বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে শরদ পাওয়ার, ৫৭ মিনিটের বৈঠক নিয়ে আলোচনা রাজনৈতিক মহলে
প্রধানমন্ত্রীর বাসভনে শরদ পাওয়ার (ছবি সৌজন্যে টুইটার)
প্রধানমন্ত্রীর বাসভনে শরদ পাওয়ার (ছবি সৌজন্যে টুইটার)

প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে শরদ পাওয়ার, ৫৭ মিনিটের বৈঠক নিয়ে আলোচনা রাজনৈতিক মহলে

  • ন্যাশনালিস্ট কংগ্রেস পার্টির প্রধান তথা রাজ্যসভার সাংসদ শরদ পাওয়ার এদিন দেখা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে।

ন্যাশনালিস্ট কংগ্রেস পার্টির প্রধান তথা রাজ্যসভার সাংসদ শরদ পাওয়ার এদিন দেখা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে। প্রধানমন্ত্রীর দফতরের তরফে জানানো হয় যে প্রধানমন্ত্রীর বাসভনে দুই নেতা বৈঠক করেন দীর্ঘ সময় ধরে। সূত্রের খবর দুই নেতা প্রায় ৫৭ মিনিট কথা বলেন। আর এই বৈঠক ঘিরে এবার দিল্লির রাজনৈতিক মহলে চরম জল্পনা শুরু হয়েছে।

প্রসঙ্গত, কয়েকদিন আগেই প্রশান্ত কিশোরের সঙ্গে সোনিয়া গান্ধীর বৈঠকের পর জল্পনা শুরু হয় ভারতীয় রাজনীতিতে শরদ পাওয়ারের ভবিষ্যত ভূমিকা নিয়ে। প্রশ্ন ওঠে, তবে কি শরদ পাওয়ারকে রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী করা হতে পারে বিরোধীদের তরফে। আবার অনেকেই শরদ পাওয়াকরে মোদী বিরোধী জোটের সভাপতি হিসেবে দেখছিলেন। এই পরিস্থিতিতে শরদ পাওয়ার নিজেই বলেন তিনি রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে অংশ নেবেন, তা নিয়ে ভাবছেন না। তিনি ২০২৪ নিয়েও এখনই ভাবছেন না বলে জানান। তবে সেই মন্তব্যের পরেই নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে শরদ পাওয়ারের সাক্ষাত্ বেশ তাত্পর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে।

শরদ পাওয়ারকে রাষ্ট্রপতি করা হতে পারে, এমন জল্পনা তৈরি হয় রাহুল গান্ধীর বাসভবনে প্রশান্ত কিশোরের উপস্থিতির পর থেকে। পরে জানা যায় প্রশান্ত কিশোরের সঙ্গে বৈঠক করেছেন কংগ্রেস সভানেত্রী তথা ইউপিএ চেয়ারপার্সন সোনিয়া গান্ধীর সঙ্গে ভার্চুয়াল মাধ্যমে বৈঠক করেন প্রশান্ত কিশোর। এই খবর প্রকাশ পেতেই ফের জল্পনা তৈরি হয়, তাহলে কি শরদ পাওয়ারকে ইউপিএ চেয়ারপার্সন হিসেবে দেখা যেতে পারে।

এই বিষয়ে অবশ্য শরদ পাওয়ার বলেন, 'এখনও কোনও কিছুই সিদ্ধান্তে পরিণত হয়নি। তা সে ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচন হোক বা বিধানসভা নির্বাচন। নির্বাচন এখনও বহু দূরে। রাজনৈতিক পরিস্থিতি সব সময় বদলাতে থাকে। আমি এখনই ২০২৪ সালের নির্বাচনে কোনও নেতৃত্ব দেওয়ার কথা ভাবছি না।'

বন্ধ করুন