বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > মুগ্ধ প্রেমিকের ঢঙেই মীরার রূপের প্রশংসায় ভাসলেন শাহিদ কাপুর!
শাহিদ-মীরা (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
শাহিদ-মীরা (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

মুগ্ধ প্রেমিকের ঢঙেই মীরার রূপের প্রশংসায় ভাসলেন শাহিদ কাপুর!

  • চুলের যত্ন নেওয়ার উপদেশ দিলেন মীরা, শাহিদের পালটা প্রশ্ন ‘তুমি কেন এত সুন্দরী’? 

একসঙ্গে পথচলার পাঁচ বছর ইতিমধ্যেই পার করে ফেলেছেন শাহিদ-মীরা। ২০১৫ সালের ৭ই জুলাই সংসার পেতেছিলেন এই জুটি। ভালোবাসা থাকলে বয়স দাম্পত্য সম্পর্কের মাঝে বাধা হয়ে দাঁড়ায় না প্রমাণ করে দিয়েছেন মিশা ও জৈনের মা-বাবা।

সম্প্রতি ইনস্টা হ্যান্ডলে নিজের চুলের পরিচর্যার রুটিন শেয়ার করলেন শাহিদ পত্নী মীরা রাজপুত। অনুরাগীদের উদ্দেশ্যে মীরা জানালেন কিভাবে একসময় প্রায় নষ্ট হতে বসা নিজের চুলের পরিচর্যা করে আবারও সুস্থ ও সুন্দর অবস্থা ফিরিয়ে এনেছেন তিনি।তাৎপর্যপূর্ণভাবে ইতিমধ্যেই তুমুল প্রশংসিত সেই ভিডিওতে কমেন্ট করা থেকে পিছপা হননি শাহিদ। স্ত্রীর সৌন্দর্যের রহস্য জানতে চেয়ে প্রেমিকের ঢঙেই প্রশ্ন ছুড়ে দেন অভিনেতা। শাসার মনে প্রশ্ন ‘তুমি কেন এত সুন্দরী?'

ভিডিওর শুরুতেই মীরা জানিয়েছেন মুম্বই আসার আগে কিভাবে চুলের জট পাকিয়ে যাওয়ার সমস্যায় ভুগতেন মীরা। রীতিমতো রাতে দুঃস্বপ্ন দেখতেন। এমনকি নিজের চুল নিয়ে রীতিমতো বিরক্ত শাহিদ পত্নী এককালে নিয়মিত স্ট্রেটনিং করতেন বন্ধুদের টিটকিরি এড়াতে। কিন্তু এর ফলে তাঁর চুলের বারোটা বেজে গিয়েছিল।

পরবর্তীকালে তিনি যখন অন্তঃসত্ত্বা হন,তখন পরিস্থিতির পরিবর্তন ঘটে। জানান ‘যখন কন্যা মিশা এসেছিল, অদ্ভুতভাবে প্রেগন্যান্সির সময় আমার একটুও হেয়ার ফল হয়নি। রীতিমতো পনিটেল করতে পারতাম। মনে হতো যেন স্বর্গে বিরাজ করছি’। কিন্তু জৈন জন্মের আগে পরিস্থিতি ফের পালটে যায়। রীতিমতো চুল পড়ে যাওয়ার সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। চুল উঠে গিয়ে মাথার বেশ কিছু জায়গায় ফাঁকা হয়ে গিয়েছিল বলেও দাবি করেন শাহিদ পত্নী। মীরা জানান জৈনের জন্মের পর প্রায় দেড় বছর চুল পড়ার সমস্যায় ভুগেছেন তিনি। তারপর বাধ্য হয়ে নিজের ডায়েট চার্টে পরিবর্তন আনেন তিনি। এছাড়া নিয়মিত তেল মাখিয়ে চুলের পরিচর্যা করতে শুরু করেন। এরপরেই অবস্থার পরিবর্তন হয় , এবং পরিশেষে আজ তাঁর চুল বর্তমান রূপে ফিরতে পেরেছে , জানিয়েছেন মীরা।

বন্ধ করুন