বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Aay Tobe Sohochori: বাবার অবৈধ প্রেম জেনে সহচরীর পাশে টিপু, মা-ছেলেকে কাছাকাছি এনে বাহবা পেল বরফি
সহচরীর গল্পে বড় টুইস্ট। 

Aay Tobe Sohochori: বাবার অবৈধ প্রেম জেনে সহচরীর পাশে টিপু, মা-ছেলেকে কাছাকাছি এনে বাহবা পেল বরফি

  • বড় টুইস্ট এসেছে গল্পে! দর্শকদের মন কাড়ছে সহচরী আর বরফির রসায়ন।

‘আয় তবে সহচরী’ ধারাবাহিকে এসেছে বড় টুইস্ট। সমরেশ সেনগুপ্ত অর্থাৎ সহচরীর বরের অবৈধ সম্পর্কের গোপন কথা ফাঁস হয়ে যায় ছেলে টিপু-র কাছে! আর তাতেই যেন বদলে যায় সবটা! যেই বাবাকে এতদিন নিজের আইডল ভাবত টিপু, তাঁর ব্যাপারে অপ্রিয় সত্য জানতে পেরে হতবাক হয়ে যায় সে!

এখন দেখা যাচ্ছে, টিপু ধীরে ধীরে বুঝতে পারছে তাঁর মায়ের দিকটা। কাছে আসছে সহচরীর। আর মা-ছেলেকে এইভাবে কাছাকাছি আনার পুরো ক্রেডিটটাই দর্শক দিয়েছে বরফিকে। খুব সাবাশি হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। 

এমনিতেই দর্শকদের খুব পছন্দের ধারাবাহিক ‘আয় তবে সহচরী’। বরফি আর সহচরীর ইক্যুয়েশন মনে ধরেছে সকলের! অসময়বয়সী বন্ধুত্ব, শাশুড়ি-বউমার ইকুয়েশন একে অন্য ধারাবাহিকের থেকে আলাদা করে রেখেছে।

সহপাঠী সহচরীর লেখাপড়া যেন বন্ধ না হয়, শ্বশুরবাড়িতে যেন সঠিক মর্যাদা পায় তা নিশ্চিত করতেই টিপুকে বিয়ে করে বরফি। তারপর শ্বশুরবাড়িতে আসার পর থেকেই সে পাশে পাশে আছে সহচরীর। এমনকী, শ্বশুরের কলেজের ছাত্রীর সাথে প্রেমের কথাও জেনে যায় সে। সামলায় সহচরীকে। 

টিপু এদিকে বাবার আর দেবিনার সম্পর্কের কথা জানতে পেরে ঠিক করে যে সে আর কোনদিন বাবার মুখ দেখবে না! বরফি যখন তাঁকে প্রশ্ন করে, ‘আপনি বলবেন না আপনার বাবাকে দেবিবনাকে বাড়ি থেকে বের করে দিতে?’, টিপু জানায়, ‘যে মানুষটাকে আমি দেবতুল্য ভাবতাম তার সাথে এরকম চিপ টপিকে কথা বলতে পারব না। এর চেয়ে ভালো আমি সারাজীবন আর বাবার মুখই দেখব না।’

বন্ধ করুন