১৪১-৬। কটকে রঞ্জি ট্রফির কোর্য়াটার ফাইনালের প্রথম দিনেই রীতিমত বিপাকে পড়ে গিয়েছিল বাংলা। সূর্যকান্ত প্রধান ও কাঁওয়ার সিং চৌহানের দৌলতে তখন রীতিমত চালকের আসনে ওড়িশা। সেখানে থেকে ১৬৭ রানের অপরাজিত জুটিতে ম্যাচের মোড় ঘোরালেন বর্ষীয়ান অনুষ্টুপ মজুমদার ও এই মরশুমে দারুন ফর্মে থাকা শাহবাজ আহমেদ। প্রখম দিনের শেষে তাই বাংলা ৬ উইকেট হারিয়ে ৩০৮।

দিনের শুরুটা কিন্তু এমন হয়নি। টসে জিতে ঘরের মাটিতে ফিল্ডিং নেয় ওড়িশা। দলে অন্তর্ভুক্ত হয়েছিলেন ঈশান পোড়েল ও নীলকন্ঠ দাস। প্রথম থেকেই ব্যাকফুটে চলে যায় বাংলা। রান পাননি ওপেনাররা। ঈশ্বরন ৭ ও কৌশিক ৯ করে আউট হন। এরপর অর্ণব নন্দী (২৪) কিছুটা প্রতিরোধ গড়ে তুললেও মনোজ তেওয়ারি (৪) ও অভিষেক রমন (১) অল্প সময় আউট হন।

এরপর শ্রীবত্স গোস্বামীর (৩৪) সঙ্গে জুটিতে বাংলাকে ম্যাচে ফেরান অনুষ্টুপ। দিনের শেষে তিনি অপরাজিত ১৩৬ রানে। ২০টি চার মেরেছেন এই ইনিংসে। অন্যদিকে ১৪টি চার খচিত অপরাজিত ৮২ শাহবাজের। একসময় অঘটনের আশা দেখা ওড়িশার কাজ অনেকটাই শক্ত করে দিলেন এই দুই ব্যাটসম্যান। হোম টিমের জন্য সবচেয়ে সফল কাঁওয়ার চৌহান। ৫২ রান দিয়ে দুই উইকেট নিয়েছেন তিনি। অন্যদিকে ২ উইকেট নিলেও ৯৬ রান গলিয়েছেন সূর্যকান্ত। একটি করে উইকেট পেয়েছেন বসন্ত মোহান্তি ও দেবব্রত প্রধান।

পিচে বোলারদের জন্য জান আছে। সেটি ব্যবহার করতে পারলে সরাসরি এই ম্যাচের ফলাফল হওয়ার সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যায় না। সেখানে আগামিকাল বড় দায়িত্ব বাংলার বোলারদের ওপর। টপ অর্ডারের ব্যর্থতাকে অতিক্রম করে সম্মানজনক স্কোরে পৌঁছানোর কাজটি করে দিয়েছে দুই ব্যাটার।









বন্ধ করুন