বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বিপুল টাকা বকেয়া, রাজ্য চলবে কীভাবে? মোদীর কাছে ‘বঞ্চনা’র হিসেব পেশ মমতার
:নিউ দিল্লিতে মমতা-মোদী বৈঠক (ANI/PMO Twitter) (PMO Twitter)

বিপুল টাকা বকেয়া, রাজ্য চলবে কীভাবে? মোদীর কাছে ‘বঞ্চনা’র হিসেব পেশ মমতার

  • পাওনার বিশাল ফিরিস্তি তিনি প্রধানমন্ত্রীর কাছে জমা দেন। ১০০ দিনের কাজের প্রকল্প, প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা, প্রধানমন্ত্রী গ্রামীণ সড়ক যোজনার টাকাও বকেয়া রয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে চিঠিতে।

বাংলার প্রাপ্য বকেয়া টাকা মিটিয়ে দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাছে জানিয়ে এলেন মুখ্য়মন্ত্রী মমতা বন্দ্য়োপাধ্যায়। একেবারে প্রতিটি প্রকল্পে কোন খাতে কত টাকা বাংলার বকেয়া রয়েছে সেকথা লিখিতভাবে তুলে দেন প্রধানমন্ত্রীর হাতে। সামনে পঞ্চায়েত নির্বাচন। তার আগে কেন্দ্রীয় বঞ্চনা নিয়ে লিখিতভাবে প্রধানমন্ত্রীর কাছে জানিয়ে দিলেন মমতা। 

প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি দিয়ে বাংলার মুখ্য়মন্ত্রী জানিয়েছেন ১ লক্ষ ৯৬৮ কোটি টাকা বকেয়া রয়েছে কেন্দ্রের কাছে। এই বিপুল টাকা বকেয়া থাকার জেরে রাজ্যের পক্ষে কাজ করা সমস্যা হয়ে যাচ্ছে। কোভিড সামলানো, ইয়াস, আমফানের মতো প্রাকৃতিক দুর্যোগের পরেও কেন্দ্রের ফান্ড পাওয়া যায়নি। এর জেরে রাজ্য ভয়াবহ সংকটের মধ্যে পড়েছে। জনগণের স্বার্থে এই টাকা দ্রুত মিটিয়ে দেওয়ার জন্য তিনি প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন করেন।

পাওনার বিশাল ফিরিস্তি তিনি প্রধানমন্ত্রীর কাছে জমা দেন। ১০০ দিনের কাজের প্রকল্প, প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা, প্রধানমন্ত্রী গ্রামীণ সড়ক যোজনার টাকাও বকেয়া রয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে চিঠিতে।

মমতা চিঠিতে জানিয়েছেন, MGNREGA প্রকল্পে রাজ্য কেন্দ্রীয় সরকারের কাছ থেকে ৬৫৬১.৫৬ কোটি টাকা পায়। প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় ৯৩২৯.৭৬ কোটি টাকা, প্রধানমন্ত্রী গ্রামীণ সড়ক যোজনায় ২১০৫.০০ কোটি টাকা, সমগ্র শিক্ষা যোজনায় ১৫,৮৬৪.৮৪ কোটি টাকা, ঘাটাল মাস্টার প্ল্যানে ৭৪৩.৩৭ কোটি টাকা রাজ্য সরকার কেন্দ্রের কাছে পায় বলে দাবি করা হয়েছে।

সেই সঙ্গেই বুলবুলের জন্য ৬,৩৩৪.০০ কোটি টাকা, আমফানের জন্য ৩২,৩১০.৩২ কোটি টাকা ও ইয়াসের জন্য ৪.২২২ কোটি টাকা বকেয়া রয়েছে। চিঠি দিয়ে জানালেন মমতা।

বন্ধ করুন