বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'ফেসিয়াল রেকগনিশন' বন্ধ করছে ফেসবুক, মুছে ফেলা হবে ১০০ কোটি মানুষের 'মুখ'
ফেসবুক, প্রতীকী ছবি : রয়টার্স (REUTERS)
ফেসবুক, প্রতীকী ছবি : রয়টার্স (REUTERS)

'ফেসিয়াল রেকগনিশন' বন্ধ করছে ফেসবুক, মুছে ফেলা হবে ১০০ কোটি মানুষের 'মুখ'

  • ফেসিয়াল রেকগনিশনের বৈশিষ্ট্যটি প্রথমবার ২০১০ সালের ডিসেম্বরে চালু করেছিল ফেসবুক। 

ফেসবুক নিজেদের ফেসিয়াল রেকগনিশন সিস্টেম বন্ধ করে দিচ্ছে। সংস্থাটি এই বিষয়ে মঙ্গলবার বলে, এই পরিবর্তনটি এক বিলিয়ন ব্যবহারকারীকে প্রভাবিত করবে। গোপনীয়তা রক্ষার বিষয়ে গুরুতর উদ্বেগ প্রকাশের পর এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

এই বিষয়ে বিবৃতি প্রকাশ করে সংস্থার তরফে বলা হয়, 'ফেসবুকের দৈনিক সক্রিয় ব্যবহারকারীদের এক তৃতীয়াংশেরও বেশি আমাদের ফেস রেকগনিশন সেটিং বেছে নিয়েছে এবং স্বীকৃত হতে সক্ষম হয়েছে। এই ব্যবস্থাটির অপসারণের জেরে এক বিলিয়নেরও বেশি মানুষের স্বতন্ত্র মুখের চিহ্নিতকরণের টেমপ্লেট মুছে ফেলা হবে।' মেটা-র আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স বিভাগের ভাইস প্রেসিডেন্ট জেরোম পেসেন্টি বলেন, 'এই পরিবর্তনটি প্রযুক্তির ইতিহাসে মুখের শনাক্তকরণ ব্যবহারের সবচেয়ে বড় পরিবর্তনগুলির একটি।'

উল্লেখ্য, ফেসিয়াল রেকগনিশনের বৈশিষ্ট্যটি প্রথমবার ২০১০ সালের ডিসেম্বরে চালু করা হয়েছিল। ফেসবুকে আপলোড করা ছবিতে লোকেদের জন্য ট্যাগের পরামর্শ দেওয়া হচ্ছিল এই সিস্টেমের মাধ্যমে। সংশ্লিষ্ট ছবিটি আপনি আপলোড না করে থাকলেও ফেসিয়াল রেকগনিশনের মাধ্যমে ট্যাগের পরামর্শ পেতেন আপনি। ২০১৯ সালে ফেসবুক ফেসিয়াল রেকগনিশন ফিচারটি অপ্ট-ইন করেছিল। এদিকে এই বছরের শুরুর দিকে, ফেসবুক মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইলিনয় রাজ্যে বায়োমেট্রিক গোপনীয়তা আইন লঙ্ঘনের জন্য মোটা অঙ্কের জরিমানা দেয়। শনাক্তকরণ অ্যালগরিদমের জেরে এই আইন লঙ্ঘিত হয় বলে অভিযোগ ওঠে। যার জেরে ৬৫০ মিলিয়ন ডলার দিয়ে মামলার নিষ্পত্তি করতে হয়েছিল সংস্থাকে।

বন্ধ করুন