বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘সঙ্গীত জগতের এক অপূরণীয় ক্ষতি’, নির্মলা মিশ্রের প্রয়াণে শোকবার্তা মুখ্যমন্ত্রীর
শিল্পী নির্মলা মিশ্র প্রয়াত, শোকস্তব্ধ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

‘সঙ্গীত জগতের এক অপূরণীয় ক্ষতি’, নির্মলা মিশ্রের প্রয়াণে শোকবার্তা মুখ্যমন্ত্রীর

  • সঙ্গীতশিল্পী নির্মলা মিশ্রের প্রয়াণে বিবৃতি প্রকাশ করে শোকবার্তা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

প্রয়াত সঙ্গীতশিল্পী নির্মলা মিশ্র। শনিবার রাতে চেতলায় নিজের বাসভবনেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮১ বছর।

বিশিষ্ট সঙ্গীতশিল্পী নির্মলা মিশ্রের প্রয়াণে শোকজ্ঞাপন করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এক বিবৃতিতে লিখেছেন, ‘দীর্ঘ কয়েক দশক ধরে কণ্ঠের জাদুতে তিনি শ্রোতাদের মুগ্ধ করে রেখেছিলেন। তাঁর গাওয়া এই বাংলার মাটিতে, এমন একটি ঝিনুক খুঁজে পেলাম না, ও তোতা পাখি রে-র মতো অজস্র কালজয়ী গান আজও শ্রোতাদের স্মৃতিতে উজ্জ্বল হয়ে আছে। আধুনিক, নজরুলগীতি, শ্যামাসঙ্গীত, দেশাত্মবোধক, লোকগীতি ছাড়াও বহু ছায়াছবিতে তিনি গান গেয়েছেন।' 

'তিনি পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সঙ্গীত আকাদেমির উপদেষ্টা পরিষদ ও বাংলা সঙ্গীতমেলা কমিটির কার্যকরী সমিতির সদস্যা ছিলেন। পশ্চিমবঙ্গ সরকার তাঁকে ২০১২ সালে 'সঙ্গীতসম্মান' এবং ২০১৩ সালে 'সঙ্গীত মহাসম্মান' ও 'বঙ্গবিভূষণ' সম্মাননা প্রদান করে। নির্মলা মিশ্রের সঙ্গে আমার দীর্ঘদিনের নিবিড় সম্পর্ক ছিল। তাঁর প্রয়াণে সঙ্গীত জগতের এক অপূরণীয় ক্ষতি হল। আমি নির্মলা মিশ্রের পরিবার-পরিজন ও অনুরাগীদের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানাচ্ছি।’

শনিবার রাত ১২টা ৫ মিনিটে (রবিবার) মৃত্যু হয় নির্মলা মিশ্রের, এমনটাই জানিয়েছেন তাঁর পারিবারিক চিকিৎসক কৌশিক চক্রবর্তী। গত কয়েকদিন ধরেই তিনি অসুস্থ ছিলেন। সাম্প্রতিক অতীতে একাধিকবার অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিল সঙ্গীতশিল্পী। তবে শেষের দিকে তিনি আর হাসপাতালে থাকতে চাইতেন না। তাই বাড়িতেই চলত তাঁর চিকিৎসা। পরিবারে রয়েছেন সঙ্গীতশিল্পীর স্বামী, পুত্র এবং পুত্রবধূ।

বন্ধ করুন