বাংলা নিউজ > ময়দান > ফিরে দেখা ২০২১: কর্তা বনাম ইনভেস্টার, কোচ বদল, দলের খারাপ পারফরমেন্স, বছরটা কেমন গেল SC ইস্টবেঙ্গলের
বছরটা কেমন গেল SC ইস্টবেঙ্গলের
বছরটা কেমন গেল SC ইস্টবেঙ্গলের

ফিরে দেখা ২০২১: কর্তা বনাম ইনভেস্টার, কোচ বদল, দলের খারাপ পারফরমেন্স, বছরটা কেমন গেল SC ইস্টবেঙ্গলের

  • নতুন বছর নতুন আশা নতুন স্বপ্ন নিয়ে শুরু হবে। তবে পিছনের দিকে তাকিয়ে শুরু করব নতুন বছর। ভুল থেকে শিক্ষা নেব। আর তাই ফিরে দেখা। বছরের শুরটা হয়েছিল ISL এ খারাপ ফল দিয়ে, এরপরে কর্তা বনাম ইনভেস্টর, পরে কোচ বদল। আবারও খারাপ পারফরমেন্স অবশেষে নতুন কোচের চাকরি গেল। লাল হলুদের বছরটাকে ফিরে দেখা যাক। 

আইএসএল-এর প্রথম মরশুমের ফল: প্রথমবার ইন্ডিয়ান সুপার লিগে অংশ নিয়েছিল লাল-হলুদ শিবির। মোহনবাগানের কাছে হার দিয়ে লিগ অভিযান শুরু করেছিল তারা। অভিযান শেষ হয় ওড়িশা এফসির কাছে ৬ গোল হজম করে। বিদায়ি ম্যাচেও হারের মুখ দেখে এসসি ইস্টবেঙ্গল। লিগ টেবিলের ৯ নম্বরে থেকে ইন্ডিয়ান সুপার লিগে নিজেদের প্রথম মরশুম শেষ করে লাল-হলুদ শিবির।

ইস্টবেঙ্গল ক্লাব এবং ইনভেস্টরের লড়াই শুরু: শ্রী সিমেন্টের হাত ধরে আইএসএল খেলার সুযোগ পেয়েছিল ইস্টবেঙ্গল। তবে পরবর্তী মরশুমে তাদের আইএসএল খেলা নিয়ে ফের সংশয় দেখা দিয়েছিল। ফের মন কষাকষিতে জড়িয়ে পড়ে ক্লাব এবং ইনভেস্টর। শ্রী সিমেন্টের পক্ষ থেকে লাল হলুদকে ৩১ শে মার্চের ডেডলাইন দেওয়া হয়েছে। তার মধ্যে শ্রী সিমেন্টের পাঠানো চুক্তিতে স্বাক্ষর না করলে বিচ্ছেদের কথা ঘোষণা করে ইনভেস্টররা। সেক্ষেত্রে বড়সড় আর্থিক জরিমানার সম্মুখীন ও হতে পারে ক্লাব।

ইস্টবেঙ্গল ক্লাব এবং ইনভেস্টরের লড়াই শুরু
ইস্টবেঙ্গল ক্লাব এবং ইনভেস্টরের লড়াই শুরু

চুক্তিপত্র নিয়ে আইনজীবীর দ্বারস্থ ইস্টবেঙ্গল: কড়া চিঠি পাঠিয়ে চুক্তিপত্রে সই করার কথা নতুন করে বলে বিনিয়োগকারী সংস্থা। জানা গিয়েছে, বিনিয়োগকারীদের সব শর্ত মানতে পারছেন না লাল-হলুদ কর্তারা। সে কারণেই তাঁরা গড়িমসি করছেন। অবশেষে জানা যায় ইস্টবেঙ্গল কর্তারা চুক্তিপত্র নিয়ে আইনজীবীর দ্বারস্থ হয়েছেন। 

ইস্টবেঙ্গল ক্লাব তাঁবুতে সমর্থকদের বিক্ষোভ: ময়দানের লেসলি ক্লডিয়াস সরণী অগ্নিগর্ভ হয়ে উঠেছিল। ইস্টবেঙ্গেলের দুই গোষ্ঠির মধ্যে উত্তেজনা দেখা যায়। প্রথমে বাক্য বিনিময় পরে হাতাহাতি এবং পরে মারপিটে জড়িয়ে যান দুই পক্ষের সমর্থকেরা। এই ঘটনার জেরে পুলিশ ৪ জনকে গ্রেফতার করে। বিক্ষোভকারীদের সরাতে পুলিশকে লাঠিও চালিয়েছিল।

ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের বিপদের দিনে মোহনবাগান ক্লাবের গেট খুলে দেয়
ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের বিপদের দিনে মোহনবাগান ক্লাবের গেট খুলে দেয়

ইস্টবেঙ্গল সমর্থকদের বিপদের দিনে মোহনবাগান ক্লাবের গেট খুলে দেয়: যখন ইস্টবেঙ্গল তাঁবুর বাইরে পরিস্থিতি অগ্নিগর্ভ হয়ে উঠেছিল, যখন পুলিশ লাঠিচার্জ করছিল, তখন পুলিশের মারের হাত থেকে বাঁচতে উদভ্রান্তের মতো দৌড়চ্ছিলেন লাল-হলুদ সমর্থকেরা। সেই সময়ে মোহনবাগান ক্লাবের দরজা লাল-হলুদ সমর্থকদের জন্য খুলে দেওয়া হয়। যাতে তাঁরা সেখানে আশ্রয় নিতে পারেন। দারুণ এক ছবি দেখেছিল ফুটবল ময়দান।

চুক্তিপত্র বিতর্কে প্রাক্তন খেলোয়াড়দের প্রবেশ
চুক্তিপত্র বিতর্কে প্রাক্তন খেলোয়াড়দের প্রবেশ

চুক্তিপত্র বিতর্কে প্রাক্তন খেলোয়াড়রা প্রবেশ করলেন: ইস্টবেঙ্গল ও শ্রী সিমেন্টের চুক্তিপত্র দেখে ক্লাবের সচিবকে চিঠি লিখলেন প্রাক্তন ক্রিকেটার সম্বরণ বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেছিলেন, তিনি বলেন ক্লাবকে কোম্পানির হাতে হস্তান্তর করার কথা লেখা রয়েছে, যা কখনও বদলানে যাবে না। যা কখনও ক্লাব কর্তারা ফেরত পাবেন না।

চুক্তিপত্র বিতর্কে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হস্তক্ষেপ: চরম ডামাডোলের মধ্যেও লাল-হলুদ সমর্থকদের আশা জোগালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। জানালেন, ইস্টবেঙ্গল, মহামেডান স্পোর্টিংকেও ইন্ডিয়ান সুপার লিগে (আইএসএল) দেখতে চান। নেতাজি ইন্ডোরে ‘খেলা হবে’ প্রকল্পের উদ্বোধনে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মোহনবাগান আইএসএলে খেলছে, চুক্তি ঠিক আছে। নো প্রবলেম। ইস্টবেঙ্গলের কি মনটা একটু খারাপ খারাপ? চিন্তা নেই। হয়ে যাবে। একটু চুক্তি-টুক্তি হচ্ছে। একটি ঝগড়াঝাটি হচ্ছে, একটু মনমালিন্য হচ্ছে। আমি চাই ইস্টবেঙ্গলও আইএসএলে খেলুক।’

চুক্তিপত্র বিতর্কে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হস্তক্ষেপ
চুক্তিপত্র বিতর্কে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হস্তক্ষেপ

ট্রান্সফার ব্যানের কবলে ইস্টবেঙ্গল: চুক্তি জট কাটছিল না। তার মধ্যেই ফের বড় ধাক্কা খেয়েছিল ইস্টবেঙ্গল। লাল-হলুদের আবার ট্রান্সফার ব্যান করা হল। এ বার এআইএফএফ-এর তরফে এসসি ইস্টবেঙ্গলের ট্রান্সফার ব্যান করা হয়। জানা যায়, পিন্টু মাহাতো, রক্ষিত ডাগর এবং আভাস থাপাদের বকেয়া বেতন না মেটানোর জন্যই ট্রান্সফার ব্যানের কবলে পড়তে হল এসসি ইস্টবেঙ্গলকে। 

শেষ পর্যন্ত কেটে গেল জট: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সামনে একেবারে হাসিমুখে হাত মিলিয়ে শ্রী সিমেন্ট এবং ইস্টবেঙ্গল কর্তারা জানিয়ে দেন, এবার আইএসএলে খেলছেন তাঁরা। নবান্নে শ্রী সিমেন্ট এবং ইস্টবেঙ্গল কর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী। বৈঠকের পর মমতা জানিয়েছিলেন, ‘যেটা নিয়ে অনিশ্চয়তা চলছিল, (সেটা কেটে গিয়েছে)। আমিও খুব রেগে গিয়েছিলাম। আমি ওদের কাছে একটা অনুরোধ করেছিলাম।’ সঙ্গে জানিয়ে দেন, ইস্টবেঙ্গলের সমস্যা মিটে গিয়েছে। কেটে গিয়েছে জট। ইস্টবেঙ্গল আইএসএলে খেলবে। ‘খেলা হবে’।

কেটে গেল ক্লাবের জট
কেটে গেল ক্লাবের জট

বদলে গেল এসি ইস্টবেঙ্গলের কোচ: ইস্টবেঙ্গলের ক্লাব বনাম ইনভেস্টর চুক্তি জট কাটে। তারপরে আর একটুও সময় নষ্ট না করে দলগঠনের কাজে মরিয়া হয়ে নেমে পড়েন কতৃপক্ষ। তবে তার মাঝেই বদলে যায় এসি ইস্টবেঙ্গলের কোচ। বদলে দেওয়া হয় লাল হলুদ কোচকে। রবি ফাওলারের জায়গায় এসসি ইস্টবেঙ্গলের নতুন কোচের দায়িত্ব নিচ্ছেন রিয়াল মাদ্রিদের 'বি' দলের কোচ ম্যানুয়েল 'মানোলো' দিয়াজ। এসসি ইস্টবেঙ্গলের তরফ থেকে এই বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।

চলতি আইএসএল-এর প্রথম ডার্বিতে হার
চলতি আইএসএল-এর প্রথম ডার্বিতে হার

চলতি আইএসএল-এর প্রথম ডার্বিতে হার: ডার্বির লড়াইটা দুই দলের কাছেই আত্মসম্মানের লড়াই ছিল। কিন্তু সেই লড়াই একেবারে দেওয়ালে পিঠ ঠেকে গিয়েছিল এসসি ইস্টবেঙ্গলের। হতশ্রী ফুটবল খেলে আরও একটি ডার্বি হেরে যায় লাল হলুদ ব্রিগেড। ৩-০ জয় ছিনিয়ে নিল রয় কৃষ্ণরা। আইএসএলে ডার্বি জয়ের হ্যাটট্রিক করল সবুজ-মেরুন ব্রিগেড। গোল করলেন রয় কৃষ্ণ, মনবীর সিং, লিস্টন কোলাসো। ম্যাচের সেরা হলেন জনি কাউকো।

চাকরি গেল কোচ ম্যানুয়েল দিয়াজের
চাকরি গেল কোচ ম্যানুয়েল দিয়াজের

চাকরি গেল কোচ ম্যানুয়েল দিয়াজের: এসসি ইস্টবেঙ্গলের ম্যানুয়েল দিয়াজের ভবিষ্যৎ নিয়ে বহু দিন ধরেই জল্পনা চলছিল। বছরের একেবারে শেষে এসে সব জল্পনার অবসান ঘটল। লাল-হলুদ থেকে বিদায়ের ঘণ্টা বেজে গেল দিয়াজের। চাকরি গেল তাঁর। যদিও আন্তোনিও লোপেজ হাবাসের মতোই নাকি দিয়াজও নিজেই পদত্যাগ করেছেন,  এমনটাই অন্তত জানা গিয়েছে লাল-হলুদ ম্যানেজমেন্টের তরফে।

বন্ধ করুন