বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > 'ইন্ডিয়ান আইডল'-এর অডিশনে অনু মালিকের সঙ্গে তর্কে জড়িয়েছিলেন 'রোডিজ'-এর রঘু
'ইন্ডিয়ান আইডল'- এর অডিশনে অনু মালিক এবং রঘু রাম। ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস
'ইন্ডিয়ান আইডল'- এর অডিশনে অনু মালিক এবং রঘু রাম। ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস

'ইন্ডিয়ান আইডল'-এর অডিশনে অনু মালিকের সঙ্গে তর্কে জড়িয়েছিলেন 'রোডিজ'-এর রঘু

'রোডিজ' শো খ্যাত রঘু রাম একবার অডিশন দিতে এসেছিলেন 'ইন্ডিয়ান আইডল'-এ। অডিশন চলাকালীন জোর বাক-বিতন্ডায় জড়িয়েছিলেন শোয়ের তৎকালীন দুই বিচারক অনু মালিক এবং ফারহা খান-এর সঙ্গে।

রঘু রাম নামটি উচ্চারণ হলে একইসঙ্গে দর্শকদের মাথায় ভেসে ওঠে ছোটপর্দার জনপ্রিয় রিয়েলিটি শো 'রোডিজ'-এর নামও। আসলে ওই অ্যাডভেঞ্চার রিয়েলিটি শোয়ের নামের সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে রয়েছে রঘুর নাম। ওই শো যে ছিল তাঁরই মস্তিষ্কপ্রসূত। পাশাপাশি শোয়ের 'পরিচালক' থেকে শুরু করে অন্যতম বিচারকও ছিলেন তিনি। করা মেজাজের সঙ্গে রঘুর 'মিষ্টি-মধুর' বাক্যবাণে এফোঁড় ওফোঁড় হয়ে যেতেন শোয়ের প্রতিযোগীরা। এককথায় ওই শোয়ের অডিশনে আসা কিংবা অংশগ্রহণকারীদের প্রতিযোগীদের কাছে রঘু ছিলেন সাক্ষাৎ 'ভয়'! আর এইসব মিলিয়েই রঘু রামের জনপ্রিয় ছিল তুঙ্গে। 'রোডিজ' ছাড়ার পরেও রঘুর জনপ্রিয়তা আজও টাল খায়নি এতটুকুও।

তবে জানেন কি, এই রঘু-ই একবার অডিশন দিতে এসেছিলেন 'ইন্ডিয়ান আইডল'-এ। আর রঘু যেখানে উপস্থিত,সেখানকার পরিস্থিতি 'ঠান্ডা' থাকেই বা কীভাবে। সেবারেও এর অন্যথা হয়নি। রঘুর সঙ্গে জোর বাক-বিতন্ডায় জড়িয়েছিলেন শোয়ের তৎকালীন দুই বিচারক অনু মালিক এবং ফারহা খান। রঘুর গলায় সুর নেই বলে তাঁকে কটাক্ষ করে শোয়ে 'সিলেক্ট' করেননি অনু এবং ফারহা। পাল্টা রঘুও বলেছিলেন অনুর 'অভদ্র' বাচনভঙ্গি তাঁর একটুও ভালো লাগেনি! শুরু হয় কথা কাটাকাটি। সম্প্রতি, সেই ভিডিও ভাইরাল হয়েছে ইউটিউবে।

সেই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে 'ইন্ডিয়ান আইডল'-এর প্রথম সিজনে হাজির হয়েছেন রঘু। গান গাওয়ার আগে স্ট্রেচিংও করলেন খানিকক্ষণ। কারণ হিসেবে বলেছিলেন গান গাওয়ার আগে 'এসব' তিনি করে থাকেন। বহুদিনের অভ্যাস। পাশাপাশি 'স্ট্রেচিং'-এর ফলে গান গাইতেও সুবিধে হয় তাঁর। এসব কথা শুনে ততক্ষণে এ ওঁর দিকে তাকাতে শুরু করছেন শোয়ের বিচারককরা। রঘুর এহেন 'কান্ড' দেখে বিরক্ত হয়ে ফারহা বলে ওঠেন অডিশনের দু'মিনিটের সময়সীমার তিরিশ সেকেন্ড এখানেই খরচ করে ফেলেছেন 'প্রতিযোগী' .এরপরঅবশ্য দেরি করেননি রঘু। গান গাওয়া শুরু করেন। তবে মাঝপথেই তাঁকে থামিয়ে দিয়ে কড়া ভাষায় অনু বলে ওঠেন রঘুর সুর-তালের জ্ঞান নেই। গানটা ঠিক আসে না তাঁর। সুতরাং এখনই যেন বিদায় নেন তিনি। পাশাপাশি কটাক্ষ করতেও ছাড়েননি ফারহা। 'স্ট্রেচিং' নিয়ে মন্তব্যও করেন না। ওদিকে চুপ করে থাকেননি রঘুও। একহাত নেন অনুকে। 'ভদ্রভাবে' অনুকে কথা বলার নির্দেশ দেন তিনি। ছেড়ে কথা বলেননি ফারহাকেও। ফারহার উদ্দেশে কড়া গলায় রঘু বলেছিলেন,'এটা আমার শারীরিক অসুবিধে।এ ব্যাপারে কোনও মন্তব্য না করলেই ভালো হয়!' শেষপর্যন্ত অডিশনের মঞ্চ ছেড়ে বাইরে বেরিয়েও শোয়ের সঞ্চালিকা মিনি মাথুরের কাছে বিচারকদের বিষয়ে নিজের অসন্তোষ প্রকাশ করেছিলেন তিনি।

তবে পরবর্তী সময়ে 'রোডিজ' এর থিম সংও গাইতে দেখা গেছিল রঘুকে। সেই সময়ে বেশ প্রশংসিত হয়েছিল তাঁর গাওয়া গান। এমনকি ফারহা খান পরিচালিত 'তিস মার খান'-এও অভিনয় করেছিলেন তিনি। এই ঘটনা প্রসঙ্গে নিজের আত্মজীবনী 'রেয়ারভিউ: মাই রোডিজ জার্নি'-তে রঘু জানিয়েছিলেন এই গোটা বিষয়টি স্রেফ একটি 'প্র্যাঙ্ক' ছিল! ফারহা খান কিংবা অনু মালিকের বিরুদ্ধে কোনওরকম বিদ্বেষ মনোভাব নেই তাঁর।

 

বন্ধ করুন