বাংলা নিউজ > ময়দান > 'সরকারি ভাবে অবসর ঘোষণা না করলেও দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে আমার খেলা শেষ': ক্রিস মরিস
জাতীয় দলের জার্সিতে না খেলার ইঙ্গিত ক্রিস মরিসের।
জাতীয় দলের জার্সিতে না খেলার ইঙ্গিত ক্রিস মরিসের।

'সরকারি ভাবে অবসর ঘোষণা না করলেও দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে আমার খেলা শেষ': ক্রিস মরিস

  • মরিস জানিয়ে দিলেন, দক্ষিণ আফ্রিকার জাতীয় দলের হয়ে আর তাঁর ক্রিকেট খেলা হবে না। যদিও তিনি এই মুহূর্তে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর সরকারি ভাবে নিচ্ছেন না। তিনি আরও স্পষ্ট করে জানিয়ে দেন, তাঁর এ বার ফোকাস ঘরোয়া ক্রিকেট এবং সারা বিশ্বের টি-২০ ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে খেলা।

শুভব্রত মুখার্জি: সদ্য শেষ হওয়া আইপিএলের ইতিহাসে বা বলা ভাল ১৩ বছরের আইপিএলের ইতিহাসে সব থেকে দামী ক্রিকেটার ছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিস মরিস। রাজস্থান রয়্যালস দলের তরফে তাঁকে দলে নেওয়া হয়েছিল নিলামের মধ্যে দিয়ে। সেই মরিস জানিয়ে দিলেন, দক্ষিণ আফ্রিকার জাতীয় দলের হয়ে আর তাঁর ক্রিকেট খেলা হবে না। যদিও তিনি এই মুহূর্তে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর সরকারি ভাবে নিচ্ছেন না। তিনি আরও স্পষ্ট করে জানিয়ে দেন, তাঁর এ বার ফোকাস ঘরোয়া ক্রিকেট এবং সারা বিশ্বের টি-২০ ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে খেলা।

মরিস আরও জানান যে তাঁর এই সিদ্ধান্তের কথা ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকা জানে। তিনি এক জনপ্রিয় স্পোর্টস ওয়েবসাইটকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন, ‘ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে আমার খেলার দিন শেষ হয়েছে। আমি সেই ব্যক্তি না, যিনি সব কিছু সরকারি ভাবে জানাবেন। এই ভাবে অবসর ঘোষণা আমার পছন্দ নয়। ক্রিকেট বোর্ড জানে আমার অবস্থান। আমি নিজে জানি আমার অবস্থান। ক্রিকেট দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে আমার দিন ফুরিয়েছে। সেটা আমার মতন ওরাও জানে।’

নিজের এই সিদ্ধান্তের পিছনের যুক্তি নিয়ে কথা বলতে গিয়ে মরিস দাবি করেন, ‘আমার তরফ থেকে এই ভাবে আমি কোন সরকারি ঘোষণা করব না। তবে আমি জানি আমার সময় শেষ হয়েছে। আমি ঘরোয়া ক্রিকেটে মনোনিবেশ করব। সেখানেই আমার দলকে সবটা উজাড় করে দেব। দক্ষিণ আফ্রিকার প্রতিনিধিত্ব করতে পেরে আমি গর্বিত। তিন ফর্ম্যাটেই আমার সৌভাগ্য হয়েছিল আমার দেশকে প্রতিনিধিত্ব করার।’ দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে মরিস ৪টি টেস্ট, ৪২টি ওয়ানডে এবং ২৩টি টি-২০ প্রতিযোগিতায় খেলেছেন।

বন্ধ করুন