বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বাড়ি–ঘর–মসজিদ এখন জলের তলায়, গ্রামবাসীদের হাহাকার শোনা যাচ্ছে মানিকচকে
গঙ্গাপারে ভাঙন। ছবি : সংগৃহীত
গঙ্গাপারে ভাঙন। ছবি : সংগৃহীত

বাড়ি–ঘর–মসজিদ এখন জলের তলায়, গ্রামবাসীদের হাহাকার শোনা যাচ্ছে মানিকচকে

  • গঙ্গার ভয়াবহ ভাঙনে ভেসে যাচ্ছে এলাকার ঘর–বাড়ি। বাধ্য হয়ে বাড়ি ছেড়ে পালাচ্ছে মানুষজন।

ভাঙনের জেরে তলিয়ে যাচ্ছে ঘর বাড়ি থেকে মসজিদ। পরিস্থিতি এমন জায়গায় পৌঁছেছে যে, গোটা গ্রামকে চেনার উপায় নেই। এভাবেই যাচ্ছে মালদহের গ্রাম মানিকচক। গঙ্গার ভয়াবহ ভাঙনে ভেসে যাচ্ছে এলাকার ঘর–বাড়ি। বাধ্য হয়ে বাড়ি ছেড়ে পালাচ্ছে মানুষজন। তবে এখনও প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোনও তৎপরতা দেখা যাচ্ছে না বলেই অভিযোগ।

নদী ভাঙনে প্রায় ৩০ হাজার পরিবার এখন ক্ষতির সম্মুখীণ। বহু পরিবার আতঙ্কে ঘরছাড়া। এখন সব অসহায় পরিবার। বালুটোলা গ্রাম তলিয়ে যাচ্ছে নদীর গর্ভে। চারিদিকে শুধু জল আর জল। সঙ্গে মানুষের হাহাকার। এমনকী একটি মসজিদ তলিয়ে গিয়েছে। গ্রাম ছেড়ে পালানোর চেষ্টা করছেন গ্রামবাসীরা। কিন্তু কোথায় যাবেন?‌ ঠিক নেই।

এই বিষয়ে স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ, প্রশাসনের কোনও ব্যবস্থাও নেই। এখানকার মানুষ আতঙ্কের সঙ্গে দিন গুনছেন। খাবার পাশাপাশি পানীয় জল নেই। জেলা প্রশাসন বা সেচ দফতরের কেউ এখানে আসেনি। দুর্গত মানুষের পাশে এসে কেউ দাঁড়ায়নি। এই বিষয়ে গোপালপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের তৃণমূল কংগ্রেসের সদস্য সফিকুল ইসলাম নিজেও ঘর ছাড়া। তিনি জানান, বিধায়ক সাবিত্রী মিত্র ও রাজ্যের মন্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিনকে জানিয়েও কোনও লাভ হয়নি।

বন্ধ করুন