বাংলা নিউজ > ময়দান > টি২০ বিশ্বকাপ > ‘পরস্পরের পাশে থাকাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ;’ কোহলির প্রশংসা করে শামির পাশে দাঁড়ালেন গাভাসকর
শামির পাশে দাঁড়ালেন গাভাসকর (ছবি:গেটি ইমেজ)

‘পরস্পরের পাশে থাকাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ;’ কোহলির প্রশংসা করে শামির পাশে দাঁড়ালেন গাভাসকর

  • একদল সমর্থক শামির উদ্দেশ্যে সোশ্যাল মিডিয়াতে কটূক্তি করতে থাকেন। যা দেখে চুপ থাকতে পারেননি ক্রিকেট মহল। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন সচিন তেন্ডুলকরও। সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডও শামির পাশে দাঁড়িয়েছে। সেই বিষয়ে এবার মুখ খুললেন সুনীল গাভাসকর।

পাকিস্তান ম্যাচের পরে মহম্মদ শামির উপর যে জঘন্য আক্রমণ হয়েছে, তা নিয়ে ভাবছেন না ভারতের কিংবদবন্তি ক্রিকেটার সুনীল গাভাসকর। কারণ তিনি সোশ্যাল মিডিয়ার এই সব মন্তব্যকে পাত্তাই দিচ্ছেন না। আসলে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপে হারের পর থেকে একদল সমর্থক শামির উদ্দেশ্যে সোশ্যাল মিডিয়াতে কটূ কথা বলতে থাকেন। যা দেখে চুপ থাকতে পারেননি ক্রিকেট মহল। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন সচিন তেন্ডুলকরও। সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডও শামির পাশে দাঁড়িয়েছে। সেই বিষয়ে এবার মুখ খুললেন সুনীল গাভাসকর। 

কিংবদন্তি ক্রিকেটার বলেন, ‘যাঁরা এই ধরনের মন্তব্য করছেন, তাঁদের কি আদৌ কোনও গুরুত্ব আছে? মুখোশের আড়ালে থেকে করা এই মন্তব্যগুলোর কোনও তাৎপর্য আছে বলে আমার মনে হয় না। এঁদের কোনও পরিচিতি নেই। ফলে এগুলো নিয়ে মাথা ঘামানোরও কোনও মানে নেই।’ নিউজিল্যান্ড ম্যাচের আগে শনিবার সাংবাদিক সম্মেলনে শামির পাশে দাঁড়িয়ে ছিলেন বিরাট কোহলি। সেই কারণে কোহলির প্রশংসা করেন গাভাসকর। তিনি বলেন, ‘কোহলি এবং ভারতীয় দলের অন্য ক্রিকেটাররা যে ভাবে শামির পাশে দাঁড়িয়েছে, সেটা দেখে ভালো লাগল। এটা খুব ভালো একটা বিষয়। পরস্পরের পাশে থাকাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। গত সপ্তাহে আমরা ঠিক এটাই দেখেছি।’

শনিবার শামির পাশে দাঁড়িয়ে কোহলি বলেন, ‘আমাদের মাঠে নেমে ক্রিকেট খেলার যথেষ্ট কারণ রয়েছে। এক দল মেরুদণ্ডহীন মানুষ কী বলল তাতে আমাদের কিছু যায় আসে না। ওদের কোনও দিন সামনে এসে কিছু বলার ক্ষমতা নেই। মানবিকতার সব থেকে নিচু স্তর দেখতে পেলাম। মানুষ সব থেকে খারাপ কাজ যদি কিছু করতে পারে, সেটা হল ধর্ম নিয়ে কাউকে আক্রমণ করা। ধর্মের ভিত্তিতে কাউকে আলাদা করে দেখার কথা কোনও দিন ভাবিনি। ধর্ম একটা পবিত্র বিষয়। আমাদের ভ্রাতৃত্ব এবং বন্ধুত্ব কখনও নষ্ট হতে দেওয়া উচিত নয়। কখনও এ জিনিস বরদাস্ত করা হবে না।’

বন্ধ করুন