বাংলা নিউজ > ময়দান > টি২০ বিশ্বকাপ > T20 WC: ICC-র নিয়মের বেড়াজালে পাকিস্তান ম্যাচে দলে তিনবার পরিবর্তন, ক্ষোভে ফুঁসছেন কিউয়ি কোচ
কিউয়ি কোচ গ্যারি স্টিড। ছবি- গেটি ইমেজেস।
কিউয়ি কোচ গ্যারি স্টিড। ছবি- গেটি ইমেজেস।

T20 WC: ICC-র নিয়মের বেড়াজালে পাকিস্তান ম্যাচে দলে তিনবার পরিবর্তন, ক্ষোভে ফুঁসছেন কিউয়ি কোচ

  • চোটের কবলে পড়ে বিশ্বকাপ থেকে লকি ফার্গুসন ছিটকে যাওয়ায়, পাকিস্তান ম্যাচ তাঁর পরিবর্তে অ্যাডাম মিলনেকে মাঠে নামতে আগ্রহী ছিল নিউজিল্যান্ড দল।

প্রথম ম্যাচেই পাকিস্তানের বিরুদ্ধে হেরে নিউজিল্যান্ডের বিশ্বকাপের অভিযান মন মতো শুরু হয়নি। উপরন্তু, তারকা ফাস্ট বোলার লকি ফার্গুসন চোট পেয়ে বিশ্বকাপ থেকেই ছিঁটকে যাওয়ায় সমস্যা বেড়েছে। পাকিস্তান ম্যাচে লকির পরিবর্ত হিসাবে দলে অ্যাডাম মিলনেকে চেয়েও সুযোগ দিতে পারেননি কিউয়ি কোচ গ্যারি স্টিড। এরপরেই আইসিসির বিরুদ্ধে নিজের ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন তিনি।

পাকিস্তান ম্যাচের পর কিউয়ি কোচ জানান, ‘আমরা পরিবর্ত হিসাবে (পাক ম্যাচের আগে) অ্যাডাম মিলনেকে দলে নিতে সবরকম চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছি। আমাদের তরফে এটা খুবই হতাশাজনক, কারণ মিলনে একেবারে লাইক ফর লাইক পরিবর্তন (লকির)। আমাদের জানানো হয় যে আইসিসি ম্যাচের দিন এমন খেলোয়াড় পরিবর্তনের ছাড়পত্র দেয় না। এর পিছনে কারণটা ঠিক কি, সেই নিয়ে আমরা আইসিসির থেকে সঠিক ব্যাখা চাই।’

শারজার পিচে পরিসংখ্যানের দিক থেকে ফাস্ট বোলাররা বেশি সফলতা পাচ্ছে, সেই কারণেই কিউয়ি দল মিলনেকে খেলানোর লক্ষ্যে ছিল। তবে ছাড়পত্র না মেলায় দলে মোট তিনবার পরিবর্তন করতে হয় বলেও জানান স্টিড। ‘এই সিদ্ধান্তের ওপর ভর করে আমাদের তিনবার ম্যাচের আগে দল পরিবর্তন করতে হয়। আমরা প্রথমে ভেবেছিলাম আমরা ওকে খেলানোর ছাড়পত্র পেয়ে গেছি, কিন্তু পরে জানতে পারি তা নাকচ করা হয়েছে। ম্যাচের দেড় ঘন্টা আগেও আমাদের সঙ্গে এই বিষয় নিয়ে আইসিসির কথাবার্তা চলছিল।’ বলে জানান স্টিড।

মিলনে দলে থাকলে ম্যাচের ফলাফল অন্য হতো কি না, সেই বিষয়ে নিশ্চিত না হলেও হ্যারিস রউফের উদাহরণ দিয়ে পিচে ফাস্ট বোলাররা যে পুণরায় ফুল ফুটিয়েছেন, তা দেখিয়ে দেন কিউয়ি কোচ। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে হারার পর নিউজিল্যান্ড ভারতের বিরুদ্ধে রবিবার (৩১ অক্টোবর) খেলতে নামবে। দুই দলেই নিজেদের প্রথম ম্যাচে পরাজয়ের পর কার্যত মরণ বাঁচন ম্যাচে জয়ের সরণীতে ফিরতে মরিয়া হয়ে মাঠে নামবে।

বন্ধ করুন