে ফেলেছি।’

বন্ধ করুন