বাংলা নিউজ > ময়দান > ফুটবল > কী কারণ গোয়ায় স্থাপন করা হল ফুটবলার ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর মূর্তি? উঠছে রাজনীতির গন্ধ!
গোয়ায় স্থাপন করা হল ফুটবলার ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর মূর্তি (ছবি:টুইটার)
গোয়ায় স্থাপন করা হল ফুটবলার ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর মূর্তি (ছবি:টুইটার)

কী কারণ গোয়ায় স্থাপন করা হল ফুটবলার ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর মূর্তি? উঠছে রাজনীতির গন্ধ!

  • ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর মূর্তিটির ওজন প্রায় ৪১০ কেজি এবং এটি স্থাপনের উদ্দেশ্য হল তরুণ প্রজন্মকে খেলাধুলার প্রতি উদ্বুদ্ধ করা এবং তাদের স্বপ্ন পূরণ করা। এই মূর্তি তৈরিতে প্রায় ১২ লক্ষ টাকা খরচ হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

গোয়ার পানাজিতে স্থাপন করা হল ফুটবলার ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর মূর্তি। তারকা ফুটবলারের মূর্তিটি স্থাপন করা হয়েছে গোয়া সরকারের তরফ থেকে। ফুটবলকে পরবর্তী স্তরে নিয়ে যেতে এবং রাজ্য ও দেশের যুবকদের অনুপ্রাণিত করতে এই মূর্তিটি স্থাপন করা হয়েছে। এই মূর্তিটি স্থাপনের মূল উদ্দেশ্য সম্পর্কে তথ্য প্রদান করে, গোয়ার মন্ত্রী মাইকেল লোবো। তিনি বলেন, ‘আমরা যুবকদের অনুপ্রাণিত করতে এবং রাজ্যে, দেশে ফুটবলকে পরবর্তী স্তরে নিয়ে যাওয়ার জন্য এই মূর্তিটি তৈরি করেছি। আমরা চাই আমাদের বাচ্চারা এই মহান ফুটবলারের মতো হোক। যিনি একজন বিশ্ব কিংবদন্তি।’

তথ্য অনুযায়ী, ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর মূর্তিটির ওজন প্রায় ৪১০ কেজি এবং এটি স্থাপনের উদ্দেশ্য হল তরুণ প্রজন্মকে খেলাধুলার প্রতি উদ্বুদ্ধ করা এবং তাদের স্বপ্ন পূরণ করা। এই মূর্তি তৈরিতে প্রায় ১২ লক্ষ টাকা খরচ হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। এটি তৈরি করতে প্রায় তিন বছর সময় লেগেছে। ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো একজন পর্তুগিজ পেশাদার ফুটবলার। তিনি পর্তুগাল জাতীয় দলের অধিনায়কও। ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো প্রিমিয়ার লিগের ক্লাব ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে ফুটবল খেলেন।

মন্ত্রী আরও বলেন, ‘এই প্রথম ভারতে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর মূর্তি স্থাপন করা হল। এটা আমাদের তরুণদের অনুপ্রেরণা ছাড়া আর কিছুই নয়। আপনি যদি ফুটবলকে অন্য স্তরে নিয়ে যেতে চান তাহলে তরুণ ছেলে-মেয়েরা অপেক্ষা করবে। এর জন্য, সেলফি তুলুন এবং মূর্তির দিকে তাকান, পাশাপাশি এই গেমটি খেলতে অনুপ্রাণিত হন। সরকার, পৌরসভা এবং পঞ্চায়েতের কাজ হল ভালো পরিকাঠামো, ভালো ফুটবল মাঠ প্রদান করা। আমাদের ছেলে-মেয়েদের সেখানে গিয়ে খেলার জন্য একটি ভালো পরিবেশ তৈরি করতে হবে।’

মন্ত্রী মাইকেল লোবো বলেন, ‘কিছু লোক এই মূর্তি স্থাপনের প্রতিবাদ করছে। এই একই লোক যারা খেলাধুলায় দেশকে এগিয়ে যেতে দেখতে পারে না। যারা মূর্তি স্থাপনের বিরোধিতা করেছে, আমি মনে করি তারা হার্ডকোর ফুটবলকে ঘৃণা করে। তারা ফুটবলকে ধর্ম বলে বিশ্বাস করে না। ফুটবল এমন একটি খেলা যেখানে জাতি, বর্ণ, ধর্ম ইত্যাদি নির্বিশেষে সবাই সমান। তারপরও কালো পতাকা নিয়ে এর বিরোধিতা করছে এসব মানুষ। আমি তার সম্পর্কে কিছু বলতে পারি না এবং শুধু তাকে প্রণাম করতে চাই।’

বন্ধ করুন