বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > বাংলায় আবারও গরমের দাপট, আর্দ্রতা বৃদ্ধিতে বাড়বে অস্বস্তি, এখনও নয় রেহাই
বাংলায় আবারও গরমের দাপট, আর্দ্রতা বৃদ্ধিতে বাড়বে অস্বস্তি, এখনও নয় রেহাই। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য বুরহান কিনু/হিন্দুস্তান টাইমস)
বাংলায় আবারও গরমের দাপট, আর্দ্রতা বৃদ্ধিতে বাড়বে অস্বস্তি, এখনও নয় রেহাই। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য বুরহান কিনু/হিন্দুস্তান টাইমস)

বাংলায় আবারও গরমের দাপট, আর্দ্রতা বৃদ্ধিতে বাড়বে অস্বস্তি, এখনও নয় রেহাই

আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, জৈষ্ঠ্যের প্রকৃতি অনুযায়ী এমন গরম চলবে।বাতাসের আর্দ্রতা বেশি থাকায় সন্ধ্যার পরে বিক্ষিপ্তভাবে ঝড় বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

মাঝে কয়েকদিন বজ্রগর্ভ মেঘের দাপটে বৃষ্টিপাত হয়েছে ঠিকই। কিন্তু ফের স্বমহিমায় ফিরেছে গরম। তীব্র রোদ, সেই সঙ্গে আর্দ্রতা থাকায় অস্বস্তি ক্রমশই বাড়ছে। রাজ্যে লকডাউনের বিধিনিষেধ থাকায় এমনিতেই মানুষ ঘর থেকে বের হচ্ছেন না। সেইসঙ্গে অস্বস্তিকর গরমে সাধারণ মানুষের আরও নাজেহাল অবস্থা।

আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস অনুযায়ী, জৈষ্ঠ্যের প্রকৃতি অনুযায়ী এমন গরম চলবে।বাতাসের আর্দ্রতা বেশি থাকায় সন্ধ্যার পরে বিক্ষিপ্তভাবে ঝড়-বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।আবহাওয়া দফতরের তরফে জানানো হয়েছে, বর্ধমান ও বীরভূমের শ্রীনিকেতনে দিনের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৯ ডিগ্রি ছুঁয়েছে। কলকাতায় তাপমাত্রা ততটা না হলেও মহানগরে তাপমাত্রা ৩৬.‌৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি বেশি। দমদমে তাপমাত্রা ৩৭.‌৪ ডিগ্রি। রাজ্যের পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলিতে পারদ ভালোই চড়েছে। এখানে তাপমাত্রার ৩৮ থেকে ৩৯ ডিগ্রির মধ্যে ঘোরাফেরা করেছে।

আবহাওয়াবিদদের মতে, বঙ্গোপসাগর থেকে প্রচুর জলীয় বাষ্প গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে ঢুকেছে।সেই কারণে অনেকসময়ই আকাশ মেঘলা থাকছে।এর ফলে অস্বস্তি ক্রমশ বাড়ছে। বর্তমান পরিস্থিতি যা, তাতে কবে বাংলায় বর্ষা ঢুকবে, সেকথা এখনই বলতে পারছেন না আবহাওয়াবিদরা। আগামী ৩১ মে কেরালায় বর্ষা ঢোকার কথা রয়েছে।কেরালায় বর্ষা ঢুকলেও তা দক্ষিণ ভারত থেকে বাংলায় আসতে অনেক বাধার মুখে পড়তে হয়। এই পরিস্থিতিতে কেরালায় বর্ষা ঢোকার পর কিছুটা থিতু হলেই বোঝা যাবে, ঠিক কবে নাগাদ বাংলায় বর্ষা শুরু হবে।

বন্ধ করুন