বাংলা নিউজ > ময়দান > IPL 22: আরও বড় জায়গায় যাওয়ার ক্ষমতা রয়েছে সাঁই সুদর্শনের, অভিমত কোচেদের
আরও বড় জায়গায় যাওয়ার ক্ষমতা রয়েছে সাঁই সুদর্শনের (PTI)
আরও বড় জায়গায় যাওয়ার ক্ষমতা রয়েছে সাঁই সুদর্শনের (PTI)

IPL 22: আরও বড় জায়গায় যাওয়ার ক্ষমতা রয়েছে সাঁই সুদর্শনের, অভিমত কোচেদের

  • তামিলনাড়ু প্রিমিয়র লিগে ৮ ইনিংসে ৩৫৮ রান করেছিলেন সুদর্শন। গড় ছিল ৭১.৬০। সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফিজয়ী তামিলনাড়ু দলেরও সদস্য ছিলেন তিনি। বিজয় শঙ্কর প্রথমে বেশ কয়েকটি ম্যাচ খেলার পরে তার চোটের কারণে সরে দাঁড়ানোর পরে চলতি আইপিএলে সুযোগ পান সুদর্শন।

শুভব্রত মুখার্জি: আইপিএলের চলতি মরশুমে অভিষেককারী ফ্রাঞ্চাইজি গুজরাট টাইটানস দলের হয়ে খেলছেন বাঁহাতি তামিলনাড়ুর ব্যাটার বি সাঁই সুদর্শন। সুদর্শনের উত্থানের কাহিনি কিন্তু অনেকটা ধ্রুবতারার মতন। চেন্নাইতে বয়সভিত্তিক গ্রুপে খেলা, স্থানীয় লিগ ক্রিকেটে খেলা থেকে সোজা তামিলনাড়ু প্রিমিয়র লিগ। সেখানে অনবদ্য পারফরম্যান্স করে বিদ্যুৎগতিতে রাজ্যের সিনিয়র দলে জায়গা করে নেওয়া। সেখান থেকে আইপিএলের মঞ্চের ঝলমলানি। তার এই পর্যন্ত যাত্রাপথ অনেকটাই স্বপ্নের মতন। মঙ্গলবার রাতে তিনি গুজরাটের হয়ে পঞ্জাবের বিরুদ্ধে আইপিএলের মঞ্চে তার প্রথম অর্ধশতরানটিও করে ফেলেছেন। যদিও দলকে কাঙ্ক্ষিত জয় এনে দিতে পারেননি।‌ তবুও তার গতকালের ব্যাটিং দেখার পরবর্তীতে বিভিন্ন পর্যায়ে তাকে প্রশিক্ষণ দেওয়া কোচেরা মনে করেন সুদর্শনের মধ্যে সেই ট্যালেন্ট রয়েছে আরও বড় পর্যায়ে যাওয়ার।

প্রসঙ্গত তামিলনাড়ু প্রিমিয়র লিগে ৮ ইনিংসে ৩৫৮ রান করেছিলেন সুদর্শন। গড় ছিল ৭১.৬০। সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফিজয়ী তামিলনাড়ু দলেরও সদস্য ছিলেন তিনি। বিজয় শঙ্কর প্রথমে বেশ কয়েকটি ম্যাচ খেলার পরে তার চোটের কারণে সরে দাঁড়ানোর পরে চলতি আইপিএলে সুযোগ পান সুদর্শন। প্রথম দুটি ম্যাচে সেভাবে রান করতে না পারলেও পঞ্জাবের বিরুদ্ধে কাগিসো রাবাডার মতন বিশ্বমানের বোলারদের সামলে ৬৫ রানের একটা অপরাজিত ইনিংস খেলেন সুদর্শন।

যা দেখার পরে তামিলনাড়ুর কোচ এম ভেঙ্কটারামানার অভিমত 'খুব ট্যালেন্টেড ক্রিকেটার ও। ওর হাতে বেশ কিছু শট রয়েছে। কঠোর পরিশ্রম করতে পারে। সাঁই খুব ভাল অ্যাথলিট। নিজের ক্রিকেটের উপর অনেক কাজ করছে। দীর্ঘক্ষণ ব্যাট করার ক্ষমতা আছে। নিজের ব্যাটিংয়ের উপর কাজ করলে ও সময়ের সঙ্গে সঙ্গে উন্নতি করবে।'

তামিলনাড়ুর সহকারী কোচ আর প্রসন্ন জানান 'ওকে (সাঁই) প্রথম আমি অনুর্ধ্ব-১৬'র একটি ক্যাম্পে দেখি। আমি দেখেছিলাম ওর মধ্যে বড় রান করার ট্যালেন্ট রয়েছে। সেই সময়ে ওর নজর ফিল্ডিংয়ের উপর খুব একটা ছিল না। তবে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ও নিজেকে বদলেছে। বড় রান করার অভ্যাস রয়েছে। খুব পরিশ্রম করছে। আমি ওর জন্য খুব খুশি। দিন দিন ও উন্নতি করছে। তামিলনাড়ু প্রিমিয়র লিগ ওকে বড় মঞ্চ দিয়েছে। ভবিষ্যতে ও আরও বড় জায়গায় পৌঁছতে পারে বলে আমার বিশ্বাস।'

বন্ধ করুন