বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > করোনায় মৃত্যু টিভি সাংবাদিকের, ২৪ ঘণ্টায় তেলাঙ্গনায় লাফিয়ে বাড়ল সংক্রমণ
(প্রতীকী ছবি)
(প্রতীকী ছবি)

করোনায় মৃত্যু টিভি সাংবাদিকের, ২৪ ঘণ্টায় তেলাঙ্গনায় লাফিয়ে বাড়ল সংক্রমণ

  • নিহত সাংবাদিক আগে থেকেই মায়াস্থেনিা গ্র্যাভিস রোগে ভুগছিলেন।

করোনা সংক্রমণে প্রাণ হারালেন তেলাঙ্গনার বছর তেত্রিশের টিভি সাংবাদিক। রবিবার এই খবর জানিয়েছেন হায়দরাবাদের গান্ধী হসপিটালের চিকিৎসকরা। তেলাঙ্গনায় তিনিই প্রথম সাংবাদিক, যিনি করোনায় মারা গেলেন। 

গান্ধী হসপিটালের সুপারিন্টেন্ডেন্ট রাজা রাও জানিয়েছেন, জনপ্রিয় তেলুগু টিভি চ্যানেলের ক্রাইম রিপোর্টারকে চলতি মাসের গোড়ায় স্থানীয় ফিভার হসপিটালে পরীক্ষা করলে করোনা আক্রান্ত ধরা পড়েন। 

এর পরেই তাঁকে ৪ জুন গান্ধী হসপিটালে ভরতি করা হয়। সঙ্গে সঙ্গে তাঁর চিকিৎসা শুরু করলেও সেদিন দুপুর থেকেই প্রবল শ্বাসকষ্ট দেখা দেওয়ায় সাংবাদিকের শারীরিক অবনতি ঘটতে শুরু করে। সেই কারণে তাঁকে হাসপাতালের ইন্টেন্সিভ কেয়ার বিভাগে স্থানান্তর করা হয়।

সুপার জানিয়েছেন, আক্রান্ত সাংবাদিক আগে থেকেই মায়াস্থেনিা গ্র্যাভিস রোগে ভুগছিলেন। এই রোগে শ্বাসযন্ত্র-সহ সারাদেহের পেশি দুর্বল হয়ে পড়ে। তাই দীর্ঘ দিন তিনি স্টেরয়েড নিতে বাধ্য হয়েছিলেন। 

সুপার জানিয়েছেন, এই শারীরিক জটিলতার মাঝেই সাংবাদিক করোনা আক্রান্ত হলে তাঁর বাইল্যাটেরাল নিউমোনিয়া দেখা দেয় ও তীব্র শ্বাসকষ্ট শুরু হয়। সাংবাদিকের চিকিৎসায় নিযুক্ত চিকিৎসক, অ্যানেস্থেসিস্ট ও পালমোনোলজিস্টদের নিয়ে তৈরি দল ২৪ ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে গেলেও ধীরে ধীরে রোগীর আশঙ্কাজনক পরিস্থিতি দেখা দেয়। রবিবার ভোরে তীবহ্র হার্ট অ্যাটাক হলে তিনি মারা যান। 

করোনায় সাংবাদিকের মৃত্যু খবর প্রকাশিত হলে হায়দরাবাদের সাংবাদিক মহলে গভীর শোকের ছায়া নামে। গত ১০ দিনে হায়দরাবাদে কর্মরত কমপক্ষে ১২ জন সাংবাদিকের করোনা পজিটিভ হওয়ার খবর পাওয়া গিয়েছে। তাঁদের কয়েক জনের মধ্যে উপসর্গ দেখা দিলেও বাকিদের কোনও শারীরিক বিক্রিয়া দেখা দেয়নি। 

গত দুই সপ্তাহ ধরে তেলাঙ্গনায় লাফিয়ে বাড়ছে Covid-19 এর সংখ্যা। বিশেষ করে গ্রেটার হায়দরাবাদ মিউনিসিপাল কর্পোরেশন অধীনস্থ এলাকায় করোনায় আতক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা ল্লেখযোগ্য হারে বেড়েছে। শনিবার রাতে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে ২০৬ জন নতুন রোগীর খোঁজ পাওয়া গিয়েছে এবং ১০টি মৃত্যুর খবর মিলেছে। 

বন্ধ করুন