বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Anti Defection Law: দলত্যাগ বিরোধী আইনে কি সংশোধনী আনতে চাইছে সরকার, শুরু জল্পনা
সংসদ ভবন। ছবি সৌজন্য এএনআই। (Amlan Paliwal)

Anti Defection Law: দলত্যাগ বিরোধী আইনে কি সংশোধনী আনতে চাইছে সরকার, শুরু জল্পনা

  • সাম্প্রতিককালে সারা দেশে দলত্যাগের প্রহণতা অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে। এই প্রবণতা থেকে এই রাজ্যও বাদ নয়। গত বিধানসভা ভোটের পর থেকে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে এসেছেন অনেক বিধায়ক।

‌শুক্রবার থেকে শুরু হয়েছে স্পিকারদের সর্বভারতীয় সম্মেলন। আর এই সম্মেলনে দলত্যাগ বিরোধী আইন সংক্রান্ত সব অভিযোগের নিষ্পত্তি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে করার ওপর জোর দেবেন লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লা। সূত্র মারফত এই তথ্যই আসবে। এই তথ্যের ভিত্তিতে একটা আশঙ্কা দানা বাঁধছে যে আগামী বাদল অধিবেশনে কি দলত্যাগ বিরোধী আইনে সংশোধনী আনতে চলেছে সরকার।

সর্বভারতীয় স্পিকারদের এই সম্মেলনে দলত্যাগ সংক্রান্ত বিষয়ে আলোচনা হবে, তেমনি অসংসদীয় আচরণ বা অসংসদীয় শব্দ প্রয়োগের বিষয়টিও আলোচনা হবে। এছাড়াও অধিবেশন চলাকালীন সদস্যদের শালীনতা, অনুশাসন সহ আইনসভার বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হবে। সূত্রের খবর, লোকসভার অধ্যক্ষ ওম বিড়লা চাইছেন দলত্যাগ বিরোধী আইনের সব অভিযোগের নিষ্পত্তি নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে হোক। ওয়াকিবহাল মহলের মতে, যেভাবে লোকসভার অধ্যক্ষ এই বিষয়টিতে আগ্রহ দেখাচ্ছেন, তার থেকে একটা বিষয় মনে হতে পারে, সরকার কী তাহলে আগামীদিনে দলত্যাগ বিরোধী আইনের সংশোধনীর পথে হাঁটছে।

সাম্প্রতিককালে সারা দেশে দলত্যাগের প্রবণতা অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে। এই প্রবণতা থেকে এই রাজ্যও বাদ নয়। গত বিধানসভা ভোটের পর থেকে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে এসেছেন অনেক বিধায়ক। এদের মুকুল রায়ের নামও রয়েছে, যিনি বিজেপিতে আছেন নাকি তৃণমূলে নাকি বিস্তর বিতর্ক হয়েছে। সেই বিতর্ক গড়িয়েছে আদালত পর্যন্ত। গোটা প্রক্রিয়াটি শেষ হতে অনেকটা সময় লেগেছে। সম্প্রতি শুরু হওয়া স্পিকারদের সম্মেলনে হাজির নেই বাংলা থেকে কোনও প্রতিনিধি। রাষ্ট্রপতি নির্বাচনকে ঘিরে ব্যস্ত থাকায় তাঁর পক্ষে স্পিকারদের সম্মেলনে যোগ দেওয়া সম্ভব নয় বলে জানিয়ে দিয়েছেন বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়।

বন্ধ করুন