বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বাঙালির ঐতিহ্যবাহী দুর্গাপুজোর প্রসঙ্গ উঠে এলো রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের ভাষণে
 রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। ফাইল ছবি।

বাঙালির ঐতিহ্যবাহী দুর্গাপুজোর প্রসঙ্গ উঠে এলো রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের ভাষণে

  • সোমবার বাজেট অধিবেশনের প্রথম দিনে এনিয়ে রাষ্ট্রপতিকে প্রশংসা করতে শোনা গিয়েছে।

গত ডিসেম্বর মাসে ইউনেস্কোর কাছে হেরিটেজ তকমা পেয়েছে বাংলার দুর্গাপুজো। তারপরেই প্রশংসার সুর শোনা গিয়েছিল মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় থেকে শুরু করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, অমিত শাহ সহ বিজেপির বিভিন্ন নেতাদের মুখে। এবার রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের ভাষণে ঐতিহ্যবাহী দুর্গাপুজোর কথা উঠে এল। সোমবার বাজেট অধিবেশনের প্রথম দিনে এনিয়ে রাষ্ট্রপতিকে প্রশংসা করতে শোনা গিয়েছে।

ইউনেস্কোর ইনট্যানজিবল কালচারাল হেরিটেজ অব হিউম্যানিটি হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে দুর্গাপুজোকে। এখনও পর্যন্ত ইউনেস্কোর স্বীকৃতি পেয়েছে ৬টি দেশের উৎসব। এগুলি হল ফ্রান্স, বেলজিয়াম, সুইজারল্যান্ড, ব্রাজিল ও বলিভিয়া। ডিসেম্বরে সেই তালিকায় যোগ হয়েছে দুর্গাপুজো। যা স্বাভাবিকভাবেই গর্বের বিষয়।

সোমবার বাজেট অধিবেশনের প্রথম দিন রাষ্ট্রপতি ভাষণ রাখতে গিয়ে দেশ নতুন কী কী কৃতিত্ব অর্জন করেছে তা নিয়ে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বাংলার ঐতিহ্যবাহী দুর্গাপুজোর প্রসঙ্গ উল্লেখ করেন। এছাড়াও, রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য একেবারে প্রথম সারির যোদ্ধা কর্মীদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। পাশাপাশি অলিম্পিকে ভারতের অর্জন, কাশ্মীরের শিক্ষা ও স্বাস্থ্য খাতে উন্নতি প্রভৃতি বিষয়গুলো নিজের বক্তব্যের মাধ্যমে তুলে ধরেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ।

প্রসঙ্গত, সোমবার বাজেট অধিবেশনের প্রথম দিনে সাংসদদের সঙ্গে সৌজন্য বিনিময় করেন রাষ্ট্রপতি। সেই সময় তৃণমূল সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়কে সরানোর আর্জি জানান। তিনি রাষ্ট্রপতির কাছে আবেদন জানান, 'রাজ্যপাল যা করছেন তা গণতন্ত্রের পক্ষে খুবই ক্ষতিকারক। তাই অবিলম্বে তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হোক।'

বন্ধ করুন