বাংলা নিউজ > ময়দান > ২০১১ বিশ্বকাপ জয়ে বড় ভূমিকা রয়েছে সৌরভেরও, দাবি প্রজ্ঞান ওঝার
যুবরাজ সিং এবং সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। ছবি: গেটি ইমেজেস।
যুবরাজ সিং এবং সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। ছবি: গেটি ইমেজেস।

২০১১ বিশ্বকাপ জয়ে বড় ভূমিকা রয়েছে সৌরভেরও, দাবি প্রজ্ঞান ওঝার

  • মহেন্দ্র সিং ধোনির অধিনায়কত্বে ২৮ বছর পর ভারত বিশ্বকাপ জয়ের স্বাদ পেয়েছিল। ১৯৮৩-র বিশ্বকাপজয়ী দলের অধিনায়ক কপিল দেবের পর এই গৌরব রয়েছে একমাত্র ধোনির।

২০১১ বিশ্বকাপ জয়ের পিছনে ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়েরও বড় ভূমিকা রয়েছে। এমনটাই মনে করেন ভারতের প্রাক্তন স্পিনার প্রজ্ঞান ওঝা। কিন্তু ২০০৮ সালে সৌরভ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছিলেন, তার পরে কী ভাবে বিশ্বকাপ জয়ের পিছনে সৌরভের হাত থাকতে পারে?

মহেন্দ্র সিং ধোনির অধিনায়কত্বে ২৮ বছর পর ভারত বিশ্বকাপ জয়ের স্বাদ পেয়েছিল। ১৯৮৩-র বিশ্বকাপজয়ী দলের অধিনায়ক কপিল দেবের পর এই গৌরব রয়েছে একমাত্র ধোনির। সেখানে অধিনায়ক সৌরভের কৃতিত্ব কোথা থেকে আসছে? এই প্রশ্নের ব্যখ্যা দিতে গিয়ে প্রজ্ঞান ওঝা বলেছেন, ‘আমি মনে করি, একজন মানুষ রয়েছেন, যিনি অবসর নেওয়ার পরও ভারতকে বিশ্বকাপ জিততে সাহায্য করেছেন, তিনি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। ওই দলে ৫-৬ জন সদস্য ছিলেন, যাঁরা কিন্তু সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের হাতেই তৈরি। সে কারণেই আমি বলি, সব সময় প্রসেসের উপর বিশ্বাস রাখা উচিত।’

২০১১ সালে ভারতের বিশ্বকাপ জয়।
২০১১ সালে ভারতের বিশ্বকাপ জয়।

এটা ঠিক যে সৌরভ যখন অধিনায়ক ছিলেন, সেই সময় একঝাঁক তরুণকে দলে সুযোগ দিয়েছিলেন। তার মধ্যে মহেন্দ্র সিং ধোনি যেমন নিজে রয়েছেন, তেমনই রয়েছেন বীরেন্দ্র সেহওয়াগ, যুবরাজ সিং, জাহির খান, আশিস নেহারারা। যাঁদের ছাড়া বিশ্বকাপ জেতা সম্ভব ছিল না। সে অর্থে দেখতে গেলে বিশ্বকাপ জয়ের ভিতটা কিন্তু সৌরভের হাত ধরেই তৈরি হয়েছিল। ভারতীয় ক্রিকেটের সাফল্যের রাস্তাটাও তিনি মজবুত করে দিয়েছিলেন। সবচেয়ে বড় কথা ভারতকে জেতার নেশা ধরিয়েছিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ই। যার ফল ২০১১ সালে হাতেনাতে পেয়েছিল ভারত।

বন্ধ করুন