বাড়ি > ঘরে বাইরে > জম্মু ও কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বাতিলের পরে ৮ দফায় পঞ্চায়েত নির্বাচন ব্যালটে
মোট ৮ দফায় পঞ্চায়েত নির্বাচন হবে জম্মু ও কাশ্মীরে। ভোট হবে ব্যালটের সাহায্যে।
মোট ৮ দফায় পঞ্চায়েত নির্বাচন হবে জম্মু ও কাশ্মীরে। ভোট হবে ব্যালটের সাহায্যে।

জম্মু ও কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বাতিলের পরে ৮ দফায় পঞ্চায়েত নির্বাচন ব্যালটে

প্রতি ব্লকের শূন্যপদ পূর্ণ করতে ব্যালট বাক্সের মাধ্যমে পঞ্চায়েত নির্বাচন আয়োজিত হবে। মোট ৮ দফায় ভোটগ্রহণ পর্ব অনুষ্ঠিত হবে।

সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের পরে এই প্রথম জম্মু ও কাশ্মীরে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে পঞ্চায়েত নির্বাচন। বৃহস্পতিবার এই তথ্য জানিয়েছেন কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের মুখ্য নির্বাচন আধিকারিক শৈলেন্দ্র কুমার।

গত ৫ অগস্ট লোকসভায় জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহার করার পরে প্রথম কোনও গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক প্রক্রিয়া সংগঠিত হতে চলেছে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে। এ দিন মুখ্য নির্বাচন আধিকারিক শৈলেন্দ্র কুমার জানিয়েছেন, ‘প্রতি ব্লকের শূন্যপদ পূর্ণ করতে ব্যালট বাক্সের মাধ্যমে পঞ্চায়েত নির্বাচন আয়োজিত হবে। মোট ৮ দফায় ভোটগ্রহণ পর্ব অনুষ্ঠিত হবে।’

গত অগস্ট মাসের সিদ্ধান্তে জম্মু ও কাশ্মীর ভেঙে দু’টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল সৃষ্টি হয়। এর মধ্যে লাদাখে কোনও বিধানসভা নেই এবং তা সরাসরি কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে লেফটেন্যান্ট গভর্নর জি সি মুর্মুর শাসনাধীন।

অন্য দিকে, দিল্লি মডেল অনুসরণ করে জম্মু ও কাশ্মীরে বিধানসভা থাকবে বলে জানা গিয়েছে।

২০১৯ সালের মে মাসে লোকসভা নির্বাচনে নিরঙ্কুশ গরিষ্ঠতা নিয়ে দ্বিতীয় বার কেন্দ্রে ক্ষমতা অর্জন করার পরে জম্মু ও কাশ্মীর সংক্রান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে সাহসের পরিচয় দিয়েছে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বাধীন মন্ত্রিসভা।রাজ্য হিসেবে জম্মু ও কাশ্মীরের মর্যাদা প্রত্যাহার করার পরে অঞ্চলের সমস্ত প্রথম সারির রাজনৈতিক দলের নেতাদের আটক করা হয়। বন্ধ করা হয় ইন্টারনেট ও টেলি যোগাযোগ পরিষেবা। কাশ্মীর উপত্যকায় এখনও ইন্টারনেট পরিষেবা না ফিরলেও কেন্দ্রের দাবি, এলাকায় শান্তি প্রতিষ্ঠা পর্ব সফল হয়েছে।

বন্ধ করুন