ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

T20 Champions Cup, ODI Champions Cup: নতুন টুর্নামেন্ট শুরু করতে চলেছে আইসিসি

২০২৩-২০৩১ সালের ক্রিকেট ক্যালেন্ডারে এগুলি অন্তর্ভুক্ত আছে।

প্রতি বছর একটা করে আইসিসি ট্রফি না থাকলে টাকা উঠছে না, এই অজুহাতে দুটি নতুন টুর্নামেন্ট শুরু করতে চায় ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থা। ২০২৩-৩১ সালের ক্রিকেট ক্যালেন্ডারে তাই অন্তর্ভুক্ত হয়েছে T20 Champions Cup, ODI Champions Cup, বলে জানিয়েছে ESPNCricinfo.

গত বছর অক্টোবরে আইসিসির বোর্ড মিটিংয়ে প্রথমবার এই প্রস্তাব রাখা হয়েছিল। এর ওপর এখনও সবাই একমত হয়নি। তবে প্রস্তাব অনুযায়ী টি২০ চ্যাম্পিয়নস কাপ হবে ২০২৪ ও ২০২৮-এ। অন্যদিকে ওডিআই চ্যাম্পিয়নস কাপ হবে ২০২৫ ও ২০২৯ সালে। এ ছাড়াও ২০২৬ ও ২০৩০ সালে আছে টি২০ বিশ্বকাপ। ৫০- ওভারের বিশ্বকাপ হবে ২০২৭ ও ২০৩১ সালে। বর্তমানে যে ক্রিকেট ক্যালেন্ডার চলছে তার মধ্যে অন্তর্ভুক্ত ২০২৩ সালের ওডিআই বিশ্বকাপ। এর অর্থ হল প্রতি বছরই একটি করে ওয়ার্ল্ড ইভেন্ট করতে চায় আইসিসি। এই ইভেন্টগুলি থেকে যে রাজস্ব আসে সেটির মাধ্যমে দিন গুজরান হয় অনেক ক্রিকেট বোর্ডের।

অন্যদিকে ক্রিকেটের বিগ থ্রি ভারত, অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ড বেশি নিজেদের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক ক্রিকেট খেলতে উত্সাহী, কারণ সেটি থেকে তাদের বেশি রোজগার হয়। এই নিয়েই বিবাদ। এত প্যাকড শিডিউল থেকে সময়ই বা কি করে বার হবে, সেই নিয়েও উঠছে প্রশ্ন। টি২০ চ্যাম্পিয়নস কাপে বিশ্বের দশ দেশ খেলবে মোট ৪৮টি ম্যাচ। অন্যদিকে ৫০ ওভারের চ্যাম্পিয়নস কাপটি চ্যাম্পিয়নস ট্রফির আদলে হবে যেখানে মোট ৬টি টিম ১৬টি ম্যাচ খেলবে।

ছেলেদের ও মেয়েদের উভয়ের জন্যেই এই নতুন দুটি টুর্নামেন্টের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। তবে মহিলাদের ক্ষেত্রে টি২০ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিটি স্বল্পমেয়াদের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে, ৪৮ ম্যাচ হবে না।

এছাড়াও আছে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পপিয়নশিপ যার ফাইনাল খেলা হবে ২০২৫, ২০২৭,২০২৯ ও ২০৩১-এ। বিসিসিআই আবার আইপিএলের বহর বৃদ্ধি করার কথা ভাবছে। অন্যদিকে ইংল্যান্ডে শুরু হচ্ছে হান্ড্রেড। সব মিলিয়ে বছরের ৩৬৫ দিনের মধ্যে এত ক্রিকেট ম্যাচ কি করে অনুষ্ঠিত করা যায়, সেটাই এখন চ্যালেঞ্জ ক্রিকেট বোর্ডগুলির কাছে।


বন্ধ করুন