বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Purulia: বিধায়কের বিরুদ্ধে ফেসবুকে পোস্ট করাকে কেন্দ্র করে TMC-BJP সংঘর্ষ পুরুলিয়ায়
তৃণমূল ও বিজেপি–র পতাকা। ফাইল ছবি
তৃণমূল ও বিজেপি–র পতাকা। ফাইল ছবি

Purulia: বিধায়কের বিরুদ্ধে ফেসবুকে পোস্ট করাকে কেন্দ্র করে TMC-BJP সংঘর্ষ পুরুলিয়ায়

  • তৃণমূল কর্মী তুষার অবস্তির অভিযোগ, তিনি রেসিডেন্ট সার্টিফিকেটের জন্য পুরুলিয়ার বিজেপি বিধায়ক সুদীপ মুখোপাধ্যায়কে ফোন করেছিলেন। কিন্তু, বিধায়ক জানিয়ে দেন তিনি কলকাতায় রয়েছেন।

বিজেপি বিধায়কের বিরুদ্ধে ফেসবুকে পোস্ট করেছিলেন তৃণমূল কর্মী। সে ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়াল পুরুলিয়ায়। বিজেপি এবং তৃণমূল কর্মীদের সংঘর্ষে বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে। তাদের চিকিৎসা চলছে হাসপাতালে। এই ঘটনায় তৃণমূল বিজেপির বিরুদ্ধে হামলার অভিযোগ তুলেছে। অন্যদিকে, তৃণমূলের বিরুদ্ধে পাল্টা হামলার অভিযোগ তুলেছে বিজেপি। তৃণমূল কর্মী তুষার অবস্তির দোকান ভাঙচুর চালানো হয়েছে বলে অভিযোগ। ঘটনার পর এলাকায় বিশাল পুলিশবাহিনী পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

তৃণমূল কর্মী তুষার অবস্তির অভিযোগ, তিনি রেসিডেন্ট সার্টিফিকেটের জন্য পুরুলিয়ার বিজেপি বিধায়ক সুদীপ মুখোপাধ্যায়কে ফোন করেছিলেন। কিন্তু, বিধায়ক জানিয়ে দেন তিনি কলকাতায় রয়েছেন। এরপরে নিজের ফেসবুক পোস্টে তুষার লেখেন, ‘আমাদের এমএলএ কাল্টু বাবু এখন এমপির মতো হয়ে গিয়েছেন। ভোট দিয়েছেন পুরুলিয়ার মানুষ আর তিনি কলকাতার নেতাদের পিছনে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। আমাদের কপালটাই খারাপ। একটা রেসিডেন্টও দেবার মুরোদ নেই।’ অভিযোগ এই পোস্টের পরে বিধায়কের দলবল তুষারের দোকানে চড়াও হয়ে দোকান ভাঙচুর করে এবং তাকে মারধর করে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে তৃণমূল এবং বিজেপির কর্মীরা।

যদিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন বিজেপির মন্ডল সভাপতি সত্যজিৎ অধিকারী তিনি বলেন, ‘তুষারের লোকজনই বিজেপি কর্মীদের মারধর করেছে। তাদের বেশ কয়েকজন কর্মী তৃণমূল কর্মীদের মারে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। যদিও এ নিয়ে কোনও মন্তব্য করতে চাননি বিজেপি বিধায়ক।

এ বিষয়ে তৃণমূলের পুরুলিয়া পুরসভার পুর প্রধান নব্যেন্দু মাহালি জানান, ‘বিজেপি বিধায়কের বিরুদ্ধে এরকম অনেক অভিযোগ রয়েছে। ওরাই তৃণমূল কর্মীদের মারধর করেছে। বিষয়টি পুরুলিয়া সদর থানার পুলিশ খতিয়ে দেখছে।’

বন্ধ করুন