সংক্রমণের কবল থেকে মুক্ত প্রিন্স চার্লস। ছবি: এএফপি। (AFP)
সংক্রমণের কবল থেকে মুক্ত প্রিন্স চার্লস। ছবি: এএফপি। (AFP)

আয়ুর্বেদিক ওষুধে করোনামুক্ত চার্লস, কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর দাবি মানল না ব্রিটেন

  • মার্চ মাসে করোনাভাইরাস সংক্রমণের কবলে পড়লেও আপাতত সেরে উঠেছেন ও সুস্থ আছেন ব্রিটেনের যুবরাজ।

আয়ুর্বেদিক ওষুধে করোনাভাইরাস সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াইতে সুফল পেয়েছেন ব্রিটেনের যুবরাজ চার্লস। ভারতীয় মন্ত্রীর এই দাবি নস্যাৎ করল ব্রিটিশ রাজপরিবার।

বাকিংহ্যাম প্রাসাদ সূত্রে জানা গিয়েছে, গত মার্চ মাসে করোনাভাইরাস সংক্রমণের কবলে পড়লেও আপাতত সেরে উঠেছেন ও সুস্থ আছেন ব্রিটেনের যুবরাজ।

বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় আয়ুষ দফতরের ভারপ্রাপ্ত মন্ত্রী তথা গোয়ার বিজেপি সাংসদ শ্রীপদ নায়েক দাবি করেন, ‘আমি চিকিৎসক আইজ্যাক মাথাইয়ের থেকে একটি ফোন পেয়েছি, যিনি বেঙ্গালুরুর শৌক্য আয়ুর্বেদ রিসর্টের প্রধান। তিনি জানিয়েছেন যে, আয়ুর্বেদ ও হোমিওপ্যাথি ওষুধ প্রয়োগ করে তিনি ব্রিটেনের যুবরাজ চার্লসকে সুস্থ করে তুলতে সফল হয়েছেন।’

পরে হিন্দুস্তান টাইমস-এর তরফে জানতে চাওয়া হলে মাথাইও জানান, সস্ত্রীক যুবরাজ চার্লস তাঁর রোগী। তিনি যে তাঁদের করোনা সংক্রমণ থেকে সুস্থ করে তুলেছেন, সে কথাও স্বীকার করেন বেঙ্গালুরুর চিকিৎসক। তবে মন্ত্রীর দাবি সম্পর্কে তিনি কোনও মন্তব্য করতে চাননি।

এর পরে হিন্দুস্তান টাইমস-এর তরফে ফোনে যোগাযোগ করা হয় বাকিংহ্যাম প্রাসাদের সঙ্গে। জবাবে প্রিন্স অফ ওয়েলস-এর মুখপাত্র সাফ জানিয়ে দেন, ‘এই তথ্য সম্পূর্ণ অসত্য। প্রিন্স অফ ওয়েলস ব্রিটেনের জাতীয় স্বাস্থ্য পরিষেবা দফতরের (NHS) পরামর্শ মেনে চিকিৎসা করিয়েছেন। এ ছাড়া আর কোনও তথ্য নেই।’

বন্ধ করুন