বাংলা নিউজ > ময়দান > বক্সিং ডে টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকার হাতে ইনিংস পরাজয় শ্রীলঙ্কার

দক্ষিণ আফ্রিকার প্রথম ইনিংসের ব্যাটিংয়ের পরে সুপারস্পোর্টস পার্কে শ্রীলঙ্কার হয়ে দেওয়াল লিখনটা একেবারে স্পষ্ট ছিল‌‌। বাস্তবে হলও তাই। চরম লজ্জার সম্মুখীন হতে হল চান্দিমালদের। যদিও চোটের কারণে দ্বিতীয় টেস্টে ব্যাট করতে পারেননি ধনঞ্জয় ডি সিলভার মতন গুরুত্বপূর্ণ ব্যাটসম্যান।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সেঞ্চুরিয়ান টেস্টের প্রথম ইনিংসে ব্যক্তিগত ১৯৯ রানে আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরেছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার প্রাক্তন অধিনায়ক ফাফ ডু-প্লেসিস। তবে ডু-প্লেসিসের আক্ষেপ প্রোটিয়া বাহিনী দূর করে দিল ম্যাচটি জিতে। ইনিংস ও ৪৫ রানে সিরিজের প্রথম টেস্টে জয় তুলে নিয়ে দুই ম্যাচের সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল কুইন্টন ডি ককের দল।

টস জিতে প্রথমে ব্যাট করে প্রথম ইনিংসে ৩৯৬ রান সংগ্রহ করেছিল শ্রীলঙ্কা। চান্ডিমাল ৮৫, ডি সিলভা (আহত অবসর ) ৭৯ ও শানাকা অপরাজিত ৬৬ রান করেন। এরপর ডু-প্লেসিসের ১৯৯ , ডিন এলগারের ৯৫, টেম্বা বাভুমার ৭১ ,কেশভ মহারাজের ৭৩ রানের দৌলতে ৬২১ রান করে। ফলে প্রথম ইনিংস থেকে ২২৫ রানের লিড পায় প্রোটিয়ারা। ২২৫ রানে পিছিয়ে থেকে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে তৃতীয় দিন শেষে ২ উইকেটে ৬৫ রান তুলেছিল শ্রীলঙ্কা। ইনিংস হার এড়াতে আরও ১৬০ রানের প্রয়োজন ছিল তাদের। কিন্তু চতুর্থ দিন প্রথম সেশনের পরেই দক্ষিণ আফ্রিকার বোলারদের দাপটে ১৮০ রানে শেষ যায় শ্রীলঙ্কার ইনিংস। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬৪ রান করেন কুশল পেরেরা। বানিদু হাসারাঙ্গার করেন ৫৯ রান। দক্ষিণ আফ্রিকার এনগিডি-নর্ৎজে -মুল্ডার-সিপামলা ২টি করে উইকেট পান।  ৩ জানুয়ারি থেকে জোহানেসবার্গে শুরু হবে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট। সেখানে চান্ডিমালরা কামব্যাক ঘটাতে পারেন কিনা এখন সেটাই দেখার।

বন্ধ করুন