বাড়ি > ময়দান > প্রতিবাদী হুঙ্কার টাইগারের, জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকাণ্ডের নিন্দায় সুর চড়ালেন জর্ডন
টাইগার উডস ও মাইকেল জর্ডন। ছবি- রয়টার্স/এপি।
টাইগার উডস ও মাইকেল জর্ডন। ছবি- রয়টার্স/এপি।

প্রতিবাদী হুঙ্কার টাইগারের, জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকাণ্ডের নিন্দায় সুর চড়ালেন জর্ডন

  • এই মর্মান্তিক ট্র্যাজেডি সমস্ত সীমা ছাড়িয়ে গিয়েছে, দাবি গল্ফ কিংবদন্তির।

প্রতিবাদের সুর ক্রমশ জোরালো হচ্ছে। শুধু আমেরিকায় নয়, বরং তা ক্রমশ ছড়িয়ে পড়ছে সারা বিশ্বে। সমাজের সর্বস্তরের মানুষ ধিক্কার জানাচ্ছেন। পিছিয়ে থাকেননি তারকা ক্রীড়াবিদরা। একের পর এক মহাতারকারা নিন্দায় সরব হচ্ছেন আমেরিকার মিনিয়াপোলিসে পুলিশি হেফাজতে জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর ঘটনার।

গল্ফ তারকা টাইগার উডস ও বাস্কেটবলের কিংবদন্তি মাইকেল জর্ডন রীতিমতো সুর চড়িয়েছেন বর্ণবিদ্বেষের বিরুদ্ধে। জর্ডন তো স্পষ্ট জানিয়ে দেন যে, অনেক হয়েছে। এবার বদল দরকার।

টাইগার উডস সোশ্যাল মিডিয়ায় মুখ খোলেন এই হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদে। ৪৪ বছর বয়সী গল্ফ তারকা টুইটারে লেখেন, ‘আইন প্রয়োগকারীদের জন্য আমার সর্বদা গভীর শ্রদ্ধা ছিল। তাঁদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় সযত্নে উপলব্ধি করার কোথায় কীভাবে বল প্রয়োগ করতে হবে। এই মর্মান্তিক ট্র্যাজেডি সমস্ত সীমা ছাড়িয়ে গিয়েছে।’

উডসের আগেই অবশ্য মুখ খুলেছেন জর্ডন। তিনি সোশ্যাল মিডিয়ায় জানিয়েছেন, ‘আমি দেখতে পাচ্ছি, আমি উপলব্ধি করছি সবার যন্ত্রণা, অবিচার ও হতাশা। আমার বর্ণের যে সব মানুষ বর্ণবিদ্বেষের শিকার হচ্ছেন এবং যাঁরা এর প্রতিবাদ করছেন, আমি তাঁদের পাশে রয়েছি। অনেক হয়েছে।’

জর্ডন শান্তিপূর্ণভাবে প্রতিবাদের পথে হাঁটার অনুরোধ করেছেন সকলকে। যদি তাতে কাজ না হয়, তবে ভোটাধিকার প্রয়োগ করে সিস্টেম বদলের ডাকও দিয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত সোমবার মিনিয়াপোলিসে এক পুলিশকর্মী টানা ৮ মিনিট হাঁটু দিয়ে গলা টিপে রাখেন জর্জ ফ্লয়েড নামক অফ্রিকান-আমেরিকান কৃষ্ণাঙ্গ ব্যক্তির। যার ফলে শ্বাসরোধ হয়ে মৃত্যু হয় ফ্লয়েডের। এই ঘটনার প্রতিবাদে উত্তাল হয় আমেরিকা। যার রেশ ছড়িয়েছে সারা বিশ্বে।

বন্ধ করুন