বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > টিকা না থাকলে ট্রেনের টিকিট বন্ধ, শীঘ্রই সিদ্ধান্ত নিতে পারে এই শহর!
মঙ্গলবার মহারাষ্ট্রের এক রেল স্টেশনে তাপমাত্র পরীক্ষা। ছবি : হিন্দুস্তান টাইমস (Pratik Chorge/Hindustan Times)
মঙ্গলবার মহারাষ্ট্রের এক রেল স্টেশনে তাপমাত্র পরীক্ষা। ছবি : হিন্দুস্তান টাইমস (Pratik Chorge/Hindustan Times)

টিকা না থাকলে ট্রেনের টিকিট বন্ধ, শীঘ্রই সিদ্ধান্ত নিতে পারে এই শহর!

  • নাম প্রকাশ না করার শর্তে রেলওয়ের এক আধিকারিক বলেন, 'শীঘ্রই হয়তো দৈনিক টিকিট ইস্যু করা বন্ধ হয়ে যাবে। তবুও আমরা এটি চূড়ান্ত করার আগে অভ্যন্তরীণ আলোচনা করছি।'

শহরতলির লোকাল ট্রেনের টিকিট কি সাময়িকভাবে বন্ধ হয়ে যাবে? ওয়েস্টার্ন এবং সেন্ট্রাল রেলওয়ে লাইনে মুম্বই শহরতলির ট্রেনে প্রতিদিন ৪২-৪৫ লক্ষ যাত্রী হয়। এর মধ্যে মাত্র ২৫ লক্ষের মাসিক টিকিট রয়েছে। রেলের আধিকারিকরা জানিয়েছেন যে বাকি দৈনিক যাত্রীদের বেশিরভাগই রোজের টিকিট কাটেন। এঁদের অধিকাংশই জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত।

বর্তমানে, শুধুমাত্র সম্পূর্ণরূপে টিকাপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের (দ্বিতীয় ডোজের কমপক্ষে ১৪ দিন পর) পশ্চিম ও মধ্য রেলের মাসিক সিজন টিকিট (MSTs) দেওয়া হয়।

মঙ্গলবার, মহারাষ্ট্র সরকার ঘোষণা করেছে যে অত্যাবশ্যকীয় পেশায় যুক্ত কর্মী এবং সরকারি কর্মচারী-সহ সকল নাগরিককে মুম্বই লোকাল ট্রেনে চড়তে সম্পূর্ণরূপে টিকাপ্রাপ্ত হতে হবে। এর অর্থ হল জরুরি পরিষেবায় থাকা ব্যক্তিরা, যাঁরা সম্পূর্ণরূপে টিকাপ্রাপ্ত নন, তাঁদের রোজের টিকিট জারি করা নাও হতে পারে। তাঁদের সিজন পাস কিনতে হবে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে রেলওয়ের এক আধিকারিক বলেন, 'শীঘ্রই হয়তো দৈনিক টিকিট ইস্যু করা বন্ধ হয়ে যাবে। তবুও আমরা এটি চূড়ান্ত করার আগে অভ্যন্তরীণ আলোচনা করছি।'

মহারাষ্ট্র সরকারের নতুন আদেশে স্পষ্ট করে বলা হয়েছে যে, শুধুমাত্র সম্পূর্ণ টিকাপ্রাপ্ত ব্যক্তিদেরই অনুমতি দেওয়া হবে। অন্যথা এখন থেকে তাঁদের দৈনিক টিকিট দেওয়া হবে না। বর্তমানে, জরুরি পরিষেবায় থাকা ব্যক্তিরা এবং সরকারি কর্মীদের টিকা ছাড়াও দৈনিক টিকিট কাটতে পারেন।

মুম্বই লোকাল ট্রেন পরিষেবা চার মাস বিরতির পর গত অগস্টে চালু হয়। তবে প্রাথমিকভাবে সম্পূর্ণ টিকাপ্রাপ্ত যাত্রীদেরই কেবলমাত্র ট্রেনে চড়ার অনুমতি ছিল৷ কোভিড মহামারীর দ্বিতীয় ঢেউয়ের পর এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে লোকাল ট্রেনে যাতায়াত বন্ধ করা হয়েছিল।

বন্ধ করুন