বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > সোনাচুরি কাণ্ডে নাম জড়িয়েছে দেবের প্রতিনিধির, তৃণমূল নেতার বাড়িতে গুজরাত পুলিশ
সাংসদ অভিনেতা দেবের প্রতিনিধির নাম জড়িয়েছে সোনাচুরিকাণ্ডে
সাংসদ অভিনেতা দেবের প্রতিনিধির নাম জড়িয়েছে সোনাচুরিকাণ্ডে

সোনাচুরি কাণ্ডে নাম জড়িয়েছে দেবের প্রতিনিধির, তৃণমূল নেতার বাড়িতে গুজরাত পুলিশ

  • তাঁর স্ত্রীর দাবি, দলের কাজে স্বামী অন্যত্র গিয়েছেন। তবে গোটা ঘটনায় ব্যপক শোরগোল পড়েছে রাজনৈতিক মহলে।

মাস কয়েক আগে গুজরাতের একটি সোনার দোকান থেকে প্রায় ২ কেজি সোনা চুরি যায় বলে অভিযোগ। গুজরাত পুলিশ তদন্তে নেমে ঘাটালে এসেছিল। তাপস মণ্ডল নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে সেই সময় ঘাটালে নিয়ে গিয়েছিল গুজরাত পুলিশ। এদিকে সেই সোনাকাণ্ডে এবার নাম জড়াল অভিনেতা সাংসদ দেবের প্রতিনিধির। সাংসদের ঘাটালের প্রতিনিধি রামপদ মান্নার বাড়িতে এদিন যায় গুজরাত পুলিশের টিম। রামপদর স্ত্রী তথা ঘাটাল পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি রূপা মান্নার সঙ্গে কথা বলেন গুজরাতের পুলিশ কর্মীরা। এদিকে রামপদ সেই সময় বাড়িতে ছিলেন না। তাঁর স্ত্রীর দাবি, দলের কাজে স্বামী অন্যত্র গিয়েছেন। তবে গোটা ঘটনায় ব্যপক শোরগোল পড়েছে রাজনৈতিক মহলে। 

এদিকে ঘাটালের প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ক শঙ্কর দলুইয়ের দাবি, আইনের উপরে কেউ নয়। যত বড় মাপের নেতা হোক না কেন, দোষ করলে শাস্তি পেতেই হবে। তবে রামপদ মান্নার সঙ্গে যোগাযোগ করা যায়নি।

কিন্তু কেন রামপদ মান্নার নাম এই ঘটনায় জড়িয়েছে? সূত্রের খবর, ধৃত তাপসকে জেরা করেই পুলিশ রামপদ মান্নার কথা জানতে পারে। তাপস মণ্ডলকে জেরা করে পুলিশ জানতে পেরেছে ৫০ লাখ টাকা ও ৯৭০ গ্রাম সোনা সে রামপদ মান্না নামে এক ব্যক্তিকে দিয়েছিল। তার জেরেই গুজরাত পুলিশ হানা দেয় ওই তৃণমূল নেতার বাড়িতে। আর সেই নেতা আবার অন্য কেউ নন, একেবারে খোদ সাংসদ দেবের প্রতিনিধি।

 

বন্ধ করুন