বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > মেদিনীপুরে প্রয়াত স্বাধীনতা সংগ্রামী যতীন্দ্রনাথ দাস, ‘শ্রদ্ধাও জানাল না সরকার’

মেদিনীপুরে প্রয়াত স্বাধীনতা সংগ্রামী যতীন্দ্রনাথ দাস, ‘শ্রদ্ধাও জানাল না সরকার’

স্বাধীনতা সংগ্রামী যতীন্দ্রনাথ দাস। ছবি ফেসবুক।

গত বুধবার সন্ধে ৬: ৫০টায় তাঁর জীবনাবসান ঘটে। বেশ কয়েকদিন ধরেই তাঁর শারীরিক অবস্থা ভালো ছিল না। তাঁকে অক্সিজেন সাপোর্টে রাখা হয়েছিল। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ১০৫ বছর। তাঁর স্ত্রী ঊষারানী দাস আগেই মারা গিয়েছেন। বর্তমানে স্বাধীনতা সংগ্রামীর পরিবারের রয়েছেন তাঁর তিন পুত্র এবং চার কন্যা।

‘ভারত ছাড়ো’ আন্দোলনের ডাক দিয়েছিলেন মহাত্মা গান্ধী। সেই আন্দোলন চলাকালীন ২৯ সেপ্টেম্বর মেদিনীপুরের সমস্ত থানা দখল করার পরিকল্পনা করেছিলেন স্বাধীনতা সংগ্রামীরা। বহু স্বাধীনতা সংগ্রামীর মতো সেই আন্দোলনে যোগ দিয়ে তৎকালীন মেদিনীপুরের ভগবানপুর থানা দখল করার চেষ্টা করেছিলেন যতীন্দ্রনাথ দাসও। এমনকী সেই সময় তিনি গুলিবিদ্ধও হয়েছিলেন। গত বুধবার শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ওই স্বাধীনতা সংগ্রামী। বার্ধক্যজনিত সমস্যার কারণে ভগবানপুর ২ নম্বর ব্লকের বামুনিয়া গ্রামে নিজের বাড়িতেই তাঁর জীবনাবসান হয়েছে। তবে স্বাধীনতা সংগ্রামীকে শ্রদ্ধা জানাতে স্থানীয় প্রশাসনকে দেখা যায়নি বলে অভিযোগ ওঠেনি। তাই নিয়ে তৈরি হয়েছে বিতর্ক।

আরও পড়ুন: আলিপুর মিউজিয়ামে খাবারের মেনুর নামকরণ স্বাধীনতা সংগ্রামীদের নামে! বিতর্ক তুঙ্গে

পারিবারিক সূত্রে জানা গিয়েছে, গত বুধবার সন্ধ্যা ৬ টা ৫০ মিনিটে তাঁর জীবনাবসান হয়। বেশ কয়েকদিন ধরেই তাঁর শারীরিক অবস্থা ভালো ছিল না। তাঁকে অক্সিজেন সাপোর্টে রাখা হয়েছিল। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ১০৫ বছর। তাঁর স্ত্রী ঊষারানি দাস আগেই মারা গিয়েছেন। স্বাধীনতা সংগ্রামে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা গ্রহণ করেছিলেন যতীন্দ্রনাথ দাস। স্কুলে পড়ার সময় থেকে তিনি বিপ্লবী ভাবাদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে উঠেছিলেন। তিনি যোগ দিয়েছিলেন  স্বাধীনতা সংগ্রামে। ভারত ছাড়ো আন্দোলনের সময় ভগবানপুর থানা দখলের ক্ষেত্রে একেবারে মিছিলের সামনের সারিতে ছিলেন এই স্বাধীনতা সংগ্রামী।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, ভগবানপুর থানা দখল অভিযানকে কেন্দ্র করে মিছিলে গুলি চালিয়েছিল ব্রিটিশরা। তাতে শহিদ হয়েছিলেন ১৭ জন স্বাধীনতা সংগ্রামী। যতীন্দ্রনাথের মাথায়ও গুলি লেগেছিল। ফলে তিনি গুরুতরভাবে জখম হয়েছিলেন। তবে তাঁকে তুলে নিয়ে গিয়ে অন্যান্য স্বাধীনতা সংগ্রামীরা হাসপাতালে ভর্তি করলে পরের দিন অস্ত্রোপচার করে তাঁর মাথা থেকে গুলি বের করে দিয়েছিলেন চিকিৎসকরা। পরে ধীরে-ধীরে তিনি সুস্থ হয়ে ওঠেন। পরে পুলিশের হাতে ধরা পড়েছিলেন। তাতে তিন বছর কারাদণ্ড হয়েছিল তাঁর। দেশ স্বাধীন হওয়ার কিছুদিন আগেই তিনি জেল থেকে ছাড়া পেয়েছিলেন। 

পারিবারিক সূত্রে জানা গিয়েছে, দেশ স্বাধীন হওয়ার পরে যতীন্দ্রনাথবাবু একটি পোস্ট অফিসে সাধারণ কর্মী হিসেবে কাজে যোগদান করেছিলেন। সেই আয়েই তাঁর সংসার চলত। স্বাধীনতা বা শিক্ষা সংক্রান্ত অনুষ্ঠানে তিনি যোগ দিতেন। এলাকার সকলের সঙ্গেই মেলামেশা করতেন যতীন্দ্রনাথবাবু। 

বাংলার মুখ খবর
বন্ধ করুন

Latest News

২০ বছরের দাম্পত্য, নীলাঞ্জনাকে কবে ডিভোর্স দিচ্ছেন? প্রশ্নের জবাবে যিশু যা বললেন মাউথ ফ্রেশনার খেয়েই মুখ থেকে উঠল রক্ত, শুরু বমি! রেস্তোরাঁয় অসুস্থ ৫ জন, কী ছিল? হাওড়া পুর এলাকায় বন্ধ থাকবে জল সরবরাহ, সমস্ত ওয়ার্ডের বিজ্ঞপ্তি, দিনটা জানুন স্মৃতি-পেরির যুগলবন্দির সঙ্গে, বোলারদের মরণপণ লড়াই,UPW-কে ২৩ রানে হারাল RCB পরমের প্রাক্তন ও বর্তমান পরস্পরকে জড়িয়ে! অনুপমের তৃতীয় বিয়ের মাঝে চর্চায় পিয়া ‘আরও ২জন তৈরি, আসন খুঁজছেন,’ আদালতেই বিচারপতি গাঙ্গুলি প্রসঙ্গ টেনে বললেন কল্যাণ এয়ারপোর্টে গিয়েই মোদীর সঙ্গে দেখা করলেন গডকরি, নাম নেই প্রথম প্রার্থী তালিকায় ডেল স্টেইনের বদলি ঘোষণা করল SRH, হায়দরাবাদে যোগ দিলেন ভেত্তোরির এক সময়ের সতীর্থ এক টিকিটেই হাওড়া থেকে রুবি, ভাড়া ৫০ টাকা! বাকি স্টেশনে কত লাগবে? জানাল মেট্রো শেষ ওভারে ২ উইকেট পড়ল বাংলাদেশের, ব্যর্থ হল জাকেরের লড়াই,৩ রানে জিতল শ্রীলঙ্কা

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.